ঢাকা ১০:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মানাবের উদ্যোগে ছিন্নমুল ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদের আনন্দ

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:৪৪:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৪৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পাবনা ঈশ্বরদীর সুনামধন্য সামাজিক সেবামুলক প্রতিষ্টান “ মাদককে না বলুন” মানাব উদ্যোগে ছিন্নমুল ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদের আনন্দ। একই সঙ্গে অসুস্থ্য তিন রোগী পেলেন চিকিৎসা খরচ। মানাবের ধারাবাহিক কাজের ভুয়সী প্রশংসা করলেন সুবিধাভোগী সুবিধা বঞ্চিত অসহায় পরিবারের সদস্যরা।

বুধবার(১০ এপ্রিল) বিকেলে মানাবের উদ্যোগে শহর ও উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ওইসব পরিবারের মধ্যে ঈদ সামগ্রি ও রোগিদের পরিবারের নিকট চিকিৎসা বাবদ টাকা প্রদান করা হয়।

ঈদ সামগ্রির মধ্যে ছিল এক কেজি গরুর মাংস, এক কেজি পোলোয়ার চাউল, এক লিটার সয়াবিনের ভোজ্য তেল, আধা কেজি চিনি, এক প্যাকেট সেমাই, এক প্যাকেট লবন, এক কেজি আলু, আধা কেজি কলাইয়ের ডাউল, এক প্যাকেট দুধ ও পরিমান মত মসলা। এছাড়াও দূরারোগ্য রোগে আক্রান্ত অসহায় তিনজনের পরিবারের নিকট নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

মাদককে না বলুন” মানাবের সভাপতি সমাজকর্মী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাসুম পারভেজ কল্লোল বলেন, সংগঠনটি এক দল যুবক নিজস্ব অর্থায়নে সমাজ থেকে মাদক নিমূলের লক্ষ্যে দীর্ঘকাল ধরে কাজ করে যাচ্ছে। বছর জুড়েই সম্পুর্ন ব্যক্তিগত অর্থায়নে মাদকাসক্তদের চিকিৎসা ও পূর্নবাসনের ব্যবস্থা পরিচালিত হয়। পাশাপাশি চক্ষুরোগিদের অপারেশনসহ দূরারোগ্য রোগিদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে আর্থিক সহযোগিতা করা হয়। একই সঙ্গে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ বেকার যুবকদের মাদক থেকে দুরে রাখতে বিশেষ পরামর্শক প্রদান করা হয়। তাদের সুস্থ্য বিনোদন ও ক্রীড়ামোদি করে গড়ে তুলতে সাংস্কৃতিক ও খেলাধুলার আয়োজন করা হয়।

মানাব সভাপতি কল্লোল আরও বলেন, সংগঠনটির পক্ষ থেকে ঈদের আগে সমাজের ছিন্নমুল ও সুবিধা বঞ্চিত পরিবারগুলোর ছেলে মেয়েদের পোশাক প্রদান করা হত। কিন্তু করোনার মহামারির কারণে ২০২০ সাল থেকে ঈদ উৎসবগুলোতে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ করা কার্যক্রম চলমান রয়েছে। মানাবের মত অন্যান্যরা এগিয়ে আসলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যদির উর্দ্ধমুল্যের বাজারে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত ও ছিন্নমুল মানুষগুলোকে সঙ্গে নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করা আরও সহজ হবে বলে আশাবাদী এই সমাজকর্মী।

এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন “মাদককে না বলুন” মানাব এর কর্মী আরাফাত জামান, ফারজানা ফেরদৌস পুষ্প, আবির হোসেন, রাব্বি রহমান, তারিফুল আলম আলিফ, আসিফ সরকার, সঞ্জ, রাতুল, নিশাত, তাসনিম, পিয়াস ইসলাম প্রমুখ।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

মানাবের উদ্যোগে ছিন্নমুল ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদের আনন্দ

আপডেট সময় : ০৪:৪৪:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪

পাবনা ঈশ্বরদীর সুনামধন্য সামাজিক সেবামুলক প্রতিষ্টান “ মাদককে না বলুন” মানাব উদ্যোগে ছিন্নমুল ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদের আনন্দ। একই সঙ্গে অসুস্থ্য তিন রোগী পেলেন চিকিৎসা খরচ। মানাবের ধারাবাহিক কাজের ভুয়সী প্রশংসা করলেন সুবিধাভোগী সুবিধা বঞ্চিত অসহায় পরিবারের সদস্যরা।

বুধবার(১০ এপ্রিল) বিকেলে মানাবের উদ্যোগে শহর ও উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ওইসব পরিবারের মধ্যে ঈদ সামগ্রি ও রোগিদের পরিবারের নিকট চিকিৎসা বাবদ টাকা প্রদান করা হয়।

ঈদ সামগ্রির মধ্যে ছিল এক কেজি গরুর মাংস, এক কেজি পোলোয়ার চাউল, এক লিটার সয়াবিনের ভোজ্য তেল, আধা কেজি চিনি, এক প্যাকেট সেমাই, এক প্যাকেট লবন, এক কেজি আলু, আধা কেজি কলাইয়ের ডাউল, এক প্যাকেট দুধ ও পরিমান মত মসলা। এছাড়াও দূরারোগ্য রোগে আক্রান্ত অসহায় তিনজনের পরিবারের নিকট নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

মাদককে না বলুন” মানাবের সভাপতি সমাজকর্মী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাসুম পারভেজ কল্লোল বলেন, সংগঠনটি এক দল যুবক নিজস্ব অর্থায়নে সমাজ থেকে মাদক নিমূলের লক্ষ্যে দীর্ঘকাল ধরে কাজ করে যাচ্ছে। বছর জুড়েই সম্পুর্ন ব্যক্তিগত অর্থায়নে মাদকাসক্তদের চিকিৎসা ও পূর্নবাসনের ব্যবস্থা পরিচালিত হয়। পাশাপাশি চক্ষুরোগিদের অপারেশনসহ দূরারোগ্য রোগিদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে আর্থিক সহযোগিতা করা হয়। একই সঙ্গে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ বেকার যুবকদের মাদক থেকে দুরে রাখতে বিশেষ পরামর্শক প্রদান করা হয়। তাদের সুস্থ্য বিনোদন ও ক্রীড়ামোদি করে গড়ে তুলতে সাংস্কৃতিক ও খেলাধুলার আয়োজন করা হয়।

মানাব সভাপতি কল্লোল আরও বলেন, সংগঠনটির পক্ষ থেকে ঈদের আগে সমাজের ছিন্নমুল ও সুবিধা বঞ্চিত পরিবারগুলোর ছেলে মেয়েদের পোশাক প্রদান করা হত। কিন্তু করোনার মহামারির কারণে ২০২০ সাল থেকে ঈদ উৎসবগুলোতে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ করা কার্যক্রম চলমান রয়েছে। মানাবের মত অন্যান্যরা এগিয়ে আসলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যদির উর্দ্ধমুল্যের বাজারে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত ও ছিন্নমুল মানুষগুলোকে সঙ্গে নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করা আরও সহজ হবে বলে আশাবাদী এই সমাজকর্মী।

এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন “মাদককে না বলুন” মানাব এর কর্মী আরাফাত জামান, ফারজানা ফেরদৌস পুষ্প, আবির হোসেন, রাব্বি রহমান, তারিফুল আলম আলিফ, আসিফ সরকার, সঞ্জ, রাতুল, নিশাত, তাসনিম, পিয়াস ইসলাম প্রমুখ।

 

বাখ//আর