ঢাকা ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিশ্ব মানচিত্র থেকে সার্বভৌম দেশকে মুছে ফেলতে পারবে না রাশিয়া

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৩৭:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ অক্টোবর ২০২২
  • / ৫০২ বার পড়া হয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভূখণ্ড দখলের মাধ্যমে সার্বভৌম কোনো রাষ্ট্রকে রাশিয়া মানচিত্র থেকে মুছে ফেলতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলকে নিজ ভূখণ্ডের সঙ্গে যুক্ত করার বিষয়ে রাশিয়ার প্রচেষ্টা নিয়ে জাতিসংঘে ভোটাভুটির পর এই মন্তব্য করেন তিনি।
বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি। এর আগে গতকাল বুধবার জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ ভোটাভুটির মাধ্যমে মস্কোর বিরুদ্ধে এই নিন্দা জানায়।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে রাশিয়ার বিরুদ্ধে এই নিন্দা প্রস্তাবে সমর্থন দেয় ১৪৩টি দেশ। তবে চীন ও ভারতসহ ৩৫টি দেশ ভোটদান থেকে বিরত ছিল। অন্যদিকে রাশিয়ার পাশাপাশি, বেলারুশ, উত্তর কোরিয়া, সিরিয়া এবং নিকারাগুয়া এই চারটি দেশ ভোট প্রত্যাখ্যান করেছে।

প্রতীকী হলেও ইউক্রেনে আক্রমণের পর এটিই ছিল রাশিয়ার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ সংখ্যক ভোট। গত সপ্তাহে ক্রেমলিনে একটি জমকালো অনুষ্ঠানে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পূর্ব ইউক্রেনীয় অঞ্চল লুহানস্ক, দোনেতস্ক, জাপোরিঝিয়া এবং খেরসনকে রাশিয়ার অংশ করার জন্য নথিতে স্বাক্ষর করেন।

এএফপি বলছে, বুধবার জাতিসংঘে ভোটাভুটির পরই এ বিষয়ে মুখ খোলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের কিছু অংশ রাশিয়ার দখলে নেওয়ার বিরুদ্ধে নিন্দা ভোট দিয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ মস্কোকে একটি ‘স্পষ্ট বার্তা’ পাঠিয়েছে বলে মন্তব্য করেন বাইডেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এই সংঘাতের বাঁক সবার কাছে স্পষ্ট এবং বিশ্ব (মস্কোর কাছে) একটি স্পষ্ট বার্তা পাঠিয়েছে। আর তা হলো- রাশিয়া মানচিত্র থেকে একটি সার্বভৌম রাষ্ট্রকে মুছে ফেলতে পারে না।’

এর একদিন আগে বাইডেন বলেন, ইউক্রেন দখলে নিতে রাশিয়ার সক্ষমতা নিয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ‘ভুল হিসাব’ কষেছেন। সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ভ্লাদিমির পুতিন সাধারণ একজন যুক্তিবাদী মানুষ যিনি ইউক্রেন দখলে নিতে নিজের সক্ষমতা নিয়ে খুবই খারাপভাবে ভুল হিসাব কষেছেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

বিবিসি বলছে, জাতিসংঘের এই প্রস্তাবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি রাশিয়ার সংযুক্তিকরণকে স্বীকৃতি না দিতে আহ্বান জানানো হয়েছে। একইসঙ্গে ইউক্রেনীয় ভূখণ্ড থেকে রুশ দখলদারিত্ব ‘”অবিলম্বে প্রত্যাহার’-এর দাবিও করা হয়েছে। এছাড়া এই প্রস্তাবে আলোচনার মাধ্যমে সংঘাত কমানোর প্রচেষ্টাকে স্বাগত জানানোর কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, যেসব দেশ এই প্রস্তাবকে সমর্থন করেছে তাদের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞ। টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘বিশ্বের বক্তব্য হচ্ছে – [রাশিয়ার] সংযুক্তির প্রচেষ্টা মূল্যহীন এবং স্বাধীন দেশগুলো কখনোই তা স্বীকৃতি দেবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

