ঢাকা ১০:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাইসির নিহতের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের হাত নেই: ইসরাইল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৪:১৬:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪
  • / ৪৩৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম রাইসির নিহতের বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে নানা মহলে। এটা কী নিছক দুর্ঘটনা নাকী এর পেছনে রয়েছে গভীর কোন ষড়যন্ত্র? ইরানের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফের অভিযোগ রাইসির মৃত্যুর জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী। আর এ ঘটনার সঙ্গে ওয়াশিংটন জড়িত নয় বলে সাফাই গেয়েছে ইসরাইল।
ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম রাইসির নিহতের ঘটনাকে সহজভাবে দেখছেন না অনেকেই। জনপ্রিয় এই নেতার মৃত্যু কোনভাবেই মেনে নিতে পারছে না ইরানের জনগণ। সেই সঙ্গে মুসলিম বিশ্বেও নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দিকে আঙ্গুল তুলেছেন ইরানের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রকাশিত একটি খবরে উঠে আসে এ তথ্য। জাভেদ জারিফের দাবি, ইব্রাহীম রাইসির নিহতের অন্যতম কারণ যুক্তরাষ্ট্র। আর তাদের এই অপরাধ ইরানের ইতিহাসে আজীবন লেখা থাকবে।

হামাস-ইসরাইল চলমান যুদ্ধে বরাবরই ফিলিস্তিনিদের পক্ষে কাজ করেন ইরানের এই নেতা। পশ্চিমাদের ষড়যন্ত্রে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বাধা দেন তিনি। হুঙ্কার তোলেন গাজায় ইসরাইলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে।

এসব ঘটনা আমলে নিয়ে অনেকের মনে প্রশ্ন জেগেছে ইরানের প্রেসিডেন্ট নিহতের বিষয়টি নিছক দুর্ঘটনা নাকী এর পেছনে রয়েছে গভীর কোন ষড়যন্ত্র? ইউরোপীয়ান পার্লামেন্টের সাবেক সদস্য নিক গ্রিফিনের অভিযোগ গাজা কিংবা ইরান ইস্যুতে ইসরাইলের জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ জড়িত। আর বিষয়টি মোটেও আশ্চর্যের নয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে লেখা ক্ষুদে বার্তায় তিনি আরও বলেন, ‘আজারবাইজানে বাঁধ উদ্বোধন শেষে রাইসি নিজ দেশে ফিরছিলেন। আর তার এ সফরের মধ্যদিয়ে দুটি শিয়া রাষ্ট্রের সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটার সুবাতাস পাওয়া যায়। নাগোর্নো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে দীর্ঘ সময় ধরে চলে আসা এ দ্বন্দ্বও কিছুটা শিথিল হতে পারে। তবে এতে ইসরাইলের আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। কেননা আর্মেনিয়ার যোদ্ধাদের কাছে ড্রোন ও অন্যান্য অস্ত্র বিক্রি করে আর্থিক লাভবান হয় ইসরাইল ।

এছাড়া পশ্চিমাদের সরবরাহ করা নকশায় তৈরি ইরানি হেলিকপ্টারে সফর করছিলেন ইব্রাহীম রাইসি। যা কোনভাবেই তার জীবনের জন্য নিরাপদ বলে মনে করেন না অনেকে। যদিও এ বিষয়ে এখনও কোন মন্তব্য করেনি তেহরান।

এদিকে ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম রাইসির নিহতের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র জড়িত নয় বলে সাফাই গেয়েছে ইসরাইল। সোমবার আনুষ্ঠানিক বক্তব্যে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করে তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

রাইসির নিহতের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের হাত নেই: ইসরাইল

আপডেট সময় : ০৪:১৬:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম রাইসির নিহতের বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে নানা মহলে। এটা কী নিছক দুর্ঘটনা নাকী এর পেছনে রয়েছে গভীর কোন ষড়যন্ত্র? ইরানের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফের অভিযোগ রাইসির মৃত্যুর জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী। আর এ ঘটনার সঙ্গে ওয়াশিংটন জড়িত নয় বলে সাফাই গেয়েছে ইসরাইল।
ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম রাইসির নিহতের ঘটনাকে সহজভাবে দেখছেন না অনেকেই। জনপ্রিয় এই নেতার মৃত্যু কোনভাবেই মেনে নিতে পারছে না ইরানের জনগণ। সেই সঙ্গে মুসলিম বিশ্বেও নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দিকে আঙ্গুল তুলেছেন ইরানের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রকাশিত একটি খবরে উঠে আসে এ তথ্য। জাভেদ জারিফের দাবি, ইব্রাহীম রাইসির নিহতের অন্যতম কারণ যুক্তরাষ্ট্র। আর তাদের এই অপরাধ ইরানের ইতিহাসে আজীবন লেখা থাকবে।

হামাস-ইসরাইল চলমান যুদ্ধে বরাবরই ফিলিস্তিনিদের পক্ষে কাজ করেন ইরানের এই নেতা। পশ্চিমাদের ষড়যন্ত্রে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বাধা দেন তিনি। হুঙ্কার তোলেন গাজায় ইসরাইলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে।

এসব ঘটনা আমলে নিয়ে অনেকের মনে প্রশ্ন জেগেছে ইরানের প্রেসিডেন্ট নিহতের বিষয়টি নিছক দুর্ঘটনা নাকী এর পেছনে রয়েছে গভীর কোন ষড়যন্ত্র? ইউরোপীয়ান পার্লামেন্টের সাবেক সদস্য নিক গ্রিফিনের অভিযোগ গাজা কিংবা ইরান ইস্যুতে ইসরাইলের জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ জড়িত। আর বিষয়টি মোটেও আশ্চর্যের নয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে লেখা ক্ষুদে বার্তায় তিনি আরও বলেন, ‘আজারবাইজানে বাঁধ উদ্বোধন শেষে রাইসি নিজ দেশে ফিরছিলেন। আর তার এ সফরের মধ্যদিয়ে দুটি শিয়া রাষ্ট্রের সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটার সুবাতাস পাওয়া যায়। নাগোর্নো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে দীর্ঘ সময় ধরে চলে আসা এ দ্বন্দ্বও কিছুটা শিথিল হতে পারে। তবে এতে ইসরাইলের আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। কেননা আর্মেনিয়ার যোদ্ধাদের কাছে ড্রোন ও অন্যান্য অস্ত্র বিক্রি করে আর্থিক লাভবান হয় ইসরাইল ।

এছাড়া পশ্চিমাদের সরবরাহ করা নকশায় তৈরি ইরানি হেলিকপ্টারে সফর করছিলেন ইব্রাহীম রাইসি। যা কোনভাবেই তার জীবনের জন্য নিরাপদ বলে মনে করেন না অনেকে। যদিও এ বিষয়ে এখনও কোন মন্তব্য করেনি তেহরান।

এদিকে ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম রাইসির নিহতের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র জড়িত নয় বলে সাফাই গেয়েছে ইসরাইল। সোমবার আনুষ্ঠানিক বক্তব্যে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করে তারা।