ঢাকা ০৫:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মেসির রেকর্ডটা ভেঙে দিলেন লেভানদফস্কি

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:২১:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৬০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

শেষ ষোলোর ড্রয়ের পর থেকেই আগ্রহ এ ম্যাচ নিয়ে। হাজার হলেও মারাদনা-ডার্বি বলে কথা। নাপোলিতে ইতিহাস গড়ার আগে বার্সেলোনা দিয়ে তো ইউরোপের আবির্ভাব দিয়েগো মারাদনার। তাঁর নামের স্টেডিয়ামেই কাল মুখোমুখি হয়েছিল বার্সেলোনা ও নাপোলি।

এই ম্যাচ দিয়েই মেসি পরবর্তী যুগে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে খেলার স্বাদ পেল বার্সেলোনা। সে ম্যাচে মেসিরই একটা রেকর্ড ভেঙেছেন রবের্ত লেভানদফস্কি। তবু জয় পায়নি বার্সেলোনা। ১-১ গোলে সমতায় শেষ হয়েছে শেষ ষোলোর প্রথম লেগ।

কোচ শাভি এরনান্দেস চাকরি ছেড়ে দেবেন বলার পর থেকেই ভালো খেলছে বার্সেলোনা। ওদিকে নাপোলি মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে ছাটাই করেছে কোচকে।

ফর্মের দুই বিপরীত প্রান্তে থাকা দুই দলের ম্যাচের শুরুটা ভালোই ছিল বার্সেলোনার। চতুর্থ মিনিটে প্রথম শটটি নেন ১৬ বছর ২২৩ দিন বয়সে মাঠে নেমে চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সে নকআউটে খেলার রেকর্ড গড়া লামিন ইয়ামাল।

প্রথমার্ধ জুড়েই দাপট ছিল বার্সেলোনার। ঘরের মাঠে খেলেও ৪৫ মিনিটে একটি শট নিতে পারেনি নেপলসের দলটি। বার্সেলোনা এগিয়ে যায় ৬০ মিনিটে। মৌসুমের শুরুতে ফর্ম হারিয়ে ফেলা লেভানদফস্কি গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নিজেকে ফিরে পেয়েছেন।

পেদ্রির কাছ থেকে বলে পেয়ে এক ডিফেন্ডারকে ভুল পথে পাঠিয়ে নিচু শটে জালে জড়ান লেভানদফস্কি। ৩৫ বছর ১৮৪ দিন বয়সী লেভানসফস্কি তাতে ভেঙেছেন মেসির বার্সেলোনার হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ নকআউটে সবচেয়ে বেশি বয়সে গোলের রেকর্ড (৩৩ বছর ২৫৯ দিন)। গোলের পর বার্সেলোনা ছন্দ হারিয়ে ফেলে। ফল, ৭৫ ‍মিনিটে ভিক্টর ওসিমেনের গোল।

ওদিকে ৬ বছর পর চ্যাম্পিয়নস লিগে ফিরেই নকআউট পর্বে ওঠা আর্সেনাল আবারও নকআউটে খেই হারিয়েছে। ২০১১ থেকে টানা সাত বছর চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলো থেকে ছিটকে পড়া ক্লাবটি গতকাল হেরেছে পোর্তোর মাঠে। পর্তিজ লিগে তিনে থাকা দলটির বিপক্ষে ম্যারম্যারে এক ম্যাচ উপহার দিয়েছে আর্সেনাল।

পুরো ম্যাচে গোলমুখে একটি শটও নিতে পারেনি আর্সেনাল। ওদিকে পোর্তো একটি শট নিলেও তা গোল হওয়ার মতো ছিল না। যখন গোলশূন্য ড্র হবে মনে হচ্ছিল, তখনই একক প্রচেষ্টায় বক্সের বাইরে থেকে দারুণ এক শট নেন ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার গালেনো। ৯৪ মিনিটের সে গোল ফেরত দিতে পারেনি আর্সেনাল।

