ঢাকা ১০:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাজপথে চেঁচামেচি করে কোটা বাতিল করা যাবে না: আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১১:৩৬:১৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪
  • / ৪২৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রাজপথে আন্দোলন বা চেঁচামেচি বা বকাবাদ্য করে এটা নিরসন হবে না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সচিবালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, কোটার বিষয়টি সরকারের সিদ্ধান্তের ওপর নেই, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন আদালত। রাজপথে আন্দোলন বা চেঁচামেচি বা বকা-বাদ্য করে এটা নিরসন হবে না। এটা করলে একটা পর্যায়ে হয়তো আদালত অবমাননাও হয়ে যেতে পারে।

আইনমন্ত্রী বলেন, কোটা নিয়ে বিচারাধীন মামলায় পক্ষভুক্ত হতে চাওয়ার শিক্ষার্থীরা সঠিক পথে হাঁটছেন। যেহেতু তারা আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আমি আশা করব, তারা আন্দোলন প্রত্যাহার করবেন।

আনিসুল হক আরও বলেন, আমি যতদূর জেনেছি, যখন হাইকোর্ট বিভাগে এই মামলা চলে, তখন আজকে যারা কোটাবিরোধী আন্দোলন করছেন তারা কিন্তু তাদের বক্তব্য আদালতের কাছে পেশ করার জন্য কোনো আইনজীবী নিয়োগ করেননি। তাদের বক্তব্য সেখানে দেননি। তার পরে মামলাটার রায় হয়ে গেছে, মামলাটি এখন আপিল বিভাগে।

তবে যারা কোটা বাতিলের দাবিতে যারা আন্দোলন করছেন আপিল বিভাগে তারা একজন আইনজীবী রেখে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করতে পারেন। আপিল বিভাগ তাদের বক্তব্য শুনে বিবেচনা করতে পারেন একটি গণমাধ্যমকে এমনটি জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী।

ঘটনা আদালতে ঘটেছে জানিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, রাজপথে আন্দোলন করে বা চেঁচামেচি করে বা বকা-বাদ্য করে এটার নিরসন হবে না। এটা করলে একটা পর্যায়ে হয়তো আদালত অবমাননাও হয়ে যেতে পারে। সঠিক জায়গা হলো, তারা যদি পক্ষভুক্ত হয়ে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করেন। অবশ্যই আপিল বিভাগ সব পক্ষ শুনবেন এবং সব পক্ষ শুনে আপিল বিভাগ একটা ন্যায় বিচার করবেন। এটাই আমাদের আশা এবং আমার মনে হয় সেটাই হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজপথে চেঁচামেচি করে কোটা বাতিল করা যাবে না: আইনমন্ত্রী

আপডেট সময় : ১১:৩৬:১৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪

রাজপথে আন্দোলন বা চেঁচামেচি বা বকাবাদ্য করে এটা নিরসন হবে না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সচিবালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, কোটার বিষয়টি সরকারের সিদ্ধান্তের ওপর নেই, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন আদালত। রাজপথে আন্দোলন বা চেঁচামেচি বা বকা-বাদ্য করে এটা নিরসন হবে না। এটা করলে একটা পর্যায়ে হয়তো আদালত অবমাননাও হয়ে যেতে পারে।

আইনমন্ত্রী বলেন, কোটা নিয়ে বিচারাধীন মামলায় পক্ষভুক্ত হতে চাওয়ার শিক্ষার্থীরা সঠিক পথে হাঁটছেন। যেহেতু তারা আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আমি আশা করব, তারা আন্দোলন প্রত্যাহার করবেন।

আনিসুল হক আরও বলেন, আমি যতদূর জেনেছি, যখন হাইকোর্ট বিভাগে এই মামলা চলে, তখন আজকে যারা কোটাবিরোধী আন্দোলন করছেন তারা কিন্তু তাদের বক্তব্য আদালতের কাছে পেশ করার জন্য কোনো আইনজীবী নিয়োগ করেননি। তাদের বক্তব্য সেখানে দেননি। তার পরে মামলাটার রায় হয়ে গেছে, মামলাটি এখন আপিল বিভাগে।

তবে যারা কোটা বাতিলের দাবিতে যারা আন্দোলন করছেন আপিল বিভাগে তারা একজন আইনজীবী রেখে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করতে পারেন। আপিল বিভাগ তাদের বক্তব্য শুনে বিবেচনা করতে পারেন একটি গণমাধ্যমকে এমনটি জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী।

ঘটনা আদালতে ঘটেছে জানিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, রাজপথে আন্দোলন করে বা চেঁচামেচি করে বা বকা-বাদ্য করে এটার নিরসন হবে না। এটা করলে একটা পর্যায়ে হয়তো আদালত অবমাননাও হয়ে যেতে পারে। সঠিক জায়গা হলো, তারা যদি পক্ষভুক্ত হয়ে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করেন। অবশ্যই আপিল বিভাগ সব পক্ষ শুনবেন এবং সব পক্ষ শুনে আপিল বিভাগ একটা ন্যায় বিচার করবেন। এটাই আমাদের আশা এবং আমার মনে হয় সেটাই হবে।