সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৮:৫১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বকশীগঞ্জে ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার উত্তরবঙ্গে কোনো জঙ্গি নাই : র‍্যাব মহাপরিচালক পার্বত্য চট্টগ্রামের সীমান্ত সড়ক প্রকল্প পরিদর্শন করলেন সেনাপ্রধান মীরসরাইয়ে মসজিদের জন্য ২৮ শতক জমি দান করলেন শিক্ষক আবুল কালাম বেড়েই চলছে ইজিবাইক; প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার কবলে পথচারীরা চিলমারীতে ইট ভাটায় অভিযান : ২লাখ টাকা জরিমানা পত্নীতলায় উপজেলার বিভিন্ন দপ্তর পরিদর্শন করলেন ডিসি বিএনপি রিমোট কন্ট্রোল নেতৃত্বে চলছে : কাদের কলমাকান্দায় গ্রাম উন্নয়ন কমিটির কর্মশালা অনুষ্ঠিত সাঁথিয়ায় গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু : পরিবারের দাবি হত্যা খানসামায় অনুমোদনবিহীন সার তৈরি করায় জরিমানা কৈলাশ খেরকে বোতল ছুড়লেন দর্শকরা পিএসজিকে রুখে দিল রেইমস ঝিকরগাছায় মহিলাদের সদাইপাতির দোকান উদ্বোধন সত্যিকারের হিরো খুঁজে পেলেন শাকিব খান

বিশ্ব ইজতেমা: আখেরি মোনাজাত শেষে ফেরার পথে চরম ভোগান্তি

বিশ্ব ইজতেমা: আখেরি মোনাজাত শেষে ফেরার পথে চরম ভোগান্তি

কাজী মকবুল,গাজীপুর থেকে:
টঙ্গীর তুরাগ তীরে দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে এবারের বিশ্ব ইজতেমা। আখেরি মোনাজাতের পরপরই নিজ নিজ গন্তব্যে ফেরার জন্য মানুষের ঢল নামলে পরিবহন সংকটে ভোগান্তিতে পড়েন মুসলমানরা।

রোববার ভোর থেকেই মোনাজাতে অংশ নেওয়ার জন্য বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার মানুষ ইজতেমাস্থলে আসতে শুরু করেন। তখনও গাড়ি না পেয়ে অনেকে পায়ে হেঁটেই তুরাগতীরে পৌঁছান।

এত মানুষের ভীড়ে জনসমুদ্রে পরিণত হয় পুরো টঙ্গী এলাকা। ময়দানে স্থান না পাওয়ায় কামারপাড়া সড়ক, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে পলিথিন, খবরের কাগজ বিছিয়ে দুপুরে আখেরি মোনাজাতে অংশ নেন তারা। অনেকেই আবার মোবাইল ফোনে দূর-দূরান্ত থেকেও মোনাজাতে শরিক হন।

বিশ্ব ইজতেমা: আখেরি মোনাজাত শেষে ফেরার পথে চরম ভোগান্তি
বিশ্ব ইজতেমার মিডিয়া সমন্বয়ক মোহাম্মদ আবু সায়েম জানান, বেলা ১২টা ১৫ মিনিটে আখেরি মোনাজাত শুরু হয়ে তা ১২টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত স্থায়ী থাকে।

এর পরপরই মোনাজাতের উদ্দেশ্য আসা মুসলমানরা ইজতেমা এলাকা ছাড়ছেন। তবে খিত্তায় অবস্থান নেওয়া তাবলীগের অনুসারীরা পর্যায়ক্রমে ময়দান ছাড়বেন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ সোমবার পর্যন্ত ময়দানে অবস্থান করবেন।

আখেরি মোনাজাতে দেশের কল্যাণ, মুসলিম উম্মার সুদৃঢ় ঐক্য, আখেরাত ও দুনিয়ার শান্তি কামনা করা হয়। এসময় দুহাত তুলে আল্লাহ’র দরবারে ফরিয়াদ জানায় লাখ লাখ মানুষ।

মোনাজাতের পরপরই নিজ গন্তব্যে ফেরার জন্য রওয়ানা হন এসব মানুষ। ফলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক, টঙ্গী-পুবাইল, টঙ্গী-বনমালা আঞ্চলিক সড়ক, টঙ্গী-আব্দুল্লাহ্পুর সড়ক ও কামারপাড়া-আশুলিয়া সড়কে জনস্রোতের সৃষ্টি হয়।

কিন্তু ফেরার পথে দুই-একটি পিক আপ ও মোটরসাইকেল ছাড়া অন্য কোনো গাড়ি না পেয়ে আবারও পায়ে হেঁটেই বাড়ির দিকে রওনা হন তারা। ফলে তাদের পোহাতে হচ্ছে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ-দুর্গতি আর ভোগান্তী।

বা/খ: এসআর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *