ঢাকা ০৫:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বেনাপোল দিয়ে দেশে ফিরল ৩ বাংলাদেশি নারী

বেনাপোল প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৭:৪৩:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪
  • / ৪৩৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভারতে জেল খেটে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরল ৩ বাংলাদেশী নারী। ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ শনিবার (২৫ মে) সন্ধ্যায় তাদের বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করে। এরা দীর্ঘ দেড় বছর ভারতে কারাবাস করেছেন বলে ভুক্তভোগীরা জানায়।

ফেরত আসারা হলেন-তামান্না আক্তার (২১), মাহমুদা আক্তার (২২) ও মৌসুমী দাস (২৪)। এরা দেশের ময়মনসিংহ, ঢাকা ও খুলনা জেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আযহারুল ইসলাম বলেন, এরা পাসপোর্ট ভিসা ছাড়াই সীমান্ত পথে ভারতে গিয়ে হায়দ্রাবাদ শহরের বিভিন্ন বাসা বাড়িতে অবৈধভাবে কাজ করার সময় সে দেশের পুলিশের কাছে আটক হন।

এরপর আদালতের মাধ্যমে তারা জেলখানায় যান। পরে একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। এরা সেখানে দেড় বছর থাকার পর ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে আজ দেশে ফিরেছে। ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে এদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

ফেরত আসাদের জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামে একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থা পরিবারের নিকট হস্তান্তর করার জন্য বেনাপোল পোর্ট থানা থেকে নিজ হেফাজতে নিয়েছেন।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

বেনাপোল দিয়ে দেশে ফিরল ৩ বাংলাদেশি নারী

আপডেট সময় : ০৭:৪৩:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

ভারতে জেল খেটে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরল ৩ বাংলাদেশী নারী। ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ শনিবার (২৫ মে) সন্ধ্যায় তাদের বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করে। এরা দীর্ঘ দেড় বছর ভারতে কারাবাস করেছেন বলে ভুক্তভোগীরা জানায়।

ফেরত আসারা হলেন-তামান্না আক্তার (২১), মাহমুদা আক্তার (২২) ও মৌসুমী দাস (২৪)। এরা দেশের ময়মনসিংহ, ঢাকা ও খুলনা জেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আযহারুল ইসলাম বলেন, এরা পাসপোর্ট ভিসা ছাড়াই সীমান্ত পথে ভারতে গিয়ে হায়দ্রাবাদ শহরের বিভিন্ন বাসা বাড়িতে অবৈধভাবে কাজ করার সময় সে দেশের পুলিশের কাছে আটক হন।

এরপর আদালতের মাধ্যমে তারা জেলখানায় যান। পরে একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। এরা সেখানে দেড় বছর থাকার পর ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে আজ দেশে ফিরেছে। ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে এদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

ফেরত আসাদের জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামে একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থা পরিবারের নিকট হস্তান্তর করার জন্য বেনাপোল পোর্ট থানা থেকে নিজ হেফাজতে নিয়েছেন।

 

বাখ//আর