ঢাকা ১১:৫৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বার্নাব্যু থেকে টনি ক্রুসের বর্ণাঢ্য বিদায়

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৫:০৯:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪
  • / ৪২৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পুরো রিয়াল মাদ্রিদ শিবির প্রস্তুত ছিল তাদের একজন কিংবদন্তিকে বিদায় জানাতে। দর্শকরাও নিজেদের মতো করে প্রস্তুতি নিয়ে এসেছিলেন। এরপর ক্রুসের বিদায়বেলা সতীর্থরা রাঙিয়েছেন গার্ড অব অনার আর শূন্যে ছুড়ে অভিবাদন জানানোর মধ্য দিয়ে।

গত ২১ মে আসন্ন ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ খেলেই সব ধরনের ফুটবলকে বিদায় জানানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন এই জার্মান মিডফিল্ডার। কার্যত আর অল্প সময়ই মাঠে দেখা যাবে ৩৪ বছর বয়সী ক্রুসকে। রিয়ালের হয়ে ইতোমধ্যে নিজের স্মৃতিবিজড়িত ঘরের মাঠ বার্নাব্যুতে গতকাল শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন। যদিও এখানেই শেষ নয়, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে (১ জুন) খেলবেন স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে শেষ ম্যাচ। কিন্তু ঘরের মাঠেই যেন বিদায়ী আয়োজনের অধিকাংশটা হয়ে গেল। পুরো বার্নাব্যু প্রকম্পিত হচ্ছিল ক্রুস–ক্রুস ধ্বনিতে। এমন ভালোবাসা দেখে মাঝমাঠের স্নাইপারখ্যাত এই তারকাও অশ্রুসিক্ত হয়েছেন।

রিয়াল বেটিসের বিপক্ষে গতকাল চলতি মৌসুমে লিগের শেষ ম্যাচ খেলতে নেমেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। আগেই লা লিগার শিরোপা ঘরে তোলা দলটি এদিন মাঠ ছাড়ে গোলশূন্য ড্র–তে। তবে তাদের পুরো আকর্ষণ ছিল ক্রুসের বিদায়ী সংবর্ধনায়। বার্নাব্যুর গ্যালারিতে ২২টি শিরোপা জেতা ক্রুসের ছবি সম্বলিত বিশাল ব্যানার নিয়ে হাজির হন দর্শকরা। যেখানে লেখা ছিল– ‘‘ধন্যবাদ কিংবদন্তি।’’ রিয়ালের ফুটবলাররা ক্রুসের সম্মানে সবাই ‘৮’ নম্বর জার্সি পরেন, গার্ড অব অনারে অংশ নেন প্রতিপক্ষ বেটিস ফুটবলাররাও। এরপর ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে যখন বদলি খেলোয়াড় হিসেবে জার্মান তারকা মাঠ ছাড়ছেন, সবাই দাঁড়িয়ে তাকে করতালিতে অভিবাদন জানান। একে একে কোচ কার্লো আনচেলত্তি থেকে শুরু করে বাকি কোচিং স্টাফও তখন আলিঙ্গন করেন ক্রুসকে।

এমন আয়োজনে চোখের পানি আটকাতে পারেননি রিয়ালকে ১০ বছর মাঝমাঠে ভরসা দেওয়া এই তারকা। পাশে দাঁড়িয়েই অঝোরে কাঁদতে থাকা মেয়েকে জড়িয়ে ধরে বলেন, ‘বিদায় বলাটা সহজ নয়। আমি রিয়াল মাদ্রিদকে ধন্যবাদ দিতে চাই। আমি এখানে আমার ১০ বছর উপভোগ করেছি। রিয়াল মাদ্রিদ আমার ঘর। আমার সন্তানদের প্রতিক্রিয়া আমাকে ভেঙেচুরে দিয়েছে। আমি শুধু বলতে পারি, রিয়াল মাদ্রিদ।’

এমন সম্মানই ক্রুস প্রাপ্য বলে ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন রিয়াল বস আনচেলত্তি, ‘বার্নাব্যু টনি ক্রুসকে সেভাবে বিদায় দিয়েছে, যা তার প্রাপ্য।’ এ সময় তার কাছে জানতে চাওয়া হয় ক্রুসের বিদায়ে মাঝমাঠে তার জায়গা জ্যুড বেলিংহ্যামকে দেওয়া হবে কি না। জবাবে আনচেলত্তি বলেন, ‘বেলিংহ্যাম ক্রুসের জায়গায়? না, আমি সেটি মনে করি না। পেনাল্টি এরিয়ার কাছেই বেলিংহ্যামের থাকাটা আমাদের জন্য বেশি ভালো। আমাদের অন্য মিডফিল্ডার রয়েছে।’

লস ব্লাঙ্কোসদের পুরো মনোযোগ এখন ইউসিএল ফাইনালের দিকে। ১ জুন জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে ১৫তম শিরোপা নিশ্চিতের লক্ষ্যে নামবে সর্বোচ্চবারের চ্যাম্পিয়নরা। ওই ক্লাবের হয়ে এক সময় খেলেছেন ক্রুস, তাদের বিপক্ষেই তিনি এবার রিয়ালের জার্সিতে ক্লাব ফুটবলে নিজের শেষটা রাঙানোর লক্ষ্যে নামবেন। এরপর জার্মানির হয়ে শেষবার আন্তর্জাতিক ফুটবলে খেলবেন ১৫ জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে।

