ঢাকা ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মিয়ানমারের ২৮ সীমান্তরক্ষী অস্ত্রসহ পালিয়ে বাংলাদেশে

কক্সবাজার প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:৪৮:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
  • / ৪২৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে ২৮ জন সীমান্তরক্ষী অস্ত্রসহ বাংলাদেশে ঢুকেছে। ধারা করা যাচ্ছে, আরাকান আর্মির সঙ্গে যুদ্ধে টিকতে না পেরে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছে। বর্তমানে তারা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) হেফাজতে রয়েছে।

মঙ্গলবার টেকনাফের সাবরাং সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে একটি কাঠের নৌকা নিয়ে তারা বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করে।

বিশ্বস্ত সূত্রের দাবি, ওই সীমান্তরক্ষীদের কাছে ১৬টির মতো অস্ত্র ছিল। তাদের নিরস্ত্র করে বিজিবি হেফাজতে নিয়ে গেছে।

এর আগে রোববার ১৩৪ জন মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী (বিজিপি) ও সেনা সদস্যদের হস্তান্তর করে বাংলাদেশ। তারা সেদেশে চলমান সংঘর্ষে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর হামলার মুখে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিল।

তারও আগে, ১৫ ফেব্রুয়ারি ৩৩০ জন বিজিপি ও সেনাসদস্যকে ফেরত পাঠানো হয়। এরপর ২৫ এপ্রিল ফেরত যান আরও ২৮৮ জন। এর বিনিময়ে সেদেশে কারাভোগ করা ১৭৩ জন বাংলাদেশিকে ফেরত আনা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

মিয়ানমারের ২৮ সীমান্তরক্ষী অস্ত্রসহ পালিয়ে বাংলাদেশে

আপডেট সময় : ০৪:৪৮:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে ২৮ জন সীমান্তরক্ষী অস্ত্রসহ বাংলাদেশে ঢুকেছে। ধারা করা যাচ্ছে, আরাকান আর্মির সঙ্গে যুদ্ধে টিকতে না পেরে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছে। বর্তমানে তারা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) হেফাজতে রয়েছে।

মঙ্গলবার টেকনাফের সাবরাং সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে একটি কাঠের নৌকা নিয়ে তারা বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করে।

বিশ্বস্ত সূত্রের দাবি, ওই সীমান্তরক্ষীদের কাছে ১৬টির মতো অস্ত্র ছিল। তাদের নিরস্ত্র করে বিজিবি হেফাজতে নিয়ে গেছে।

এর আগে রোববার ১৩৪ জন মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী (বিজিপি) ও সেনা সদস্যদের হস্তান্তর করে বাংলাদেশ। তারা সেদেশে চলমান সংঘর্ষে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর হামলার মুখে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিল।

তারও আগে, ১৫ ফেব্রুয়ারি ৩৩০ জন বিজিপি ও সেনাসদস্যকে ফেরত পাঠানো হয়। এরপর ২৫ এপ্রিল ফেরত যান আরও ২৮৮ জন। এর বিনিময়ে সেদেশে কারাভোগ করা ১৭৩ জন বাংলাদেশিকে ফেরত আনা হয়।