ঢাকা ১২:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মাগুরার শ্রীপুরে মাদ্রাসা ছাত্রী নিখোঁজের ১৩ দিনেও উদ্ধার হয়নি, থানায় মামলা

নওয়াব আলী, মাগুরা প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৬:১৬:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৪১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মাগুরার শ্রীপুরে মাদ্রাসায় বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে বাড়ি থেকে মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে বের হওয়া মোছা. লাবনী খাতুন (১৫) এর নিখোঁজ হওয়ার ১৩ দিন পেরিয়ে গেলেও মেলেনি সন্ধ্যান। পরিবারের পক্ষ থেকে নিখোঁজের ২ দিন পর থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। এ দিকে পরিবারের একমাত্র মেয়েকে হারিয়ে দিশেহারা পরিবার। এ ঘটনায় লাবনীর পরিবারের পক্ষ থেকে শ্রীপুর থানায় একটি অপহরণ মামলা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে লাবনীর পরিবার জানায়, লাবনী খাতুন শ্রীপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের মো. জলিল মোল্যার মেয়ে। পার্শ্ববর্তী তখলপুর হাতেমআলী দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর ছাত্রী। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি সকালে সে বাড়ি থেকে মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। পরে পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে ও আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করে ও লাবনীর খোজ মিলেনি। এর দুইদিন পর লাবণীর বাবা জলিল মোল্যা থানায় অভিযোগ করেন। তবে তাদের ধারনা লাবনি নিখোজ হয়নি লাবনীকে অপহরণ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন আমার মেয়েকে ফেরত চাই এবং অপহরণ কারির শিবলুর সঠিক বিচার চাই।

এ মামলায় শ্রীপুর উপজেলার তখলপুর গ্রামের বিষে মোল্যার ছেলে শিবলু মোল্যা (২৮), মেয়ে সোহাগী আক্তার মীম (২৫), মো. পিয়ারুল ইসলাম (২৮), মোহাম্মদ আলী জোয়ার্দার (২৮) কে আসামি করা হয়।

তখলপুর হাতেম আলী দাখিল মাদ্রাসার সহকারী সুপার জহুরুল ইসলাম জানান, লাবনী খাতুন আমাদের মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী। সর্বশেষ সে ১১ ফেব্রুয়ারি মাদ্রাসায় আসছিলো। মাদ্রাসায় দুই-তিন দিন মাদ্রাসায় না আসলে আমরা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে খোঁজখবর নিয়ে থাকি। তার খোঁজ নিতে তার পরিবারের কাছে গেলে জানতে পারি তাকে পাওয়া যাচ্ছে না।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ তাসমীম আলম জানান, ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে। একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

মাগুরার শ্রীপুরে মাদ্রাসা ছাত্রী নিখোঁজের ১৩ দিনেও উদ্ধার হয়নি, থানায় মামলা

আপডেট সময় : ০৬:১৬:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মাগুরার শ্রীপুরে মাদ্রাসায় বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে বাড়ি থেকে মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে বের হওয়া মোছা. লাবনী খাতুন (১৫) এর নিখোঁজ হওয়ার ১৩ দিন পেরিয়ে গেলেও মেলেনি সন্ধ্যান। পরিবারের পক্ষ থেকে নিখোঁজের ২ দিন পর থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। এ দিকে পরিবারের একমাত্র মেয়েকে হারিয়ে দিশেহারা পরিবার। এ ঘটনায় লাবনীর পরিবারের পক্ষ থেকে শ্রীপুর থানায় একটি অপহরণ মামলা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে লাবনীর পরিবার জানায়, লাবনী খাতুন শ্রীপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের মো. জলিল মোল্যার মেয়ে। পার্শ্ববর্তী তখলপুর হাতেমআলী দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর ছাত্রী। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি সকালে সে বাড়ি থেকে মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। পরে পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে ও আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করে ও লাবনীর খোজ মিলেনি। এর দুইদিন পর লাবণীর বাবা জলিল মোল্যা থানায় অভিযোগ করেন। তবে তাদের ধারনা লাবনি নিখোজ হয়নি লাবনীকে অপহরণ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন আমার মেয়েকে ফেরত চাই এবং অপহরণ কারির শিবলুর সঠিক বিচার চাই।

এ মামলায় শ্রীপুর উপজেলার তখলপুর গ্রামের বিষে মোল্যার ছেলে শিবলু মোল্যা (২৮), মেয়ে সোহাগী আক্তার মীম (২৫), মো. পিয়ারুল ইসলাম (২৮), মোহাম্মদ আলী জোয়ার্দার (২৮) কে আসামি করা হয়।

তখলপুর হাতেম আলী দাখিল মাদ্রাসার সহকারী সুপার জহুরুল ইসলাম জানান, লাবনী খাতুন আমাদের মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী। সর্বশেষ সে ১১ ফেব্রুয়ারি মাদ্রাসায় আসছিলো। মাদ্রাসায় দুই-তিন দিন মাদ্রাসায় না আসলে আমরা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে খোঁজখবর নিয়ে থাকি। তার খোঁজ নিতে তার পরিবারের কাছে গেলে জানতে পারি তাকে পাওয়া যাচ্ছে না।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ তাসমীম আলম জানান, ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে। একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বাখ//আর