ঢাকা ০৫:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বিএনপিকে ৩৬ দিনের আল্টিমেটাম দিলো আওয়ামী লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৮:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৫৫০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বেগম জিয়ার চিকিৎসার জন্য জন্য রবিবার সরকারকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এবার উল্টো বিএনপিকে ৩৬ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ৩৬ দিনের মধ্যে বিএনপিকে অপরাজনীতি, নাশকতা, গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়তে এই হুঁশিয়ারী দেন তিনি।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে এ আল্টিমেটাম দেন ওবায়দুল কাদের।

মার্কিন ভিসা নীতির তীব্র সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কারও ভিসা নীতির তোয়াক্কা করিনা। কারও ভিসা নিষেধাজ্ঞার তোয়াক্কা করতে এ দেশ স্বাধীন করা হয়নি। যারা ভিসা নিষেধাজ্ঞার কথা বলে তাদের দেশেই গণতন্ত্র, মানবাধিকার ভুলুন্ঠিত হচ্ছে। এদেশে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেবে এ দেশের মানুষ, অন্য কেউ নয়। কারও খবরদারিতে বাংলাদেশের গণতন্ত্র, নির্বাচন চলবে না।’

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গত শুক্রবার থেকে একাধিক বাংলাদেশির ওপর নতুন ভিসা নীতি প্রয়োগ শুরু করে আমেরিকা। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, মার্কিন ভিসা নিষেধাজ্ঞার আওতায় যারা পড়েছেন, তাঁদের মধ্যে আছেন সরকার ও বিরোধী দলীয় রাজনীতিক এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য। বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচন বাধাগ্রস্ত করার দায়ে এঁদের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা থাকবে।

অভিযুক্ত ব্যক্তি এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা ভিসা পাবেন না বলে বিবৃতিতে জানানো হয়। এতে বলা হয়, এঁদের কেউ আমেরিকা প্রবেশ করতে পারবেন না। এমন আরও কাউকে পাওয়া গেলে তাঁদের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হবে। ভিসা নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হতে পারে বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সরকারি কর্মকর্তা, বিচার বিভাগের কর্মকর্তা ও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের ওপর।

সমাবেশে বিএনপি নেতাদের ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে অপরাজনীতি, নাশকতা, গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ করার আল্টিমেটাম দেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘যদি এর ভেতরে বিএনপি সঠিক রাজনীতিতে ফিরে না আসে, তবে তাদের কালো হাত দেশবাসীকে নিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে। জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ফাইনাল খেলা হবে। অস্ত্র নিয়ে আসলে সে হাত গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।’

বিএনপির সমালোচনা করে কাদের বলেন, ‘৩৬ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেয় খালেদা জিয়ার মুক্তির, অথচ ৩৬ মিনিটের একটা আন্দোলনও তো করতে পারেনি বিএনপি। লজ্জা লাগে না ফখরুলের? বিএনপি নেতাদের মাজা ভেঙে গেছে। এখন যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নীতির ওপর ভর করেছে। আমরা এদেশের মানুষের শক্তিতে বিশ্বাস করি, কারও ভিসা নীতিতে নয়।’

নির্বাচন সংবিধান মেনেই হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শেখ হাসিনাকে ছাড়া দেশের মানুষ নির্বাচন মেনে নেবে না। শেখ হাসিনা ছাড়া কাউকে দেশের মানুষ বিশ্বাস করে না। হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। সাময়িক কষ্ট কেটে যাবে। সুদিন আবার আসবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি ভিসা নীতির ওপর ভর করেছে, আওয়ামী লীগ ভর করেছে দেশের মানুষের ওপর। দেশবাসীকে নিয়ে জানুয়ারিতে আবারও বিজয়ের বন্দরে পৌঁছাবে আওয়ামী লীগ। নির্বাচন একটা সুযোগ বিএনপির জন্য। এটা হেলা করলে খেলায় হেরে যাবে বিএনপি। ভিসা নীতির কথা যে বিএনপি বলে বেড়াচ্ছে, তারেককে যে মরিয়ার্টি ভিসা নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে, সেটি কি তারা ভুলে গেছেন? ’

আগামী ২২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী সারা দেশে ১৫০ সেতু উদ্বোধন করবেন বলেও জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

