ঢাকা ১০:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিএনপি-জামায়াতের ষষ্ঠ দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১১:৩০:২৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০২৩
  • / ৫০৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

এক দফা দাবিতে বিএনপি-জামায়াত ও সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর ডাকা ষষ্ঠ দফার টানা ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শুরু হয়েছে। বুধবার (২২ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া এ অবরোধ চলবে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত।

অন্যান্য স্বাভাবিক দিনের মতো সকাল থেকেই সড়কে গাড়ির চাপ রয়েছে। একইসঙ্গে অবরোধ কোনো প্রভাব ফেলতে পারেনি রাজধানীবাসীর জীবনযাত্রায়। সকালে স্বাভাবিকভাবেই শুরু হয়েছে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সড়কে বেড়েছে মানুষের উপস্থিতিও।

বুধবার (২২ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর নিউমার্কেট, নীলক্ষেত, আজিমপুর, এলিফ্যান্ট রোড, সায়েন্স ল্যাবরেটরি ও ধানমন্ডি এলাকা ঘুরে এমন চিত্রই দেখা যায়। সরেজমিন দেখা যায়, এসব এলাকার সড়কে সকাল থেকেই বাসের সংখ্যা বেশি।

ষষ্ঠ দফায়, রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথের এই সর্বাত্মক অবরোধ শুরুর আগেই মঙ্গলবার রাতে রাজধানীসহ দেশের কয়েকটি জায়গায় বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে একটি যাত্রীবাহী বাসে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাশিদ বিন খালিদ জানান, রাতে যাত্রাবাড়ী মোড়ে যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। পরে পোস্তগোলা ফায়ার স্টেশনের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন।

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে গভীর রাতে পাটবোঝাই চলন্ত ট্রাকে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে ট্রাকে থাকা পাটের ৭০/৮০ শতাংশের বেশি পুড়ে গেছে। মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) রাত আড়াইটার দিকে বালিয়াকান্দি-সোনাপুর আঞ্চলিক সড়কের ঘোড়ামারা ব্রিজের ওপর এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে আগুন নেভায়।

ওদিকে রাত ১১টার পর নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের বাড়ইপাড়া এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কালিয়াকৈর ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান মোঃ সুজন জানান, রাত ১১ টা ১৫ মিনিটে আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। বাসে আগুন দেয়ার খবর পেয়ে আমাদের ২টি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। যাত্রীবাহী বাসটির নাম সাভার পরিবহন।

অবরোধের সমর্থনে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে সাভার, পটুয়াখালী, ফরিদপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় মশাল মিছিল করেছে বিএনপি ও দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যার পরপরই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক, ফেনী-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়ক এবং শহরের বড় মসজিদ এলাকায় স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা পৃথক পৃথক মিছিল বের করেন। এ সময় ছাত্রদলের একটি মিছিল থেকে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গুলি ছুড়লে ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি ছাত্রদলের।

এছাড়াও সাভার, পটুয়াখালী, ফরিদপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় অবরোধের সমর্থনে মশাল মিছিল করা হয়। ফরিদপুরের মধুখালীতে অবরোধ কর্মসূচির সমর্থনে আয়োজিত মশাল মিছিল থেকে বিএনপির আট নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

ফরিদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক সৈয়দ মোদাররেছ আলী বলেন, পুলিশ মিছিল থেকে মধুখালী উপজেলা বিএনপির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক নূরুন্নবী মিয়া, বিএনপি কর্মী কাইউম মিয়া, ইয়াকুব হোসেন, মো. আকিম, মিকাইল ও সোহানসহ বিএনপির আটজন নেতাকর্মীকে আটক করেছে।

গত ২৮ অক্টোবর মহাসমাবেশে হামলা, হত্যা, নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ এবং সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে ২৯ অক্টোবর হরতাল এবং ৩১ অক্টোবর, ১ ও ২ নভেম্বর মোট তিন দিনের অবরোধ কর্মসূচি পালন করে বিএনপি-জামায়াত ও তাদের শরিক অন্যান্য দলগুলো। এরপর ৫ ও ৬ নভেম্বর দ্বিতীয় দফায় এবং ৮ ও ৯ নভেম্বর তৃতীয় দফায় অবরোধ কর্মসূচি পালন করেন তারা। ১১ ও ১২ নভেম্বর চতুর্থ দফা, ১৫ ও ১৭ নভেম্বর পঞ্চম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শেষে এবার ৬ষ্ঠ দফার অবরোধ শুরু হলো।

