ঢাকা ০৩:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বেলকুচিতে সাংবাদিকের উপর হামলা : মোবাইল ছিনিয়ে নেয়া আবিরকে প্রধান আসামী করে মামলা 

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১২:০৩:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • / ৪৭০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলা শিকার হয়েছেন বেলকুচি প্রেস ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক আবু মুছা। বেলকুচি পৌর এলাকার গাড়ামাসী গ্রামের মৃত রেজাউল করিম  সেন্টুর ছেলে আবির সাংবাদিককে বেদম মারপিট করে তার  মোবাইল ফোন ও প্রেস কার্ড ছিনিয়ে নিয়ে যায় এবং যাবার সময় স্থানীয় এমপি মমিন মন্ডলের বাড়ি থেকে ফোন নিয়ে আসার কথা বলে চলে যান। রাতেই নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম ওই ফোন বেলকুচি প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব গাজী সাইদুর রহমানের কাছে জমা দেন এবং ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।
এ ঘটনায় আবিরকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত ২২ জনের বিরুদ্ধে  থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টার দিকে উপজেলার আলহাজ্ব নূতনপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে।
সাংবাদিক আবু মুছা বলেন, সোহাগপুর নূতন পাড়া এ এস উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নিয়ে তদন্তের জন্য শিক্ষা বোর্ড থেকে প্রতিনিধি আসলে তথ্য সংগ্রহের জন্য যায়।
বোর্ড প্রতিনিধিদের তদন্ত শেষে বিদ্যালয়ে মাঠে অবস্থান করা অবস্থায় হঠাৎ দেখতে পায় উক্ত বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাজ্জাদুল হক রেজার উপর সন্ত্রাসী আবিরসহ বেশ কয়েকজন তার উপর হামলা চালিয়েছে। হামলার বিষয়টি আমার পেশাগত কাছে ব্যবহার করা মুঠো ফোন দিয়ে ছবি তুলতে নিলে আবিরসহ বেশ কয়েকজন রাগানিত্ব হয়ে আমার মুঠোফোন ও দৈনিক মানব জমিন পত্রিকার পরিচয় পত্র ছিনিয়ে নেয় এবং উপর্যুপরি আমার শরীরে বিভিন্ন জায়গায় এলোপাথারি কিলঘুষি লাথি মারে। পরে সহকর্মীরা আমাকে ওখান থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে ভর্তি করান।
এ বিষয়ে বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আনিছুর রহমান জানান, ‘মামলা  হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

বেলকুচিতে সাংবাদিকের উপর হামলা : মোবাইল ছিনিয়ে নেয়া আবিরকে প্রধান আসামী করে মামলা 

আপডেট সময় : ১২:০৩:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলা শিকার হয়েছেন বেলকুচি প্রেস ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক আবু মুছা। বেলকুচি পৌর এলাকার গাড়ামাসী গ্রামের মৃত রেজাউল করিম  সেন্টুর ছেলে আবির সাংবাদিককে বেদম মারপিট করে তার  মোবাইল ফোন ও প্রেস কার্ড ছিনিয়ে নিয়ে যায় এবং যাবার সময় স্থানীয় এমপি মমিন মন্ডলের বাড়ি থেকে ফোন নিয়ে আসার কথা বলে চলে যান। রাতেই নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম ওই ফোন বেলকুচি প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব গাজী সাইদুর রহমানের কাছে জমা দেন এবং ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।
এ ঘটনায় আবিরকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত ২২ জনের বিরুদ্ধে  থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টার দিকে উপজেলার আলহাজ্ব নূতনপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে।
সাংবাদিক আবু মুছা বলেন, সোহাগপুর নূতন পাড়া এ এস উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নিয়ে তদন্তের জন্য শিক্ষা বোর্ড থেকে প্রতিনিধি আসলে তথ্য সংগ্রহের জন্য যায়।
বোর্ড প্রতিনিধিদের তদন্ত শেষে বিদ্যালয়ে মাঠে অবস্থান করা অবস্থায় হঠাৎ দেখতে পায় উক্ত বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাজ্জাদুল হক রেজার উপর সন্ত্রাসী আবিরসহ বেশ কয়েকজন তার উপর হামলা চালিয়েছে। হামলার বিষয়টি আমার পেশাগত কাছে ব্যবহার করা মুঠো ফোন দিয়ে ছবি তুলতে নিলে আবিরসহ বেশ কয়েকজন রাগানিত্ব হয়ে আমার মুঠোফোন ও দৈনিক মানব জমিন পত্রিকার পরিচয় পত্র ছিনিয়ে নেয় এবং উপর্যুপরি আমার শরীরে বিভিন্ন জায়গায় এলোপাথারি কিলঘুষি লাথি মারে। পরে সহকর্মীরা আমাকে ওখান থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে ভর্তি করান।
এ বিষয়ে বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আনিছুর রহমান জানান, ‘মামলা  হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে।’