ঢাকা ১১:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ : অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী 

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০১:৫৯:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৯০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
পটুয়াখালীর গলাচিপায় বিয়ের  প্রলোভনে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই কিশোরী বর্তমানে ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তবে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে ধর্ষকের পরিবার ও স্থানীয় চেয়ারম্যান। কিশোরীর অন্তঃসত্ত্বার ঘটনা জানাজানির পর  জড়িত নিজাম পল্লান পলাতক রয়েছেন। ভুক্তভোগী ও মামলা সূত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।
ভুক্তভোগী ও মামলা সূত্রে জানা গেছে,  গলাচিপা উপজেলার চরকাজল  ইউনিয়নের বড় চরকাজল গ্রামের মাহাবুল পল্লানের ছেলে নিজাম পল্লান(২৫) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার সঙ্গে শারীরীক সম্পর্ক করে।
একপর্যায়ে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।  কিশোরীর  পরিবার বিষয়টি জানতে পারলে পরে তাকে গত ২০ ফ্রেব্রুয়ারি গলাচিপায়  মেডিকেল চেকআপ করালে ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার বিষয়টি প্রকাশ পায়।
এ ঘটনায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন ভিকটিমের বাবা-মা। তারা এ ঘটনার বিচার দাবি করে বিষয়টি স্থানীয় লোকজনসহ অভিযুক্তের পরিবারকে জানিয়েছেন।
এদিকে কিশোরীর অন্তঃসত্ত্বার ঘটনা জানাজানির পর ঘটনার মূল হোতা নিজাম পল্লান পলাতক রয়েছেন।
অভিযোগ উঠেছে, নিজামের  পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় বিষয়টি স্থানীয়ভাবে ধামচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছেন। এছাড়া ভিকটিমের বাবাকে নানা ধরনের হুমকি দিচ্ছেন।
ওই কিশোরীর বাবা  বলেন, ধর্ষক নিজাম পরিবারের লোকজন আমাকে হুমকি দিচ্ছে। ঘটনার বিচার চেয়ে থানায় গেলে আমাকে প্রাণনাশসহ এলাকাছাড়া করার হুমকি দিয়েছেন তারা।
এ বিষয়ে ধর্ষক নিজামের বাবা মাহাবুল পল্লান বলেন, ‘ঘটনাটি তিনি লোকমুখে শুনেছেন।এটা নিয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি নিয়ে বসা হইছে, তবে কোন সুরাহা মিলেনি।
কিশোরীর পরিবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দিয়ে কোন সমাধান না পেয়ে পটুয়াখালী বিজ্ঞ নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে কিশোরীর মা মোসাঃরেনু বেগম(৪২) বাদী হয়ে ২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। আসামিরা হলেন নিজাম পল্লান(২৫), পিতাঃ মাহাবুল পল্লান ও ওয়াসিম মোল্লা(২৩), পিতাঃ সবুজ মোল্লা।

নিউজটি শেয়ার করুন

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ : অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী 

আপডেট সময় : ০১:৫৯:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
পটুয়াখালীর গলাচিপায় বিয়ের  প্রলোভনে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই কিশোরী বর্তমানে ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তবে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে ধর্ষকের পরিবার ও স্থানীয় চেয়ারম্যান। কিশোরীর অন্তঃসত্ত্বার ঘটনা জানাজানির পর  জড়িত নিজাম পল্লান পলাতক রয়েছেন। ভুক্তভোগী ও মামলা সূত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।
ভুক্তভোগী ও মামলা সূত্রে জানা গেছে,  গলাচিপা উপজেলার চরকাজল  ইউনিয়নের বড় চরকাজল গ্রামের মাহাবুল পল্লানের ছেলে নিজাম পল্লান(২৫) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার সঙ্গে শারীরীক সম্পর্ক করে।
একপর্যায়ে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।  কিশোরীর  পরিবার বিষয়টি জানতে পারলে পরে তাকে গত ২০ ফ্রেব্রুয়ারি গলাচিপায়  মেডিকেল চেকআপ করালে ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার বিষয়টি প্রকাশ পায়।
এ ঘটনায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন ভিকটিমের বাবা-মা। তারা এ ঘটনার বিচার দাবি করে বিষয়টি স্থানীয় লোকজনসহ অভিযুক্তের পরিবারকে জানিয়েছেন।
এদিকে কিশোরীর অন্তঃসত্ত্বার ঘটনা জানাজানির পর ঘটনার মূল হোতা নিজাম পল্লান পলাতক রয়েছেন।
অভিযোগ উঠেছে, নিজামের  পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় বিষয়টি স্থানীয়ভাবে ধামচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছেন। এছাড়া ভিকটিমের বাবাকে নানা ধরনের হুমকি দিচ্ছেন।
ওই কিশোরীর বাবা  বলেন, ধর্ষক নিজাম পরিবারের লোকজন আমাকে হুমকি দিচ্ছে। ঘটনার বিচার চেয়ে থানায় গেলে আমাকে প্রাণনাশসহ এলাকাছাড়া করার হুমকি দিয়েছেন তারা।
এ বিষয়ে ধর্ষক নিজামের বাবা মাহাবুল পল্লান বলেন, ‘ঘটনাটি তিনি লোকমুখে শুনেছেন।এটা নিয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি নিয়ে বসা হইছে, তবে কোন সুরাহা মিলেনি।
কিশোরীর পরিবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দিয়ে কোন সমাধান না পেয়ে পটুয়াখালী বিজ্ঞ নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে কিশোরীর মা মোসাঃরেনু বেগম(৪২) বাদী হয়ে ২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। আসামিরা হলেন নিজাম পল্লান(২৫), পিতাঃ মাহাবুল পল্লান ও ওয়াসিম মোল্লা(২৩), পিতাঃ সবুজ মোল্লা।