ঢাকা ১১:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মেসির আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ

ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৩১:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪৯৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে হার তাঁকে এখনও পোড়ায়। লিওনেল মেসির দলের কাছে হারার কারণেই বিশ্বকাপ স্পর্শ করা হয়নি – ব্যাপারটা হয়তো তাঁকে এখনও কুরে কুরে খায়। নয়তো বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার প্রায় দশ মাস পরেও এমন কথা বলবেন কেন সাবেক ডাচ কোচ লুই ফন গাল?

বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল মেসির আর্জেন্টিনা ও ফন গালের নেদারল্যান্ডস। দুর্দান্ত এক ম্যাচ নির্ধারিত সময় শেষে অমীমাংসিত ছিল ২-২ গোলে। এরপর পেনাল্টি শুটআউট নামের ভাগ্যের খেলায় পেরে ওঠেনি ডাচরা। আর্জেন্টিনার গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্তিনেজের বীরত্বে সেমিতে ওঠে আলবিসেলেস্তিরা।

নাহুয়েল মলিনা আর মেসির পেনাল্টি গোলে ২-০ গোলের ব্যবধানে এগিয়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। পরে বিকল্প স্ট্রাইকার ভাউট ভেগহর্স্টের কল্যাণে ম্যাচে সমতায় ফেরে ডাচরা। ম্যাচের মধ্যে ডাচ-আর্জেন্টাইনদের হাতাহাতি, ম্যাচ শেষে বেঞ্চে বসে থাকা ফন গালের উদ্দেশ্যে মেসির ইঙ্গিতপূর্ণ উদযাপন, ম্যাচ পরবর্তী সাক্ষাৎকারে ভেগহর্স্টকে ক্ষিপ্ত মেসির ‘বোকা’ বলা – সবকিছু মিলিয়ে উত্তেজনাপূর্ণ মুহূর্তের কমতি ছিল না ম্যাচে।

সে ম্যাচ নিয়ে এতদিন পর মুখ খুললেন ফন গাল। খুলে কার্যত মেসিকে ম্যাচ পাতানোর জন্য অভিযুক্ত করলেন, ‘আসলে আমি ব্যাপারটা নিয়ে বেশি কিছু বলতে চাই না। আপনি যখন দেখবেন, যে কীভাবে আর্জেন্টিনা গোল পেয়েছে, আমরা-ই বা কীভাবে পেয়েছি, কীভাবে আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়েরা সীমা লঙ্ঘন করার পরও শাস্তি না পেয়ে পার পেয়ে গিয়েছে – এসব দেখার পর মনে হবে ম্যাচটা পাতানোই ছিল।’

ফন গালের মতে মেসিকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করার জন্যই এতকিছু করা হয়েছে, ‘আমি যা বলছি বিশ্বাস করেই বলছি। মেসিকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করার জন্যই করা হয়েছে এসব কিছু।’

বিশ্বকাপের পরেই ডাচদের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান ফন গাল, দায়িত্ব নেন রোনাল্ড কোমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

মেসির আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ

আপডেট সময় : ০১:৩১:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে হার তাঁকে এখনও পোড়ায়। লিওনেল মেসির দলের কাছে হারার কারণেই বিশ্বকাপ স্পর্শ করা হয়নি – ব্যাপারটা হয়তো তাঁকে এখনও কুরে কুরে খায়। নয়তো বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার প্রায় দশ মাস পরেও এমন কথা বলবেন কেন সাবেক ডাচ কোচ লুই ফন গাল?

বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল মেসির আর্জেন্টিনা ও ফন গালের নেদারল্যান্ডস। দুর্দান্ত এক ম্যাচ নির্ধারিত সময় শেষে অমীমাংসিত ছিল ২-২ গোলে। এরপর পেনাল্টি শুটআউট নামের ভাগ্যের খেলায় পেরে ওঠেনি ডাচরা। আর্জেন্টিনার গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্তিনেজের বীরত্বে সেমিতে ওঠে আলবিসেলেস্তিরা।

নাহুয়েল মলিনা আর মেসির পেনাল্টি গোলে ২-০ গোলের ব্যবধানে এগিয়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। পরে বিকল্প স্ট্রাইকার ভাউট ভেগহর্স্টের কল্যাণে ম্যাচে সমতায় ফেরে ডাচরা। ম্যাচের মধ্যে ডাচ-আর্জেন্টাইনদের হাতাহাতি, ম্যাচ শেষে বেঞ্চে বসে থাকা ফন গালের উদ্দেশ্যে মেসির ইঙ্গিতপূর্ণ উদযাপন, ম্যাচ পরবর্তী সাক্ষাৎকারে ভেগহর্স্টকে ক্ষিপ্ত মেসির ‘বোকা’ বলা – সবকিছু মিলিয়ে উত্তেজনাপূর্ণ মুহূর্তের কমতি ছিল না ম্যাচে।

সে ম্যাচ নিয়ে এতদিন পর মুখ খুললেন ফন গাল। খুলে কার্যত মেসিকে ম্যাচ পাতানোর জন্য অভিযুক্ত করলেন, ‘আসলে আমি ব্যাপারটা নিয়ে বেশি কিছু বলতে চাই না। আপনি যখন দেখবেন, যে কীভাবে আর্জেন্টিনা গোল পেয়েছে, আমরা-ই বা কীভাবে পেয়েছি, কীভাবে আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়েরা সীমা লঙ্ঘন করার পরও শাস্তি না পেয়ে পার পেয়ে গিয়েছে – এসব দেখার পর মনে হবে ম্যাচটা পাতানোই ছিল।’

ফন গালের মতে মেসিকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করার জন্যই এতকিছু করা হয়েছে, ‘আমি যা বলছি বিশ্বাস করেই বলছি। মেসিকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করার জন্যই করা হয়েছে এসব কিছু।’

বিশ্বকাপের পরেই ডাচদের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান ফন গাল, দায়িত্ব নেন রোনাল্ড কোমান।