ঢাকা ১০:৩০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় উইন্ডিজ কোচের পদত্যাগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৩১:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৫২ বার পড়া হয়েছে

ওয়েস্ট ইন্ডিজে হেড কোচ ফিল সিমন্স

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্পোর্টস ডেস্ক : 
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম পর্বেই তাদের এই ব্যর্থতায় বিস্মিত অনেকে। অপ্রত্যাশিত পারফরম্যান্সের পর দলটির হেড কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন ফিল সিমন্স।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুইবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। ২০১৬ সালে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পেছনে সিমন্সেরই অবদান। ২০১৯ সালে দ্বিতীয় দফার দায়িত্বের আগে ১৮ মাস দায়িত্ব পালন করেছেন। আর সেই সময় মহাতারকায় ভরপুর ক্যারিবীয় দলটিকে এক সুতোয় বেঁধে রেখেছিলেন তিনি। তখন ব্যাটিং অ্যাপ্রোচে ছয় মারার মানসিকতা তৈরির পেছনে তারই প্রেরণা কাজ করেছে বেশি। সেই দলটার ব্যর্থতায় সিমন্স ভীষণ ব্যথিত, আমি স্বীকার করছি শুধু দল হিসেবে বিষয়টা আমাদের কষ্ট দিচ্ছে না, জাতি হিসেবেও। বিষয়টা খুবই হতাশাজনক এবং হৃদয়বিদারক।

সবার কাছে ক্ষমা চেয়ে সিমন্স বলেন, আমরা সেরাটা দিতে পারিনি। এখন একটা টুর্নামেন্ট দেখতে হবে আমাদের ছাড়া। কেন এমন হলো এর ব্যাখ্যা আমার কাছে নেই। সেজন্য আমি ভক্ত, অনুসারীদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি।

এই সময়ে টেস্ট দলের ফলাফল ধারাবাহিকভাবে উন্নতি করলেও টি-টোয়েন্টির গল্পটা ছিল ভিন্ন। বিগত দুই বিশ্বকাপে তারা আগে বিদায় নিয়েছে। ২০২১ সালে ৫ ম্যাচে হেরেছে ৪টি।

বিদায় বলে দিলেও সিমন্স অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আসন্ন দুই টেস্টের সিরিজে শেষবারের মতো দায়িত্ব পালন করবেন। সিরিজ শুরু হবে ৩০ নভেম্বর পার্থে। তিনি আরো বলেন, বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরিচালিত ময়নাতদন্তেও অংশ নেবেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় উইন্ডিজ কোচের পদত্যাগ

আপডেট সময় : ০৩:৩১:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর ২০২২

স্পোর্টস ডেস্ক : 
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম পর্বেই তাদের এই ব্যর্থতায় বিস্মিত অনেকে। অপ্রত্যাশিত পারফরম্যান্সের পর দলটির হেড কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন ফিল সিমন্স।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুইবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। ২০১৬ সালে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পেছনে সিমন্সেরই অবদান। ২০১৯ সালে দ্বিতীয় দফার দায়িত্বের আগে ১৮ মাস দায়িত্ব পালন করেছেন। আর সেই সময় মহাতারকায় ভরপুর ক্যারিবীয় দলটিকে এক সুতোয় বেঁধে রেখেছিলেন তিনি। তখন ব্যাটিং অ্যাপ্রোচে ছয় মারার মানসিকতা তৈরির পেছনে তারই প্রেরণা কাজ করেছে বেশি। সেই দলটার ব্যর্থতায় সিমন্স ভীষণ ব্যথিত, আমি স্বীকার করছি শুধু দল হিসেবে বিষয়টা আমাদের কষ্ট দিচ্ছে না, জাতি হিসেবেও। বিষয়টা খুবই হতাশাজনক এবং হৃদয়বিদারক।

সবার কাছে ক্ষমা চেয়ে সিমন্স বলেন, আমরা সেরাটা দিতে পারিনি। এখন একটা টুর্নামেন্ট দেখতে হবে আমাদের ছাড়া। কেন এমন হলো এর ব্যাখ্যা আমার কাছে নেই। সেজন্য আমি ভক্ত, অনুসারীদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি।

এই সময়ে টেস্ট দলের ফলাফল ধারাবাহিকভাবে উন্নতি করলেও টি-টোয়েন্টির গল্পটা ছিল ভিন্ন। বিগত দুই বিশ্বকাপে তারা আগে বিদায় নিয়েছে। ২০২১ সালে ৫ ম্যাচে হেরেছে ৪টি।

বিদায় বলে দিলেও সিমন্স অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আসন্ন দুই টেস্টের সিরিজে শেষবারের মতো দায়িত্ব পালন করবেন। সিরিজ শুরু হবে ৩০ নভেম্বর পার্থে। তিনি আরো বলেন, বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরিচালিত ময়নাতদন্তেও অংশ নেবেন।