ঢাকা ০৯:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মিয়ানমারের তিন ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১২:১৭:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৪৯৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মিয়ানমারের জান্তা সরকারের অধিভুক্ত বর্ডার গার্ড ফোর্সের (বিজিএফ) কর্নেল সাও চিত থু এবং ক্যাসিনোর শহর হিসেবে পরিচিত কারেন রাজ্যের বিতর্কিত শ্বে কোক্কোর ক্যাসিনো প্রকল্পে জড়িত দুজন ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাজ্য।

ওই তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে মানবপাচার, জোরপূর্বক শ্রম ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়া আরও দুজন হলেন, চীনা বিনিয়োগকারী শি ঝিজিয়াং এবং কর্নেল সাও মিন মিন ও। তারা দুজনেই বিজিএফ দ্বারা পরিচালিত চিত লিং মায়ং এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করতেন।

চীনা অপরাধীচক্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা, মানবপাচার, অনলাইন প্রতারণা, জুয়া ও অন্যান্য অপরাধের জন্য শ্বে কোক্কোর ক্যাসিনো প্রকল্পটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় কুখ্যাত হয়ে উঠেছে। এই প্রকল্প সাও চিত থু ও তার সীমান্তরক্ষী কর্মীদের আয়ের প্রধান উৎস।

চীনা বিনিয়োগকারী শি ঝিজিয়াং গত বছরের আগস্টে ব্যাংকক থেকে গ্রেপ্তার হন। আন্তর্জাতিকভাবে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। তার বিরুদ্ধে অনলাইনে জুয়া পরিচালনার অভিযোগ ছিল। এছাড়া তিনি কম্বোডিয়াতে বিতর্কিত মেগা প্রজেক্ট হাতে নিয়েছিলেন। বিজিএফ জানিয়েছে সে গ্রেপ্তার হওয়ার পর ওই প্রজেক্টের কাজ থেমে গেছে।

এই গোষ্ঠীটি কম্বোডিয়া, লাওস এবং মিয়ানমারে বিভিন্ন ধরনের প্রতারণা কাজ করে আসছিল। তাদের বিরুদ্ধে পাঁচারের ব্যাপক অভিযোগ আনা হয়।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিট ক্যামেরুন এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা কোনো আপরাধকে মেনে নিব না, প্রত্যেক মানুষেরই নিরাপদভাবে বাঁচার অধিকার আছে।
সূত্র: দ্য ইরাবদি

নিউজটি শেয়ার করুন

মিয়ানমারের তিন ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ

আপডেট সময় : ১২:১৭:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩

মিয়ানমারের জান্তা সরকারের অধিভুক্ত বর্ডার গার্ড ফোর্সের (বিজিএফ) কর্নেল সাও চিত থু এবং ক্যাসিনোর শহর হিসেবে পরিচিত কারেন রাজ্যের বিতর্কিত শ্বে কোক্কোর ক্যাসিনো প্রকল্পে জড়িত দুজন ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাজ্য।

ওই তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে মানবপাচার, জোরপূর্বক শ্রম ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়া আরও দুজন হলেন, চীনা বিনিয়োগকারী শি ঝিজিয়াং এবং কর্নেল সাও মিন মিন ও। তারা দুজনেই বিজিএফ দ্বারা পরিচালিত চিত লিং মায়ং এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করতেন।

চীনা অপরাধীচক্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা, মানবপাচার, অনলাইন প্রতারণা, জুয়া ও অন্যান্য অপরাধের জন্য শ্বে কোক্কোর ক্যাসিনো প্রকল্পটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় কুখ্যাত হয়ে উঠেছে। এই প্রকল্প সাও চিত থু ও তার সীমান্তরক্ষী কর্মীদের আয়ের প্রধান উৎস।

চীনা বিনিয়োগকারী শি ঝিজিয়াং গত বছরের আগস্টে ব্যাংকক থেকে গ্রেপ্তার হন। আন্তর্জাতিকভাবে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। তার বিরুদ্ধে অনলাইনে জুয়া পরিচালনার অভিযোগ ছিল। এছাড়া তিনি কম্বোডিয়াতে বিতর্কিত মেগা প্রজেক্ট হাতে নিয়েছিলেন। বিজিএফ জানিয়েছে সে গ্রেপ্তার হওয়ার পর ওই প্রজেক্টের কাজ থেমে গেছে।

এই গোষ্ঠীটি কম্বোডিয়া, লাওস এবং মিয়ানমারে বিভিন্ন ধরনের প্রতারণা কাজ করে আসছিল। তাদের বিরুদ্ধে পাঁচারের ব্যাপক অভিযোগ আনা হয়।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিট ক্যামেরুন এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা কোনো আপরাধকে মেনে নিব না, প্রত্যেক মানুষেরই নিরাপদভাবে বাঁচার অধিকার আছে।
সূত্র: দ্য ইরাবদি