ঢাকা ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ম্যান সিটিকে জেতালেন আলভারেজ

ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০২:১৩:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৫১১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবলে গ্রুপ পর্বের প্রথম দিনই মাঠে নেমেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল ম্যানচেস্টার সিটি । যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল সার্বিয়ার ক্লাব রেড স্টার বেলগ্রেড। শুরুতে পিছিয়ে পড়েও ম্যাচটিতে দারুণ কামব্যাক করেছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা। গত মৌসুমের টপ স্কোরার আর্লিং হালান্ডের সুযোগ হাতছাড়ার দিনে জোড়া গোল করেছেন আর্জেন্টাইন তারকা ফরোয়ার্ড জুলিয়ান আলভারেজ। যার ওপর ভর করে ম্যানচেস্টার সিটি রেড স্টার বেলগ্রেডকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯শে সেপ্টেম্বর) রাতে ঘরের মাঠ ইতিহাদে আতিথ্য দিয়েছিল ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা। ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে তারা বিরতির আগমুহূর্তেই পিছিয়ে পড়েছিল। এরপর আলভারেজ ছাড়াও সিটির হয়ে জালের ছোঁয়া পেয়েছেন রদ্রি। যা উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নতুন মৌসুমে সিটিকে শুভসূচনা এনে দিয়েছে।

ম্যাচজুড়েই দুই দলের স্পষ্ট পার্থক্য চোখে পড়েছিল। গত বারের ট্রেবলজয়ী সিটি ৭৬ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের গোলমুখে ৩৭টি শট নিয়ে ১৬টি লক্ষ্যে রাখে। যদিও তাদের প্রথম গোলের দেখা পেতে বেশ কাঠখড় পোহাতে হয়েছে। এজন্য অবশ্য প্রতিপক্ষের ইসরাইলি গোলরক্ষক ওমরি গ্লেজারের দারুণ প্রচেষ্টা স্বীকার করতেই হবে। কেবল প্রথমার্ধেই তিনি ৯টি শট ঠেকিয়েছেন।

মাঝপথের বিরতিতে যাওয়ার আগমুহূর্তে ৪৫তম মিনিটে মিরকো ইভানিচের পাস থেকে সিটিকে পিছিয়ে দেন ওসমান বুকারি। গোলমুখে এটাই ছিল রেড স্টার বেলগ্রেডের প্রথম শট। যদিও শুরুতে সহকারী রেফারি সেটিকে অফসাইডের নির্দেশ করেন। তবে ভিএআরের সাহায্যে ওই সিদ্ধান্ত পাল্টে লিড ধরে রাখে বেলগ্রেড। ঘরের মাঠে বেশ কঠিন অবস্থায় পড়ে যায় হালান্ড-আলভারেজরা। তবে এতে দায় বেশি নরওয়েজিয়ান তারকার। তার সামনে থেকে দুটি এবং ফিল ফোডেনও হাতছাড়া করেন একাধিক সুযোগ। যার ফলে হতাশার এক অর্ধ শেষে তাদের স্কোরলাইন ছিল ১-০।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেও একই ধারায় গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে সিটি। যার ফলও তারা হাতেনাতে-ই পেয়েছে। বিরতির পর দ্বিতীয় মিনিটেই স্কোরলাইনে সমতা আনেন আলভারেজ। হালান্ডের বাড়ানো বল পেয়ে তিনি বাইলাইনের কাছ থেকে ডান পায়ে কোণাকুণি শটে নিশানা ভেদ করেন। পাঁচ মিনিট পর লিডও নেয় ইংলিশ জায়ান্টরা। তবে ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকারের সেই গোল অফসাইডের জন্য বাতিল হয়ে যায়।

এরপরও লিড পেতে সময় নেয়নি সিটি। ৬০ মিনিটে আলভারেজের ফ্রি-কিক পাঞ্চ করার চেষ্টায় বলে ঠিকমতো হাত ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন গ্লেজার। ফলে ব্যক্তিগত ও দলের দ্বিতীয় গোল পেয়ে যান বিশ্বজয়ী আর্জেন্টাইন তারকা। এরপর ম্যাচের বড় জয় নির্ধারক শেষ গোলটি আসে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার রদ্রির কল্যাণে। ইংলিশ মিডফিল্ডার ফোডেনের কাছ থেকে বল পেয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণদেয়ালের ফাঁক গলে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন তিনি। এরপর বাঁকানো শটে দূরের পোস্ট দিয়ে বল জালে জড়ান। ম্যাচের বাকি সময়ে আর কেউ গোল পায়নি। ফলে ৩-১ গোলের জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শুরু করলো চলতি আসরেরও অন্যতম ফেভারিট সিটি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ম্যান সিটিকে জেতালেন আলভারেজ

