ঢাকা ০৮:১৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রমজানে দাম নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না : বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৫৮:২২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ জানুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৪৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

রমজানে দাম নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বুধবার (০৪ জানুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে দ্রব্যমূল্য ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত টাস্ক ফোর্সের পঞ্চম সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বুধবার (৪ জানুয়ারি) সাতটি ইস্যু নিয়ে কথা হয়েছে। চিনির মজুত পরিস্থিতি ভালো। তবুও দাম একটু বেশি। রমজানে দাম নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, রমজান শুরুর সাতদিন আগে ক্রেতারা যে বাজারে হুমড়ি খেয়ে পড়েন, সেটা একটু কাইন্ডলি আপনারা (সাংবাদিক) দেখুন। তাদের বলুন, এর দরকার নেই। কারণ, দোকানে আছে ১০০ কেজি মাল, যখন ১০ জন ক্রেতা একসঙ্গে গিয়ে প্রত্যেকে ১০০ কেজি করে কিনতে চায় তখন মনে হয় সংকট, যেটা আর্টিফিশিয়াল (কৃত্রিম)।

তিনি বলেন, এক মাসেরটা রেগুলার কিনলে পরে এই চাপটা হয় না। এটা কিন্তু একটা বড় ধরনের ঝামেলা। আমরা সব সময় লক্ষ্য করছি রমজানের প্রথম সাতদিনই বেশি ক্রাইসিস। কারণ, রমজানের আগে থেকে সাতদিনের পণ্য কিনে নিলে পরের ৭-৮ দিন চলে যায়। তখন দেখা যায় বাজার স্বাভাবিক হয়ে আসছে। এটা একটু আপনারা (সাংবাদিকদের উদ্দেশে) কাইন্ডলি বলুন যে, ওনারা (ভোক্তা) যেন তড়িঘড়ি না করেন। রমজান মাসের আগেই সব কিনে নিতে হবে? রমজান মাসে আমার ৩০ কেজি পেঁয়াজ লাগবে, যখন একসঙ্গে কিনে ফেলতে চাই তখন তো বাজারে সমস্যা হবেই।

আসন্ন রমজানে একসঙ্গে পুরো মাসের পণ্য না কিনতে ভোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

ক্রেতারা যদি বেশি কিনতে চায়, সেটা তাদের বিষয়। কিন্তু আপনাদের তো নিয়ন্ত্রণ থাকা উচিত- এ প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সব মানুষ যদি একদিনেই মনে করে সব কিনে ফেলবে, তাহলে কিভাবে হবে? সাপ্লাইটা তো ঠিক রাখতে হবে। এটা একটা পজিটিভ মেন্টালিটি, যে হুট করে কেনার দরকার নেই। এটা সারা মাস ধরেই পাওয়া যাবে। আপনারা এক মাসের জিনিস একসাথে কিনেন না, এটা একটা বড় সমস্যা। আর আমরা সার্বিক চেষ্টা করছি, যাতে করে রোজার মাসে আমাদের সেই সমস্যাটা না হয়।

বাজার ব্যবস্থাপনা নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনেক সময় ছোটো সঙ্কটকে আমরা বড়ে করে দেখি। আমাদের ভোক্তা অধিকার সক্রিয় রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

রমজানে দাম নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না : বাণিজ্যমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০১:৫৮:২২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ জানুয়ারী ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

রমজানে দাম নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বুধবার (০৪ জানুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে দ্রব্যমূল্য ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত টাস্ক ফোর্সের পঞ্চম সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বুধবার (৪ জানুয়ারি) সাতটি ইস্যু নিয়ে কথা হয়েছে। চিনির মজুত পরিস্থিতি ভালো। তবুও দাম একটু বেশি। রমজানে দাম নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, রমজান শুরুর সাতদিন আগে ক্রেতারা যে বাজারে হুমড়ি খেয়ে পড়েন, সেটা একটু কাইন্ডলি আপনারা (সাংবাদিক) দেখুন। তাদের বলুন, এর দরকার নেই। কারণ, দোকানে আছে ১০০ কেজি মাল, যখন ১০ জন ক্রেতা একসঙ্গে গিয়ে প্রত্যেকে ১০০ কেজি করে কিনতে চায় তখন মনে হয় সংকট, যেটা আর্টিফিশিয়াল (কৃত্রিম)।

তিনি বলেন, এক মাসেরটা রেগুলার কিনলে পরে এই চাপটা হয় না। এটা কিন্তু একটা বড় ধরনের ঝামেলা। আমরা সব সময় লক্ষ্য করছি রমজানের প্রথম সাতদিনই বেশি ক্রাইসিস। কারণ, রমজানের আগে থেকে সাতদিনের পণ্য কিনে নিলে পরের ৭-৮ দিন চলে যায়। তখন দেখা যায় বাজার স্বাভাবিক হয়ে আসছে। এটা একটু আপনারা (সাংবাদিকদের উদ্দেশে) কাইন্ডলি বলুন যে, ওনারা (ভোক্তা) যেন তড়িঘড়ি না করেন। রমজান মাসের আগেই সব কিনে নিতে হবে? রমজান মাসে আমার ৩০ কেজি পেঁয়াজ লাগবে, যখন একসঙ্গে কিনে ফেলতে চাই তখন তো বাজারে সমস্যা হবেই।

আসন্ন রমজানে একসঙ্গে পুরো মাসের পণ্য না কিনতে ভোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

ক্রেতারা যদি বেশি কিনতে চায়, সেটা তাদের বিষয়। কিন্তু আপনাদের তো নিয়ন্ত্রণ থাকা উচিত- এ প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সব মানুষ যদি একদিনেই মনে করে সব কিনে ফেলবে, তাহলে কিভাবে হবে? সাপ্লাইটা তো ঠিক রাখতে হবে। এটা একটা পজিটিভ মেন্টালিটি, যে হুট করে কেনার দরকার নেই। এটা সারা মাস ধরেই পাওয়া যাবে। আপনারা এক মাসের জিনিস একসাথে কিনেন না, এটা একটা বড় সমস্যা। আর আমরা সার্বিক চেষ্টা করছি, যাতে করে রোজার মাসে আমাদের সেই সমস্যাটা না হয়।

বাজার ব্যবস্থাপনা নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনেক সময় ছোটো সঙ্কটকে আমরা বড়ে করে দেখি। আমাদের ভোক্তা অধিকার সক্রিয় রয়েছে।