নিউজটি শেয়ার করুন

মেসির রেকর্ডটা ভেঙে দিলেন লেভানদফস্কি

আপডেট সময় : ০১:২১:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শেষ ষোলোর ড্রয়ের পর থেকেই আগ্রহ এ ম্যাচ নিয়ে। হাজার হলেও মারাদনা-ডার্বি বলে কথা। নাপোলিতে ইতিহাস গড়ার আগে বার্সেলোনা দিয়ে তো ইউরোপের আবির্ভাব দিয়েগো মারাদনার। তাঁর নামের স্টেডিয়ামেই কাল মুখোমুখি হয়েছিল বার্সেলোনা ও নাপোলি।

এই ম্যাচ দিয়েই মেসি পরবর্তী যুগে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে খেলার স্বাদ পেল বার্সেলোনা। সে ম্যাচে মেসিরই একটা রেকর্ড ভেঙেছেন রবের্ত লেভানদফস্কি। তবু জয় পায়নি বার্সেলোনা। ১-১ গোলে সমতায় শেষ হয়েছে শেষ ষোলোর প্রথম লেগ।

কোচ শাভি এরনান্দেস চাকরি ছেড়ে দেবেন বলার পর থেকেই ভালো খেলছে বার্সেলোনা। ওদিকে নাপোলি মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে ছাটাই করেছে কোচকে।

ফর্মের দুই বিপরীত প্রান্তে থাকা দুই দলের ম্যাচের শুরুটা ভালোই ছিল বার্সেলোনার। চতুর্থ মিনিটে প্রথম শটটি নেন ১৬ বছর ২২৩ দিন বয়সে মাঠে নেমে চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সে নকআউটে খেলার রেকর্ড গড়া লামিন ইয়ামাল।

প্রথমার্ধ জুড়েই দাপট ছিল বার্সেলোনার। ঘরের মাঠে খেলেও ৪৫ মিনিটে একটি শট নিতে পারেনি নেপলসের দলটি। বার্সেলোনা এগিয়ে যায় ৬০ মিনিটে। মৌসুমের শুরুতে ফর্ম হারিয়ে ফেলা লেভানদফস্কি গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নিজেকে ফিরে পেয়েছেন।

পেদ্রির কাছ থেকে বলে পেয়ে এক ডিফেন্ডারকে ভুল পথে পাঠিয়ে নিচু শটে জালে জড়ান লেভানদফস্কি। ৩৫ বছর ১৮৪ দিন বয়সী লেভানসফস্কি তাতে ভেঙেছেন মেসির বার্সেলোনার হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ নকআউটে সবচেয়ে বেশি বয়সে গোলের রেকর্ড (৩৩ বছর ২৫৯ দিন)। গোলের পর বার্সেলোনা ছন্দ হারিয়ে ফেলে। ফল, ৭৫ ‍মিনিটে ভিক্টর ওসিমেনের গোল।

ওদিকে ৬ বছর পর চ্যাম্পিয়নস লিগে ফিরেই নকআউট পর্বে ওঠা আর্সেনাল আবারও নকআউটে খেই হারিয়েছে। ২০১১ থেকে টানা সাত বছর চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলো থেকে ছিটকে পড়া ক্লাবটি গতকাল হেরেছে পোর্তোর মাঠে। পর্তিজ লিগে তিনে থাকা দলটির বিপক্ষে ম্যারম্যারে এক ম্যাচ উপহার দিয়েছে আর্সেনাল।

পুরো ম্যাচে গোলমুখে একটি শটও নিতে পারেনি আর্সেনাল। ওদিকে পোর্তো একটি শট নিলেও তা গোল হওয়ার মতো ছিল না। যখন গোলশূন্য ড্র হবে মনে হচ্ছিল, তখনই একক প্রচেষ্টায় বক্সের বাইরে থেকে দারুণ এক শট নেন ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার গালেনো। ৯৪ মিনিটের সে গোল ফেরত দিতে পারেনি আর্সেনাল।