আপডেট সময় : ০২:১৩:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবলে গ্রুপ পর্বের প্রথম দিনই মাঠে নেমেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল ম্যানচেস্টার সিটি । যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল সার্বিয়ার ক্লাব রেড স্টার বেলগ্রেড। শুরুতে পিছিয়ে পড়েও ম্যাচটিতে দারুণ কামব্যাক করেছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা। গত মৌসুমের টপ স্কোরার আর্লিং হালান্ডের সুযোগ হাতছাড়ার দিনে জোড়া গোল করেছেন আর্জেন্টাইন তারকা ফরোয়ার্ড জুলিয়ান আলভারেজ। যার ওপর ভর করে ম্যানচেস্টার সিটি রেড স্টার বেলগ্রেডকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯শে সেপ্টেম্বর) রাতে ঘরের মাঠ ইতিহাদে আতিথ্য দিয়েছিল ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা। ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে তারা বিরতির আগমুহূর্তেই পিছিয়ে পড়েছিল। এরপর আলভারেজ ছাড়াও সিটির হয়ে জালের ছোঁয়া পেয়েছেন রদ্রি। যা উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নতুন মৌসুমে সিটিকে শুভসূচনা এনে দিয়েছে।

ম্যাচজুড়েই দুই দলের স্পষ্ট পার্থক্য চোখে পড়েছিল। গত বারের ট্রেবলজয়ী সিটি ৭৬ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের গোলমুখে ৩৭টি শট নিয়ে ১৬টি লক্ষ্যে রাখে। যদিও তাদের প্রথম গোলের দেখা পেতে বেশ কাঠখড় পোহাতে হয়েছে। এজন্য অবশ্য প্রতিপক্ষের ইসরাইলি গোলরক্ষক ওমরি গ্লেজারের দারুণ প্রচেষ্টা স্বীকার করতেই হবে। কেবল প্রথমার্ধেই তিনি ৯টি শট ঠেকিয়েছেন।

মাঝপথের বিরতিতে যাওয়ার আগমুহূর্তে ৪৫তম মিনিটে মিরকো ইভানিচের পাস থেকে সিটিকে পিছিয়ে দেন ওসমান বুকারি। গোলমুখে এটাই ছিল রেড স্টার বেলগ্রেডের প্রথম শট। যদিও শুরুতে সহকারী রেফারি সেটিকে অফসাইডের নির্দেশ করেন। তবে ভিএআরের সাহায্যে ওই সিদ্ধান্ত পাল্টে লিড ধরে রাখে বেলগ্রেড। ঘরের মাঠে বেশ কঠিন অবস্থায় পড়ে যায় হালান্ড-আলভারেজরা। তবে এতে দায় বেশি নরওয়েজিয়ান তারকার। তার সামনে থেকে দুটি এবং ফিল ফোডেনও হাতছাড়া করেন একাধিক সুযোগ। যার ফলে হতাশার এক অর্ধ শেষে তাদের স্কোরলাইন ছিল ১-০।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেও একই ধারায় গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে সিটি। যার ফলও তারা হাতেনাতে-ই পেয়েছে। বিরতির পর দ্বিতীয় মিনিটেই স্কোরলাইনে সমতা আনেন আলভারেজ। হালান্ডের বাড়ানো বল পেয়ে তিনি বাইলাইনের কাছ থেকে ডান পায়ে কোণাকুণি শটে নিশানা ভেদ করেন। পাঁচ মিনিট পর লিডও নেয় ইংলিশ জায়ান্টরা। তবে ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকারের সেই গোল অফসাইডের জন্য বাতিল হয়ে যায়।

এরপরও লিড পেতে সময় নেয়নি সিটি। ৬০ মিনিটে আলভারেজের ফ্রি-কিক পাঞ্চ করার চেষ্টায় বলে ঠিকমতো হাত ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন গ্লেজার। ফলে ব্যক্তিগত ও দলের দ্বিতীয় গোল পেয়ে যান বিশ্বজয়ী আর্জেন্টাইন তারকা। এরপর ম্যাচের বড় জয় নির্ধারক শেষ গোলটি আসে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার রদ্রির কল্যাণে। ইংলিশ মিডফিল্ডার ফোডেনের কাছ থেকে বল পেয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণদেয়ালের ফাঁক গলে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন তিনি। এরপর বাঁকানো শটে দূরের পোস্ট দিয়ে বল জালে জড়ান। ম্যাচের বাকি সময়ে আর কেউ গোল পায়নি। ফলে ৩-১ গোলের জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শুরু করলো চলতি আসরেরও অন্যতম ফেভারিট সিটি।