বিশ্ব মানচিত্র থেকে সার্বভৌম দেশকে মুছে ফেলতে পারবে না রাশিয়া

আপডেট সময় : ১০:৩৭:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ অক্টোবর ২০২২

ভূখণ্ড দখলের মাধ্যমে সার্বভৌম কোনো রাষ্ট্রকে রাশিয়া মানচিত্র থেকে মুছে ফেলতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলকে নিজ ভূখণ্ডের সঙ্গে যুক্ত করার বিষয়ে রাশিয়ার প্রচেষ্টা নিয়ে জাতিসংঘে ভোটাভুটির পর এই মন্তব্য করেন তিনি।
বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি। এর আগে গতকাল বুধবার জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ ভোটাভুটির মাধ্যমে মস্কোর বিরুদ্ধে এই নিন্দা জানায়।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে রাশিয়ার বিরুদ্ধে এই নিন্দা প্রস্তাবে সমর্থন দেয় ১৪৩টি দেশ। তবে চীন ও ভারতসহ ৩৫টি দেশ ভোটদান থেকে বিরত ছিল। অন্যদিকে রাশিয়ার পাশাপাশি, বেলারুশ, উত্তর কোরিয়া, সিরিয়া এবং নিকারাগুয়া এই চারটি দেশ ভোট প্রত্যাখ্যান করেছে।

প্রতীকী হলেও ইউক্রেনে আক্রমণের পর এটিই ছিল রাশিয়ার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ সংখ্যক ভোট। গত সপ্তাহে ক্রেমলিনে একটি জমকালো অনুষ্ঠানে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পূর্ব ইউক্রেনীয় অঞ্চল লুহানস্ক, দোনেতস্ক, জাপোরিঝিয়া এবং খেরসনকে রাশিয়ার অংশ করার জন্য নথিতে স্বাক্ষর করেন।

এএফপি বলছে, বুধবার জাতিসংঘে ভোটাভুটির পরই এ বিষয়ে মুখ খোলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের কিছু অংশ রাশিয়ার দখলে নেওয়ার বিরুদ্ধে নিন্দা ভোট দিয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ মস্কোকে একটি ‘স্পষ্ট বার্তা’ পাঠিয়েছে বলে মন্তব্য করেন বাইডেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এই সংঘাতের বাঁক সবার কাছে স্পষ্ট এবং বিশ্ব (মস্কোর কাছে) একটি স্পষ্ট বার্তা পাঠিয়েছে। আর তা হলো- রাশিয়া মানচিত্র থেকে একটি সার্বভৌম রাষ্ট্রকে মুছে ফেলতে পারে না।’

এর একদিন আগে বাইডেন বলেন, ইউক্রেন দখলে নিতে রাশিয়ার সক্ষমতা নিয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ‘ভুল হিসাব’ কষেছেন। সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ভ্লাদিমির পুতিন সাধারণ একজন যুক্তিবাদী মানুষ যিনি ইউক্রেন দখলে নিতে নিজের সক্ষমতা নিয়ে খুবই খারাপভাবে ভুল হিসাব কষেছেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

বিবিসি বলছে, জাতিসংঘের এই প্রস্তাবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি রাশিয়ার সংযুক্তিকরণকে স্বীকৃতি না দিতে আহ্বান জানানো হয়েছে। একইসঙ্গে ইউক্রেনীয় ভূখণ্ড থেকে রুশ দখলদারিত্ব ‘”অবিলম্বে প্রত্যাহার’-এর দাবিও করা হয়েছে। এছাড়া এই প্রস্তাবে আলোচনার মাধ্যমে সংঘাত কমানোর প্রচেষ্টাকে স্বাগত জানানোর কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, যেসব দেশ এই প্রস্তাবকে সমর্থন করেছে তাদের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞ। টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘বিশ্বের বক্তব্য হচ্ছে – [রাশিয়ার] সংযুক্তির প্রচেষ্টা মূল্যহীন এবং স্বাধীন দেশগুলো কখনোই তা স্বীকৃতি দেবে না।