ঢাকা ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বাউফলে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় দুর্ধর্ষ ডাকাতি

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৪:৫৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩
  • / ৫২৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পটুয়াখালীর বাউফলের বগা ইউনিয়নের বালিয়া গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে দুর্র্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। রবিবার (১৯ নভেম্বর) দিবাগত রাত ১২টার দিকে এ ডাকাতি সংঘটিত হয়।

মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের মেঝ মোঃ মাসুদ জানান, তাদের দোতালা ভবনের পশ্চিম পাশের জানালার গ্রীল কেটে ৮-১০ জন মুখোশপড়া ডাকাত বাসার ভিতরে প্রবেশ করে নিচতলায় গিয়ে তার বাবা আলহাজ্ব চান মিয়া মাস্টার (৭১) ও তার আলহাজ্ব ফরিদা খাতুনকে (৬৬) অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুজনকে দুই রুমে নিয়ে বেধে ফেলে। এর পর তাদের কাছে স্টীল আলমারির চাবি চায়। চাবি দিতে অস্বীকার করায় ডাকাতরা তার বাবা ও মাকে মারধর করে। মেরে ফেলার হুমকি দেয়। তখন ভয়ে তার মা স্টীল আলমারির চাবি দিলে ডাকাতরা আলমারি খুলে নগদ প্রায় তিন লাখ টাকা ও পাঁচ-ছয় ভড়ি স্বর্ণলংকার লুট করে নিয়ে যায়।

এসময় ডাকাতরা বাসার অন্যান্য মালামালও তচনচ করে। আমগাছ বেয়ে ডাকাতরা দোতালায় ওঠেন এবং ডাকাতি শেষে নিচতলার সামনের দরজা খুলে চলে যায়। বাসায় এসময় তার মা-বাবা ছাড়া অন্য কেউ ছিলনা। পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বরিশালে ছিল। ডাকাতরা চলে যাওয়ার তার-বাবা ও মা ডাক চিৎকার দিলে এলাকার লোকজন এসে তাদের বাসায় জড়ো হন।

বগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান বলেন,‘ শুনেছি চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ইদানিং চুরি-ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় সাধারন মানুষ আতংকের মধ্যে আছেন।’

বগা পুলিশ তদন্ত কেন্দের ইনচার্জ ইমতিয়াজ আহম্মেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,‘ খবর পেয়ে রাতেই বাউফল সার্কেলের সিনিয়ি এএসপি, বাউফল থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

বাউফলে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় দুর্ধর্ষ ডাকাতি

আপডেট সময় : ০৬:৫৪:৫৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩

পটুয়াখালীর বাউফলের বগা ইউনিয়নের বালিয়া গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে দুর্র্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। রবিবার (১৯ নভেম্বর) দিবাগত রাত ১২টার দিকে এ ডাকাতি সংঘটিত হয়।

মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের মেঝ মোঃ মাসুদ জানান, তাদের দোতালা ভবনের পশ্চিম পাশের জানালার গ্রীল কেটে ৮-১০ জন মুখোশপড়া ডাকাত বাসার ভিতরে প্রবেশ করে নিচতলায় গিয়ে তার বাবা আলহাজ্ব চান মিয়া মাস্টার (৭১) ও তার আলহাজ্ব ফরিদা খাতুনকে (৬৬) অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুজনকে দুই রুমে নিয়ে বেধে ফেলে। এর পর তাদের কাছে স্টীল আলমারির চাবি চায়। চাবি দিতে অস্বীকার করায় ডাকাতরা তার বাবা ও মাকে মারধর করে। মেরে ফেলার হুমকি দেয়। তখন ভয়ে তার মা স্টীল আলমারির চাবি দিলে ডাকাতরা আলমারি খুলে নগদ প্রায় তিন লাখ টাকা ও পাঁচ-ছয় ভড়ি স্বর্ণলংকার লুট করে নিয়ে যায়।

এসময় ডাকাতরা বাসার অন্যান্য মালামালও তচনচ করে। আমগাছ বেয়ে ডাকাতরা দোতালায় ওঠেন এবং ডাকাতি শেষে নিচতলার সামনের দরজা খুলে চলে যায়। বাসায় এসময় তার মা-বাবা ছাড়া অন্য কেউ ছিলনা। পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বরিশালে ছিল। ডাকাতরা চলে যাওয়ার তার-বাবা ও মা ডাক চিৎকার দিলে এলাকার লোকজন এসে তাদের বাসায় জড়ো হন।

বগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান বলেন,‘ শুনেছি চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ইদানিং চুরি-ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় সাধারন মানুষ আতংকের মধ্যে আছেন।’

বগা পুলিশ তদন্ত কেন্দের ইনচার্জ ইমতিয়াজ আহম্মেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,‘ খবর পেয়ে রাতেই বাউফল সার্কেলের সিনিয়ি এএসপি, বাউফল থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

 

বাখ//আর