ঢাকা ০২:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

‘বিএনপিকে ধ্বংস করতে খালেদা জিয়াকে টার্গেট করেছে সরকার’

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৯:৫১:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪
  • / ৪৩৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিএনপিকে ধ্বংস করতে সরকার খালেদা জিয়াকে টার্গেট করেছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান।

রোববার (৩১ মার্চ) দুপুরে সদ্য কারামুক্ত ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ মোস্তফার উত্তরার বাসায় তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

ড. আব্দুল মঈন খান বলেন, মিথ্যা মামলায় কারাভোগের প্রভাবেই বেগম জিয়ার শারীরিক ও মানসিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। আজ মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন তিনি। খালেদা জিয়ার কিছু হলে এর দায় সরকারকেই নিতে হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, বিরোধী মত দমন করে সরকার সারাদেশে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করছে। বিএনপির শীর্ষ নেতা থেকে শুরু করে ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নির্যাতন করা হচ্ছে। এসব করে বিরোধী মত দমন করা যাবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মঈন খান বলেন, আজকে দেশের মানুষকে বাকরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। কেন সরকারের সমালোচনা করলে জেলে যেতে হয়। সরকারের সমালোচনা বিরোধী দলের কর্তব্য ও দায়িত্ব। এই অধিকার তো আমাদের সংবিধান দিয়েছে। সুতরাং দেশের যে পরিণতি হয়েছে তা দুঃখজনক ও লজ্জাজনক।

বিএনপি নেতাকর্মীদের জেলের ভেতরের নির্যাতন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এটা কী ধরনের সরকার? বাংলাদেশ কি এই কারণে সৃষ্টি হয়েছিল? কোথায় গণতন্ত্র, সুশাসন, মানবাধিকার, ভোটের অধিকার, সুস্বাস্থ্য ও শিক্ষার অধিকার? সেই উত্তর আজকে সরকারকে দিতে হবে।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, জনগণকে ভয়ভীতি দেখিয়ে, জুলুম-অত্যাচার এবং লগি-বৈঠার রাজনীতি বিএনপি করে না। আমরা মানুষকে সেবা করার জন্য রাজনীতি করি। একদিন না একদিন এই সরকারকে বিদায় নিতেই হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

‘বিএনপিকে ধ্বংস করতে খালেদা জিয়াকে টার্গেট করেছে সরকার’

আপডেট সময় : ০৯:৫১:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

বিএনপিকে ধ্বংস করতে সরকার খালেদা জিয়াকে টার্গেট করেছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান।

রোববার (৩১ মার্চ) দুপুরে সদ্য কারামুক্ত ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ মোস্তফার উত্তরার বাসায় তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

ড. আব্দুল মঈন খান বলেন, মিথ্যা মামলায় কারাভোগের প্রভাবেই বেগম জিয়ার শারীরিক ও মানসিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। আজ মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন তিনি। খালেদা জিয়ার কিছু হলে এর দায় সরকারকেই নিতে হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, বিরোধী মত দমন করে সরকার সারাদেশে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করছে। বিএনপির শীর্ষ নেতা থেকে শুরু করে ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নির্যাতন করা হচ্ছে। এসব করে বিরোধী মত দমন করা যাবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মঈন খান বলেন, আজকে দেশের মানুষকে বাকরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। কেন সরকারের সমালোচনা করলে জেলে যেতে হয়। সরকারের সমালোচনা বিরোধী দলের কর্তব্য ও দায়িত্ব। এই অধিকার তো আমাদের সংবিধান দিয়েছে। সুতরাং দেশের যে পরিণতি হয়েছে তা দুঃখজনক ও লজ্জাজনক।

বিএনপি নেতাকর্মীদের জেলের ভেতরের নির্যাতন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এটা কী ধরনের সরকার? বাংলাদেশ কি এই কারণে সৃষ্টি হয়েছিল? কোথায় গণতন্ত্র, সুশাসন, মানবাধিকার, ভোটের অধিকার, সুস্বাস্থ্য ও শিক্ষার অধিকার? সেই উত্তর আজকে সরকারকে দিতে হবে।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, জনগণকে ভয়ভীতি দেখিয়ে, জুলুম-অত্যাচার এবং লগি-বৈঠার রাজনীতি বিএনপি করে না। আমরা মানুষকে সেবা করার জন্য রাজনীতি করি। একদিন না একদিন এই সরকারকে বিদায় নিতেই হবে।