ঢাকা ১১:৫২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিপিএলের টুর্নামেন্ট সেরার দৌড়ে এগিয়ে যারা

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৭:২৪:৪৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪
  • / ৪১৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আর মাত্র এক ম্যাচ পরই পর্দা নামছে বিপিএলের দশম আসরের। এবারের আসরে ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছে দেশি ক্রিকেটাররা। ব্যাটিংয়ে একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার করেছে তামিম-হৃদয়রা। বোলিংয়ের সেরা পাঁচে শুধু একজন বিদেশি ক্রিকেটার।টুর্নামেন্ট সেরার প্রতিদ্বন্দ্বীতায় সাকিব বেশ এগিয়ে থাকলেও পিছিয়ে পড়েছে প্লে-অফে বাজে পারফরম্যান্সের পর। বিপিএলের টুর্নামেন্ট সেরার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছেন তামিম, হৃদয়, লিটন, মুশফিক। ফাইনালের পারফরম্যান্স এগিয়ে দেবে যে কাউকে।

সাকিব-তামিম দ্বৈরথ, সমীকরণের মারপ্যাচ। সব হিসাব-নিকাশ শেষে ফাইনালের অপেক্ষায় ক্রিকেটপ্রেমীরা। ফাইনালে ব্যক্তিগত সাফল্যেও আলাদা নজর থাকবে সকলের। টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কারটা যেন সাকিব আল হাসানের নিজস্ব সম্পত্তি। আগের নয় আসরে ৪ বার তার শ্রেষ্ঠত্ব। এবারও ছিলেন সে পথেই। ১৭ উইকেট আর দুইশোর বেশি রান নিয়ে টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন। কিন্তু শেষটা ভালো হয়নি দেশসেরা এই অলরাউন্ডারের।

ম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্টের দৌড়ে এগিয়ে ব্যাটাররা। সেরা ৫ জনের চারজনই ফাইনালিস্ট দুই দলের। ব্যতিক্রম চট্টগ্রামের তানজিদ হাসান তামিম। সবার উপরে বরিশাল অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ১৪ ইনিংসে ১২৫ স্ট্রাইক রেটে করেছেন ৪৫৩ রান। ফিফটি হাঁকিয়েছেন তিনটি।

তামিমের চেয়ে ৬ রান কম হলেও সব হিসাবেই এগিয়ে কুমিল্লার তাওহীদ হৃদয়। প্রায় ১৫০ স্ট্রাইক রেট, দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি, ম্যাচ জেতানো দুই ফিফটি। দেশিদের মধ্যে বিপিএলে এক আসরে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড। টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার সবকিছুই রয়েছে হৃদয় এর মধ্যে।

সহজ হিসাবটা বদলে দিতে পারে ফাইনালের পারফরম্যান্স। হৃদয়-তামিম ছাড়াও প্রতিদ্বন্দ্বীতা জমিয়ে দিতে পারেন দুই উইকেটকিপার ব্যাটার লিটন দাস আর মুশফিকুর রহিম। কুমিল্লা অধিনায়ক লিটন দাসের রান ৩৭৫। সঙ্গে ২১ ডিসমিসালে এগিয়ে লিটন। ৮ রান কম মুশফিকের। লিটনের মত তিন হাফ সেঞ্চুরি তারও।

নিউজটি শেয়ার করুন

বিপিএলের টুর্নামেন্ট সেরার দৌড়ে এগিয়ে যারা

আপডেট সময় : ০৭:২৪:৪৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪

আর মাত্র এক ম্যাচ পরই পর্দা নামছে বিপিএলের দশম আসরের। এবারের আসরে ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছে দেশি ক্রিকেটাররা। ব্যাটিংয়ে একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার করেছে তামিম-হৃদয়রা। বোলিংয়ের সেরা পাঁচে শুধু একজন বিদেশি ক্রিকেটার।টুর্নামেন্ট সেরার প্রতিদ্বন্দ্বীতায় সাকিব বেশ এগিয়ে থাকলেও পিছিয়ে পড়েছে প্লে-অফে বাজে পারফরম্যান্সের পর। বিপিএলের টুর্নামেন্ট সেরার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছেন তামিম, হৃদয়, লিটন, মুশফিক। ফাইনালের পারফরম্যান্স এগিয়ে দেবে যে কাউকে।

সাকিব-তামিম দ্বৈরথ, সমীকরণের মারপ্যাচ। সব হিসাব-নিকাশ শেষে ফাইনালের অপেক্ষায় ক্রিকেটপ্রেমীরা। ফাইনালে ব্যক্তিগত সাফল্যেও আলাদা নজর থাকবে সকলের। টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কারটা যেন সাকিব আল হাসানের নিজস্ব সম্পত্তি। আগের নয় আসরে ৪ বার তার শ্রেষ্ঠত্ব। এবারও ছিলেন সে পথেই। ১৭ উইকেট আর দুইশোর বেশি রান নিয়ে টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন। কিন্তু শেষটা ভালো হয়নি দেশসেরা এই অলরাউন্ডারের।

ম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্টের দৌড়ে এগিয়ে ব্যাটাররা। সেরা ৫ জনের চারজনই ফাইনালিস্ট দুই দলের। ব্যতিক্রম চট্টগ্রামের তানজিদ হাসান তামিম। সবার উপরে বরিশাল অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ১৪ ইনিংসে ১২৫ স্ট্রাইক রেটে করেছেন ৪৫৩ রান। ফিফটি হাঁকিয়েছেন তিনটি।

তামিমের চেয়ে ৬ রান কম হলেও সব হিসাবেই এগিয়ে কুমিল্লার তাওহীদ হৃদয়। প্রায় ১৫০ স্ট্রাইক রেট, দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি, ম্যাচ জেতানো দুই ফিফটি। দেশিদের মধ্যে বিপিএলে এক আসরে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড। টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার সবকিছুই রয়েছে হৃদয় এর মধ্যে।

সহজ হিসাবটা বদলে দিতে পারে ফাইনালের পারফরম্যান্স। হৃদয়-তামিম ছাড়াও প্রতিদ্বন্দ্বীতা জমিয়ে দিতে পারেন দুই উইকেটকিপার ব্যাটার লিটন দাস আর মুশফিকুর রহিম। কুমিল্লা অধিনায়ক লিটন দাসের রান ৩৭৫। সঙ্গে ২১ ডিসমিসালে এগিয়ে লিটন। ৮ রান কম মুশফিকের। লিটনের মত তিন হাফ সেঞ্চুরি তারও।