নিউজটি শেয়ার করুন

বার্নাব্যু থেকে টনি ক্রুসের বর্ণাঢ্য বিদায়

আপডেট সময় : ০৫:০৯:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

পুরো রিয়াল মাদ্রিদ শিবির প্রস্তুত ছিল তাদের একজন কিংবদন্তিকে বিদায় জানাতে। দর্শকরাও নিজেদের মতো করে প্রস্তুতি নিয়ে এসেছিলেন। এরপর ক্রুসের বিদায়বেলা সতীর্থরা রাঙিয়েছেন গার্ড অব অনার আর শূন্যে ছুড়ে অভিবাদন জানানোর মধ্য দিয়ে।

গত ২১ মে আসন্ন ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ খেলেই সব ধরনের ফুটবলকে বিদায় জানানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন এই জার্মান মিডফিল্ডার। কার্যত আর অল্প সময়ই মাঠে দেখা যাবে ৩৪ বছর বয়সী ক্রুসকে। রিয়ালের হয়ে ইতোমধ্যে নিজের স্মৃতিবিজড়িত ঘরের মাঠ বার্নাব্যুতে গতকাল শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন। যদিও এখানেই শেষ নয়, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে (১ জুন) খেলবেন স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে শেষ ম্যাচ। কিন্তু ঘরের মাঠেই যেন বিদায়ী আয়োজনের অধিকাংশটা হয়ে গেল। পুরো বার্নাব্যু প্রকম্পিত হচ্ছিল ক্রুস–ক্রুস ধ্বনিতে। এমন ভালোবাসা দেখে মাঝমাঠের স্নাইপারখ্যাত এই তারকাও অশ্রুসিক্ত হয়েছেন।

রিয়াল বেটিসের বিপক্ষে গতকাল চলতি মৌসুমে লিগের শেষ ম্যাচ খেলতে নেমেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। আগেই লা লিগার শিরোপা ঘরে তোলা দলটি এদিন মাঠ ছাড়ে গোলশূন্য ড্র–তে। তবে তাদের পুরো আকর্ষণ ছিল ক্রুসের বিদায়ী সংবর্ধনায়। বার্নাব্যুর গ্যালারিতে ২২টি শিরোপা জেতা ক্রুসের ছবি সম্বলিত বিশাল ব্যানার নিয়ে হাজির হন দর্শকরা। যেখানে লেখা ছিল– ‘‘ধন্যবাদ কিংবদন্তি।’’ রিয়ালের ফুটবলাররা ক্রুসের সম্মানে সবাই ‘৮’ নম্বর জার্সি পরেন, গার্ড অব অনারে অংশ নেন প্রতিপক্ষ বেটিস ফুটবলাররাও। এরপর ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে যখন বদলি খেলোয়াড় হিসেবে জার্মান তারকা মাঠ ছাড়ছেন, সবাই দাঁড়িয়ে তাকে করতালিতে অভিবাদন জানান। একে একে কোচ কার্লো আনচেলত্তি থেকে শুরু করে বাকি কোচিং স্টাফও তখন আলিঙ্গন করেন ক্রুসকে।

এমন আয়োজনে চোখের পানি আটকাতে পারেননি রিয়ালকে ১০ বছর মাঝমাঠে ভরসা দেওয়া এই তারকা। পাশে দাঁড়িয়েই অঝোরে কাঁদতে থাকা মেয়েকে জড়িয়ে ধরে বলেন, ‘বিদায় বলাটা সহজ নয়। আমি রিয়াল মাদ্রিদকে ধন্যবাদ দিতে চাই। আমি এখানে আমার ১০ বছর উপভোগ করেছি। রিয়াল মাদ্রিদ আমার ঘর। আমার সন্তানদের প্রতিক্রিয়া আমাকে ভেঙেচুরে দিয়েছে। আমি শুধু বলতে পারি, রিয়াল মাদ্রিদ।’

এমন সম্মানই ক্রুস প্রাপ্য বলে ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন রিয়াল বস আনচেলত্তি, ‘বার্নাব্যু টনি ক্রুসকে সেভাবে বিদায় দিয়েছে, যা তার প্রাপ্য।’ এ সময় তার কাছে জানতে চাওয়া হয় ক্রুসের বিদায়ে মাঝমাঠে তার জায়গা জ্যুড বেলিংহ্যামকে দেওয়া হবে কি না। জবাবে আনচেলত্তি বলেন, ‘বেলিংহ্যাম ক্রুসের জায়গায়? না, আমি সেটি মনে করি না। পেনাল্টি এরিয়ার কাছেই বেলিংহ্যামের থাকাটা আমাদের জন্য বেশি ভালো। আমাদের অন্য মিডফিল্ডার রয়েছে।’

লস ব্লাঙ্কোসদের পুরো মনোযোগ এখন ইউসিএল ফাইনালের দিকে। ১ জুন জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে ১৫তম শিরোপা নিশ্চিতের লক্ষ্যে নামবে সর্বোচ্চবারের চ্যাম্পিয়নরা। ওই ক্লাবের হয়ে এক সময় খেলেছেন ক্রুস, তাদের বিপক্ষেই তিনি এবার রিয়ালের জার্সিতে ক্লাব ফুটবলে নিজের শেষটা রাঙানোর লক্ষ্যে নামবেন। এরপর জার্মানির হয়ে শেষবার আন্তর্জাতিক ফুটবলে খেলবেন ১৫ জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে।