ঢাকা ০১:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ভারত থেকে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন জ্যাকলিন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০৫:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৭১ বার পড়া হয়েছে

বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিনোদন ডেস্ক : 
২০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলার তদন্ত চলাকালে ভারত থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ।

কাল শনিবার (২২ অক্টোবর) দিল্লির পাতিয়ালা হাউজ আদালতে এ তথ্য জানায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

ইডি আদালতে জানান, জ্যাকলিন তদন্তকারীদের সহযোগিতা করছেন না। তিনি ভারত ছেড়ে পালাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু নজরদারির মধ্যে থাকায় পালাতে ব্যর্থ হন। এছাড়া অভিনেত্রী তার মোবাইল ফোন থেকে অনেক তথ্য মুছে দিয়ে প্রমাণ নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন।

এদিন ইডির পক্ষ থেকে জ্যাকলিন ফার্নান্দেজের জামিন আবেদনের বিরোধীতা করা হয়।

তবে অভিনেত্রীর আইনজীবী প্রশান্ত পাতিল এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আদালতকে বলেন, জ্যাকলিন তদন্ত সংস্থাগুলোকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করেছেন। তিনি সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য ইডি’র কাছে হস্তান্তর করেছেন এবং আজ পর্যন্ত জারি করা সমনগুলোতে উপস্থিত ছিলেন।

এদিন আদালত জ্যাকলিনের অন্তর্র্বতীকালীন জামিনের মেয়াদ ১০ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ায়।

প্রসঙ্গত, এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) এর ২০০ কোটি টাকার অর্থ আত্মসাৎ মামলার মূল অভিযুক্ত সুকেশ চন্দ্রশেখর। এই মামলায় জড়িয়ে পড়েছে বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ ও নোরা ফতেহির নাম। কিন্তু নোরার তুলনায় জ্যাকলিনকে নিয়ে টানাপোড়েনের মাত্রা কিছুটা বেশি।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ভারত থেকে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন জ্যাকলিন

আপডেট সময় : ০৪:০৫:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২

বিনোদন ডেস্ক : 
২০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলার তদন্ত চলাকালে ভারত থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ।

কাল শনিবার (২২ অক্টোবর) দিল্লির পাতিয়ালা হাউজ আদালতে এ তথ্য জানায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

ইডি আদালতে জানান, জ্যাকলিন তদন্তকারীদের সহযোগিতা করছেন না। তিনি ভারত ছেড়ে পালাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু নজরদারির মধ্যে থাকায় পালাতে ব্যর্থ হন। এছাড়া অভিনেত্রী তার মোবাইল ফোন থেকে অনেক তথ্য মুছে দিয়ে প্রমাণ নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন।

এদিন ইডির পক্ষ থেকে জ্যাকলিন ফার্নান্দেজের জামিন আবেদনের বিরোধীতা করা হয়।

তবে অভিনেত্রীর আইনজীবী প্রশান্ত পাতিল এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আদালতকে বলেন, জ্যাকলিন তদন্ত সংস্থাগুলোকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করেছেন। তিনি সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য ইডি’র কাছে হস্তান্তর করেছেন এবং আজ পর্যন্ত জারি করা সমনগুলোতে উপস্থিত ছিলেন।

এদিন আদালত জ্যাকলিনের অন্তর্র্বতীকালীন জামিনের মেয়াদ ১০ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ায়।

প্রসঙ্গত, এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) এর ২০০ কোটি টাকার অর্থ আত্মসাৎ মামলার মূল অভিযুক্ত সুকেশ চন্দ্রশেখর। এই মামলায় জড়িয়ে পড়েছে বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ ও নোরা ফতেহির নাম। কিন্তু নোরার তুলনায় জ্যাকলিনকে নিয়ে টানাপোড়েনের মাত্রা কিছুটা বেশি।