নিউজটি শেয়ার করুন

বিএনপি-জামায়াতের ষষ্ঠ দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শুরু

আপডেট সময় : ১১:৩০:২৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০২৩

এক দফা দাবিতে বিএনপি-জামায়াত ও সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর ডাকা ষষ্ঠ দফার টানা ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শুরু হয়েছে। বুধবার (২২ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া এ অবরোধ চলবে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত।

অন্যান্য স্বাভাবিক দিনের মতো সকাল থেকেই সড়কে গাড়ির চাপ রয়েছে। একইসঙ্গে অবরোধ কোনো প্রভাব ফেলতে পারেনি রাজধানীবাসীর জীবনযাত্রায়। সকালে স্বাভাবিকভাবেই শুরু হয়েছে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সড়কে বেড়েছে মানুষের উপস্থিতিও।

বুধবার (২২ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর নিউমার্কেট, নীলক্ষেত, আজিমপুর, এলিফ্যান্ট রোড, সায়েন্স ল্যাবরেটরি ও ধানমন্ডি এলাকা ঘুরে এমন চিত্রই দেখা যায়। সরেজমিন দেখা যায়, এসব এলাকার সড়কে সকাল থেকেই বাসের সংখ্যা বেশি।

ষষ্ঠ দফায়, রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথের এই সর্বাত্মক অবরোধ শুরুর আগেই মঙ্গলবার রাতে রাজধানীসহ দেশের কয়েকটি জায়গায় বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে একটি যাত্রীবাহী বাসে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাশিদ বিন খালিদ জানান, রাতে যাত্রাবাড়ী মোড়ে যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। পরে পোস্তগোলা ফায়ার স্টেশনের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন।

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে গভীর রাতে পাটবোঝাই চলন্ত ট্রাকে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে ট্রাকে থাকা পাটের ৭০/৮০ শতাংশের বেশি পুড়ে গেছে। মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) রাত আড়াইটার দিকে বালিয়াকান্দি-সোনাপুর আঞ্চলিক সড়কের ঘোড়ামারা ব্রিজের ওপর এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে আগুন নেভায়।

ওদিকে রাত ১১টার পর নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের বাড়ইপাড়া এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কালিয়াকৈর ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান মোঃ সুজন জানান, রাত ১১ টা ১৫ মিনিটে আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। বাসে আগুন দেয়ার খবর পেয়ে আমাদের ২টি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। যাত্রীবাহী বাসটির নাম সাভার পরিবহন।

অবরোধের সমর্থনে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে সাভার, পটুয়াখালী, ফরিদপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় মশাল মিছিল করেছে বিএনপি ও দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যার পরপরই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক, ফেনী-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়ক এবং শহরের বড় মসজিদ এলাকায় স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা পৃথক পৃথক মিছিল বের করেন। এ সময় ছাত্রদলের একটি মিছিল থেকে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গুলি ছুড়লে ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি ছাত্রদলের।

এছাড়াও সাভার, পটুয়াখালী, ফরিদপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় অবরোধের সমর্থনে মশাল মিছিল করা হয়। ফরিদপুরের মধুখালীতে অবরোধ কর্মসূচির সমর্থনে আয়োজিত মশাল মিছিল থেকে বিএনপির আট নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

ফরিদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক সৈয়দ মোদাররেছ আলী বলেন, পুলিশ মিছিল থেকে মধুখালী উপজেলা বিএনপির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক নূরুন্নবী মিয়া, বিএনপি কর্মী কাইউম মিয়া, ইয়াকুব হোসেন, মো. আকিম, মিকাইল ও সোহানসহ বিএনপির আটজন নেতাকর্মীকে আটক করেছে।

গত ২৮ অক্টোবর মহাসমাবেশে হামলা, হত্যা, নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ এবং সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে ২৯ অক্টোবর হরতাল এবং ৩১ অক্টোবর, ১ ও ২ নভেম্বর মোট তিন দিনের অবরোধ কর্মসূচি পালন করে বিএনপি-জামায়াত ও তাদের শরিক অন্যান্য দলগুলো। এরপর ৫ ও ৬ নভেম্বর দ্বিতীয় দফায় এবং ৮ ও ৯ নভেম্বর তৃতীয় দফায় অবরোধ কর্মসূচি পালন করেন তারা। ১১ ও ১২ নভেম্বর চতুর্থ দফা, ১৫ ও ১৭ নভেম্বর পঞ্চম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ শেষে এবার ৬ষ্ঠ দফার অবরোধ শুরু হলো।