ঢাকা ১০:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিশ্বকাপ শেষের আগেই ভাঙ্গা হচ্ছে নাসাউ স্টেডিয়াম

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:৪০:৩৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪
  • / ৪১৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ইতি ঘটলো ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাচ দিয়ে। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এটিই ছিল এই স্টেডিয়ামের শেষ ম্যাচ। অস্থায়ী এই স্টেডিয়ামের কাজ শুরু হয় চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে। বিশ্বকাপ শুরুর আগেই পুরোপুরি প্রস্তুত হয়ে যায় স্টেডিয়ামটি।

এর আগে এটি ছিলো একটি র্পাক। এই ভেন্যুতে আর কোন ম্যাচ না থাকায় এখন পুরোপুরি ভেঙে ফেলা হবে স্টেডিয়ামটি। এজন্য তারা সময় নিবে মাত্র ছয় সপ্তাহ। বুধবার বিকেল থেকেই শুরু হয়েছে এই ভাঙা কার্যক্রম।

পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে আলোচনায় ছিল এই নাসাউ স্টেডিয়াম। মাঠের ধীরগতির পিচ, ধীরগতির আউটফিল্ড, অন্যান্য অবকাঠামো সবকিছুই মনপুত হয়নি ক্রিকেট খেলতে আসা দলগুলোর।

আইসিসি তাদের আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতিতে এই মাঠ নিয়ে জানায়,‘তারা যদি এই মাঠকে রক্ষণাবেক্ষণ করতে পারে তাহলে পিচগুলো এখানে থাকবে। আর নাহলে এগুলোকে ফ্লোরিডাতে নিয়ে যাওয়া হবে।’

বিশ্বকাপ উপলক্ষে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া থেকে ড্রপ ইন পিচ নিয়ে আসা হয় নাসাউ ক্রিকেট স্টেডিয়ামের জন্য। এখানে মেজর লিগ ক্রিকেট আয়োজনের সম্ভাবনা অনেকে দেখছিল কিন্তু এমএলসি কর্তৃপক্ষ এতে সায় দেয়নি।

নিউইয়র্কে মুম্বাই ইন্ডিয়ানের মালিকের দল মুম্বাই ইন্ডয়ান্স নিউইয়র্ক রয়েছে। ভবিষ্যতে তাদের পরিকল্পনা আছে এখানে নতুন স্টেডিয়াম নিমার্ণ করার।

নিউজটি শেয়ার করুন

বিশ্বকাপ শেষের আগেই ভাঙ্গা হচ্ছে নাসাউ স্টেডিয়াম

আপডেট সময় : ০৮:৪০:৩৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ইতি ঘটলো ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাচ দিয়ে। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এটিই ছিল এই স্টেডিয়ামের শেষ ম্যাচ। অস্থায়ী এই স্টেডিয়ামের কাজ শুরু হয় চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে। বিশ্বকাপ শুরুর আগেই পুরোপুরি প্রস্তুত হয়ে যায় স্টেডিয়ামটি।

এর আগে এটি ছিলো একটি র্পাক। এই ভেন্যুতে আর কোন ম্যাচ না থাকায় এখন পুরোপুরি ভেঙে ফেলা হবে স্টেডিয়ামটি। এজন্য তারা সময় নিবে মাত্র ছয় সপ্তাহ। বুধবার বিকেল থেকেই শুরু হয়েছে এই ভাঙা কার্যক্রম।

পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে আলোচনায় ছিল এই নাসাউ স্টেডিয়াম। মাঠের ধীরগতির পিচ, ধীরগতির আউটফিল্ড, অন্যান্য অবকাঠামো সবকিছুই মনপুত হয়নি ক্রিকেট খেলতে আসা দলগুলোর।

আইসিসি তাদের আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতিতে এই মাঠ নিয়ে জানায়,‘তারা যদি এই মাঠকে রক্ষণাবেক্ষণ করতে পারে তাহলে পিচগুলো এখানে থাকবে। আর নাহলে এগুলোকে ফ্লোরিডাতে নিয়ে যাওয়া হবে।’

বিশ্বকাপ উপলক্ষে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া থেকে ড্রপ ইন পিচ নিয়ে আসা হয় নাসাউ ক্রিকেট স্টেডিয়ামের জন্য। এখানে মেজর লিগ ক্রিকেট আয়োজনের সম্ভাবনা অনেকে দেখছিল কিন্তু এমএলসি কর্তৃপক্ষ এতে সায় দেয়নি।

নিউইয়র্কে মুম্বাই ইন্ডিয়ানের মালিকের দল মুম্বাই ইন্ডয়ান্স নিউইয়র্ক রয়েছে। ভবিষ্যতে তাদের পরিকল্পনা আছে এখানে নতুন স্টেডিয়াম নিমার্ণ করার।