ঢাকা ০৫:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার মতো পরিস্থিতি দেশে নেই: বাণিজ্য সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৫:০৮:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৫০৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বাংলাদেশের ওপর বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার মতো কোনো পরিস্থিতি বর্তমানে নেই বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ। আজ সোমবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে শ্রমসংক্রান্ত জাতীয় কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা নিয়ে অনুষ্ঠিত বিশেষ আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেন, ‘আমেরিকার শ্রমনীতি সবদেশের জন্য, শুধু বাংলাদেশের জন্য না। তাদের শ্রমনীতি নিয়ে আমাদের মালিকেরা সর্বোচ্চ সতর্ক আছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের চাওয়াগুলো আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করি। সব বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে আমরা সংস্কার প্রক্রিয়ার মধ্যে আছি।’

বাংলাদেশের যে অগ্রগতি হয়েছে সেটি আমেরিকাকে কয়েকদিনের মধ্যে জানানো হবে জানিয়ে বাণিজ্য সচিব বলেন, ‘আমেরিকা যে উদ্বেগ জানিয়েছে সেটি নিয়ে আমরা সচেতন আছি, আমরা কাজ করছি।’

তপন কান্তি ঘোষ বলেন, ‘শ্রম আইনে, বেজা আইনে সংশোধনী আনা হয়েছে। স্টোকহোল্ডারদের বিজিএমইএ, বিকেএমইএকে জানানো হয়েছে কীভাবে শ্রম আইন ভালোভাবে বাস্তবায়ন করা যায়। আমাদের এখানে সংগঠন করার অধিকার আছে। জুন–২০২৫ সালের মধ্যে সংশোধন করা হবে। বিভিন্ন ইকোনমিক জোনের মধ্যে কনফেডারেশন করা হবে৷’

নিউজটি শেয়ার করুন

বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার মতো পরিস্থিতি দেশে নেই: বাণিজ্য সচিব

আপডেট সময় : ০৫:০৮:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

বাংলাদেশের ওপর বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার মতো কোনো পরিস্থিতি বর্তমানে নেই বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ। আজ সোমবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে শ্রমসংক্রান্ত জাতীয় কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা নিয়ে অনুষ্ঠিত বিশেষ আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেন, ‘আমেরিকার শ্রমনীতি সবদেশের জন্য, শুধু বাংলাদেশের জন্য না। তাদের শ্রমনীতি নিয়ে আমাদের মালিকেরা সর্বোচ্চ সতর্ক আছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের চাওয়াগুলো আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করি। সব বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে আমরা সংস্কার প্রক্রিয়ার মধ্যে আছি।’

বাংলাদেশের যে অগ্রগতি হয়েছে সেটি আমেরিকাকে কয়েকদিনের মধ্যে জানানো হবে জানিয়ে বাণিজ্য সচিব বলেন, ‘আমেরিকা যে উদ্বেগ জানিয়েছে সেটি নিয়ে আমরা সচেতন আছি, আমরা কাজ করছি।’

তপন কান্তি ঘোষ বলেন, ‘শ্রম আইনে, বেজা আইনে সংশোধনী আনা হয়েছে। স্টোকহোল্ডারদের বিজিএমইএ, বিকেএমইএকে জানানো হয়েছে কীভাবে শ্রম আইন ভালোভাবে বাস্তবায়ন করা যায়। আমাদের এখানে সংগঠন করার অধিকার আছে। জুন–২০২৫ সালের মধ্যে সংশোধন করা হবে। বিভিন্ন ইকোনমিক জোনের মধ্যে কনফেডারেশন করা হবে৷’