শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীতে কুখ্যাত ভূমি প্রতারক ফারজানাসহ আটক-৩ রাজশাহীতে আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সম্মেলন কলমাকান্দায় সচেতনতা তৈরিতে বৈঠক শ্রীমঙ্গলে তিন দিনব্যাপী পিঠা উৎসব শুরু শ্রীমঙ্গলে টপসয়েল কাটার দায়ে ১ জনের ৫০ হাজার টাকা দন্ড রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়নের পাশাপাশি দুর্ঘটনা অনেক বেড়েছে : সংসদে হানিফ সোনার চামচে রাজ-পরীমণির ছেলের মুখে ভাত! বাংলাদেশ সফরে ইংল্যান্ডের দল ঘোষণা চীন বাংলাদেশের বৃহৎ অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক অংশীদার : বাণিজ্যমন্ত্রী স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণে সরকার কাজ করছে : স্পিকার হিরো আলমের অভিযোগের কোনও ভিত্তি নেই : ইসি রাশেদা দেশে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২০৩১৬ : সংসদে শিক্ষামন্ত্রী রাজউকে অনলাইনে নকশার আবেদন ৩৪ হাজার : সংসদে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আইএমএফের ঋণের প্রথম কিস্তি পেল বাংলাদেশ নোবিপ্রবিতে আট দাবিতে তৃতীয় দিনও আন্দোলন অব্যহত

ভোজ্যতেলের দাম আবারও বাড়ানোর ইঙ্গিত

ভোজ্যতেলের দাম আবারও বাড়ানোর ইঙ্গিত
ফাইল ছবি

বাজারে ভোজ্যতেলের দাম আবারও বাড়ানোর ইঙ্গিত দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। ছাড়ের পর আমদানির ওপর মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট ছিল মাত্র ৫ শতাংশ। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভ্যাট ১৫ শতাংশের পরিবর্তে ৫ শতাংশ করেছিল। শুক্রবার থেকে সেই মওকুফ সুবিধা উঠে গেছে।

এতে ভোজ্যতেলের দাম আবার বাড়বে বলেই জানিয়েছে আমদানিকারক ও পরিশোধন প্রতিষ্ঠানগুলো।
জানতে চাইলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (আমদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য অধিশাখা-১) দাউদুল ইসলাম বলেন, ‘ভ্যাটের বিষয় নিয়ে মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজ করছেন। আগামীকাল রোববার অফিস খোলার পর বিষয়টি সমাধা হবে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে টিকে গ্রুপের পরিচালক (অর্থ ও অপারেশন) শফিকুল আথহার তসলিম বলেন, ১৫ শতাংশ ভ্যাট মওকুফের জন্য এসআরও জারি ছিল ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। নতুন করে সময় না বাড়ানোয় তাঁরা আজ শনিবার ১৫ শতাংশ ভ্যাট রেখেই তেল সরবরাহ করেছেন। এতে বাজারে দাম ১০ শতাংশ হারে বাড়বে বলে জানান তিনি।

ভোজ্যতেলের ওপর আরোপিত ভ্যাট ছিল ১৫ শতাংশ। ভোজ্যতেলের দাম অস্বাভাবিক বাড়ায় চলতি বছরের মার্চে ভ্যাট ১০ শতাংশ কমানো হয়। অর্থাৎ ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ ছিল। গতকাল শুক্রবার থেকে সেই রেয়াতি ভ্যাট সুবিধা উঠে গেছে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) প্রজ্ঞাপনে চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভোজ্যতেল আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীদের এ সুবিধা দেওয়া হয়েছিল। গত ১৪ মার্চ এনবিআর প্রজ্ঞাপন দিয়ে সয়াবিন ও পাম তেলের উৎপাদন পর্যায়ে ১৫ শতাংশ এবং ব্যবসায় পর্যায়ে ৫ শতাংশ ভ্যাট মওকুফ করে। এর দুই দিন পরে ভোজ্যতেলের আমদানি পর্যায়ে আরোপিত ১৫ শতাংশ ভ্যাট কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়। তখন এর মেয়াদ ঠিক করা হয় ৩০ জুন পর্যন্ত। এরপর এনবিআর ৩ জুলাই আরেকটি প্রজ্ঞাপনে ভ্যাট মওকুফ সুবিধার মেয়াদ বাড়িয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর করে। শুক্রবার সেই মেয়াদ শেষ হলেও মেয়াদ বাড়ানোর জন্য এনবিআর এখন পর্যন্ত নতুন কোনো প্রজ্ঞাপন জারি করেনি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, দেশে বছরে ভোট ভোজ্যতেলের চাহিদা রয়েছে ২০ লাখ টন। এরমধ্যে ২ লাখ টন দেশে উৎপাদন হয় এবং অবশিষ্ট ভোজ্যতেল আমদানির মাধ্যমে চাহিদা পূরণ হয়ে আসছে। বর্তমানে সিটি মেঘনা, এস আলম, টিকে, বাংলাদেশ এডিবল অয়েল মিল লিমিটেডসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান চাহিদা পূরণ করছে।

বর্তমানে প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন তেল ১৭৫ টাকা। বোতলজাত ১৯২ টাকা, পাম তেল লিটারপ্রতি ১৩৩ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *