ঢাকা ০৬:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

মস্কো শুধু পেশীশক্তির ভাষা বোঝে : জেলেনস্কি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০৯:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৮৯ বার পড়া হয়েছে

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, রাশিয়াকে বিষয়টি স্পষ্ট করা দরকার যে কিয়েভের বিরুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করলে তাৎক্ষণিকভাবে সামরিক প্রতিক্রিয়ার মুখোমুখি হতে হবে মস্কোকে। চলতি সপ্তাহে সম্প্রচারমাধ্যম সিবিসি ও সিটিভিকে সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি।

জেলেনস্কি বলেন, মস্কো ইউক্রেনের কেন্দ্রবিন্দুতে পারমাণবিক হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছে, এ ধরনের ঘটলে বিশ্বকে অবশ্যই প্রতিক্রিয়া দেখানো উচিত। ইউক্রেন একটি ন্যাটো সদস্য অথবা নন-ন্যাটো দেশ কিনা সেটি বিবেচ্য বিষয় নয়।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, বিশ্বের উচিত রাশিয়াকে বলা, আপনি যদি ব্যাঙ্কোভা স্ট্রিটে (ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়) আক্রমণ করেন আপনি যেখানে থাকবেন, সেখানেই প্রতিক্রিয়া হবে। যে কেউ দীর্ঘ সময় মানবতার কথা বলতে পারে। কিন্তু তার জাতি এমন একটি পরিস্থিতিতে বাস করে, যেখানে তার প্রতিবেশী (রাশিয়া) শক্তি ছাড়া কিছুই বোঝে না।

সম্প্রতি পুতিন ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি দিয়েছেন। জাতির উদ্দেশে টেলিভিশনে প্রচারিত ভাষণে তিনি বলেন, নিজেদের অস্ত্র দিয়ে পশ্চিমাদের, পারমাণবিক ব্ল্যাকমেইলের’ সাড়া দিতে তিনি প্রস্তুত। রাশিয়া যদি মনে করে আঞ্চলিক অখণ্ডতা হুমকির মুখে পড়েছে, তাহলে আমাদের কাছে থাকা সব পদ্ধতি ব্যবহার করব। এটি শুধু কথার কথা না। সূত্র : আরটি।

নিউজটি শেয়ার করুন

মস্কো শুধু পেশীশক্তির ভাষা বোঝে : জেলেনস্কি

আপডেট সময় : ০৯:০৯:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, রাশিয়াকে বিষয়টি স্পষ্ট করা দরকার যে কিয়েভের বিরুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করলে তাৎক্ষণিকভাবে সামরিক প্রতিক্রিয়ার মুখোমুখি হতে হবে মস্কোকে। চলতি সপ্তাহে সম্প্রচারমাধ্যম সিবিসি ও সিটিভিকে সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি।

জেলেনস্কি বলেন, মস্কো ইউক্রেনের কেন্দ্রবিন্দুতে পারমাণবিক হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছে, এ ধরনের ঘটলে বিশ্বকে অবশ্যই প্রতিক্রিয়া দেখানো উচিত। ইউক্রেন একটি ন্যাটো সদস্য অথবা নন-ন্যাটো দেশ কিনা সেটি বিবেচ্য বিষয় নয়।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, বিশ্বের উচিত রাশিয়াকে বলা, আপনি যদি ব্যাঙ্কোভা স্ট্রিটে (ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়) আক্রমণ করেন আপনি যেখানে থাকবেন, সেখানেই প্রতিক্রিয়া হবে। যে কেউ দীর্ঘ সময় মানবতার কথা বলতে পারে। কিন্তু তার জাতি এমন একটি পরিস্থিতিতে বাস করে, যেখানে তার প্রতিবেশী (রাশিয়া) শক্তি ছাড়া কিছুই বোঝে না।

সম্প্রতি পুতিন ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি দিয়েছেন। জাতির উদ্দেশে টেলিভিশনে প্রচারিত ভাষণে তিনি বলেন, নিজেদের অস্ত্র দিয়ে পশ্চিমাদের, পারমাণবিক ব্ল্যাকমেইলের’ সাড়া দিতে তিনি প্রস্তুত। রাশিয়া যদি মনে করে আঞ্চলিক অখণ্ডতা হুমকির মুখে পড়েছে, তাহলে আমাদের কাছে থাকা সব পদ্ধতি ব্যবহার করব। এটি শুধু কথার কথা না। সূত্র : আরটি।