বিএনপিকে ৩৬ দিনের আল্টিমেটাম দিলো আওয়ামী লীগ

আপডেট সময় : ০৮:৪৮:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বেগম জিয়ার চিকিৎসার জন্য জন্য রবিবার সরকারকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এবার উল্টো বিএনপিকে ৩৬ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ৩৬ দিনের মধ্যে বিএনপিকে অপরাজনীতি, নাশকতা, গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়তে এই হুঁশিয়ারী দেন তিনি।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে এ আল্টিমেটাম দেন ওবায়দুল কাদের।

মার্কিন ভিসা নীতির তীব্র সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কারও ভিসা নীতির তোয়াক্কা করিনা। কারও ভিসা নিষেধাজ্ঞার তোয়াক্কা করতে এ দেশ স্বাধীন করা হয়নি। যারা ভিসা নিষেধাজ্ঞার কথা বলে তাদের দেশেই গণতন্ত্র, মানবাধিকার ভুলুন্ঠিত হচ্ছে। এদেশে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেবে এ দেশের মানুষ, অন্য কেউ নয়। কারও খবরদারিতে বাংলাদেশের গণতন্ত্র, নির্বাচন চলবে না।’

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গত শুক্রবার থেকে একাধিক বাংলাদেশির ওপর নতুন ভিসা নীতি প্রয়োগ শুরু করে আমেরিকা। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, মার্কিন ভিসা নিষেধাজ্ঞার আওতায় যারা পড়েছেন, তাঁদের মধ্যে আছেন সরকার ও বিরোধী দলীয় রাজনীতিক এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য। বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচন বাধাগ্রস্ত করার দায়ে এঁদের ওপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা থাকবে।

অভিযুক্ত ব্যক্তি এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা ভিসা পাবেন না বলে বিবৃতিতে জানানো হয়। এতে বলা হয়, এঁদের কেউ আমেরিকা প্রবেশ করতে পারবেন না। এমন আরও কাউকে পাওয়া গেলে তাঁদের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হবে। ভিসা নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হতে পারে বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সরকারি কর্মকর্তা, বিচার বিভাগের কর্মকর্তা ও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের ওপর।

সমাবেশে বিএনপি নেতাদের ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে অপরাজনীতি, নাশকতা, গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ করার আল্টিমেটাম দেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘যদি এর ভেতরে বিএনপি সঠিক রাজনীতিতে ফিরে না আসে, তবে তাদের কালো হাত দেশবাসীকে নিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে। জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ফাইনাল খেলা হবে। অস্ত্র নিয়ে আসলে সে হাত গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।’

বিএনপির সমালোচনা করে কাদের বলেন, ‘৩৬ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেয় খালেদা জিয়ার মুক্তির, অথচ ৩৬ মিনিটের একটা আন্দোলনও তো করতে পারেনি বিএনপি। লজ্জা লাগে না ফখরুলের? বিএনপি নেতাদের মাজা ভেঙে গেছে। এখন যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নীতির ওপর ভর করেছে। আমরা এদেশের মানুষের শক্তিতে বিশ্বাস করি, কারও ভিসা নীতিতে নয়।’

নির্বাচন সংবিধান মেনেই হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শেখ হাসিনাকে ছাড়া দেশের মানুষ নির্বাচন মেনে নেবে না। শেখ হাসিনা ছাড়া কাউকে দেশের মানুষ বিশ্বাস করে না। হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। সাময়িক কষ্ট কেটে যাবে। সুদিন আবার আসবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি ভিসা নীতির ওপর ভর করেছে, আওয়ামী লীগ ভর করেছে দেশের মানুষের ওপর। দেশবাসীকে নিয়ে জানুয়ারিতে আবারও বিজয়ের বন্দরে পৌঁছাবে আওয়ামী লীগ। নির্বাচন একটা সুযোগ বিএনপির জন্য। এটা হেলা করলে খেলায় হেরে যাবে বিএনপি। ভিসা নীতির কথা যে বিএনপি বলে বেড়াচ্ছে, তারেককে যে মরিয়ার্টি ভিসা নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে, সেটি কি তারা ভুলে গেছেন? ’

আগামী ২২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী সারা দেশে ১৫০ সেতু উদ্বোধন করবেন বলেও জানান তিনি।