ঢাকা ০৫:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বাংলাদেশ সফরে সেরাদের পাচ্ছে না ইংল্যান্ড

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৩২:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৪৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্পোর্টস ডেস্ক : 

আসন্ন বাংলাদেশ সফরে সীমিত ওভারের সিরিজের দল নির্বাচন নিয়ে চিন্তায় পড়েছে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের লোভনীয় পারিশ্রমিকের কারণে বাংলাদেশ সফরে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইংল্যান্ডের বেশ কিছু ক্রিকেটার।

পাশাপাশি কিছু ইনজুরি সমস্যার কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে অনেক নতুন মুখকে দেখা যাবে ইংল্যান্ড দলে। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ‘দ্য টেলিগ্রাফ’-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সীমিত ওভারের কোচ ম্যাথু পট ও অধিনায়ক জশ বাটলারের নেতৃত্বে তরুণ প্রতিভাবান ও নতুন মুখ নিয়েই দল গঠন করবে ইংল্যান্ড। এই সিরিজে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড। সিরিজটি ২০২১ সালের অক্টোবরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে হয়ে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের সম্মতিতে সিরিজটি স্থগিত হয়।

‘দ্য টেলিগ্রাফ’-এর প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ২০২২ সালের টি-২০ বিশ্বকাপ দিয়ে জাতীয় দলে ফিরেছিলেন ওপেনার অ্যালেক্স হেলস। লোভনীয় পারিশ্রমিকের কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে না খেলে পিএসএলে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। আসন্ন পিএসএল-এ ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের হয়ে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন হেলস। হেলসের মত পিএসএলকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন গেল কয়েক বছর ধরে সাদা বলের ক্রিকেটে নিয়মিত স্যাম বিলিংস, লিয়াম ডসন ও জেমস ভিন্সও। ১৩ ফেব্রুয়ারি ১৯ মার্চ পর্যন্ত চলবে পিএসএলের অষ্টম আসর।

আগামী পহেলা মার্চ বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে খেলবে ইংল্যান্ড। স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সফরকারী ইংল্যান্ডের মধ্যকার সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শেষ হবে ওয়েলিংটনে ২৮ ফেব্রুয়ারি। এতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে অংশ নেয়া ক্রিকেটারদেরকে বাংলাদেশ সফরে পাবে না ইংলিশরা। এছাড়া হ্যারি ব্রুক, বেন ডাকেট, অলি স্টোন (বর্তমানে দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজে ব্যস্ত) এবং জো রুটকেও পাওয়া যাবে না। এখনও ওয়ানডেতে অভিষেক না হওয়া উইল জ্যাকসকে ওপেনিং বিকল্প হিসেবে দেখা হচ্ছে। টেস্ট দলের অংশ হিসেবে আছেন তিনিও।

চলমান দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের দলেও নেই জ্যাকস। দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া আসর এসএ২০ ক্রিকেটে খেলার অনুমতি দেয়া হয়েছে তাকে। নিউজিল্যান্ড সফরের পর পিএসএলে খেলবেন জ্যাকস। বদলি খেলোয়াড় হিসেবে তাকে দলে নিয়েছে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স। ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে আছেন জনি বেয়ারস্টো এবং লিয়াম লিভিংস্টোন। শ্রীলঙ্কা সফরে থাকা ইংল্যান্ড লায়ন্স থেকে সম্ভবত কয়েকজনকে মূল দলে নেয়া হতে পারে। বাংলাদেশ সফরে ফিরতে পারেন পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সফরের পর বর্তমানে বিশ্রাম থাকা পেসার মার্ক উড।

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ সফরে সেরাদের পাচ্ছে না ইংল্যান্ড

আপডেট সময় : ০৪:৩২:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

স্পোর্টস ডেস্ক : 

আসন্ন বাংলাদেশ সফরে সীমিত ওভারের সিরিজের দল নির্বাচন নিয়ে চিন্তায় পড়েছে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের লোভনীয় পারিশ্রমিকের কারণে বাংলাদেশ সফরে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইংল্যান্ডের বেশ কিছু ক্রিকেটার।

পাশাপাশি কিছু ইনজুরি সমস্যার কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে অনেক নতুন মুখকে দেখা যাবে ইংল্যান্ড দলে। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ‘দ্য টেলিগ্রাফ’-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সীমিত ওভারের কোচ ম্যাথু পট ও অধিনায়ক জশ বাটলারের নেতৃত্বে তরুণ প্রতিভাবান ও নতুন মুখ নিয়েই দল গঠন করবে ইংল্যান্ড। এই সিরিজে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড। সিরিজটি ২০২১ সালের অক্টোবরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে হয়ে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের সম্মতিতে সিরিজটি স্থগিত হয়।

‘দ্য টেলিগ্রাফ’-এর প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ২০২২ সালের টি-২০ বিশ্বকাপ দিয়ে জাতীয় দলে ফিরেছিলেন ওপেনার অ্যালেক্স হেলস। লোভনীয় পারিশ্রমিকের কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে না খেলে পিএসএলে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। আসন্ন পিএসএল-এ ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের হয়ে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন হেলস। হেলসের মত পিএসএলকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন গেল কয়েক বছর ধরে সাদা বলের ক্রিকেটে নিয়মিত স্যাম বিলিংস, লিয়াম ডসন ও জেমস ভিন্সও। ১৩ ফেব্রুয়ারি ১৯ মার্চ পর্যন্ত চলবে পিএসএলের অষ্টম আসর।

আগামী পহেলা মার্চ বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে খেলবে ইংল্যান্ড। স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সফরকারী ইংল্যান্ডের মধ্যকার সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শেষ হবে ওয়েলিংটনে ২৮ ফেব্রুয়ারি। এতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে অংশ নেয়া ক্রিকেটারদেরকে বাংলাদেশ সফরে পাবে না ইংলিশরা। এছাড়া হ্যারি ব্রুক, বেন ডাকেট, অলি স্টোন (বর্তমানে দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজে ব্যস্ত) এবং জো রুটকেও পাওয়া যাবে না। এখনও ওয়ানডেতে অভিষেক না হওয়া উইল জ্যাকসকে ওপেনিং বিকল্প হিসেবে দেখা হচ্ছে। টেস্ট দলের অংশ হিসেবে আছেন তিনিও।

চলমান দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের দলেও নেই জ্যাকস। দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া আসর এসএ২০ ক্রিকেটে খেলার অনুমতি দেয়া হয়েছে তাকে। নিউজিল্যান্ড সফরের পর পিএসএলে খেলবেন জ্যাকস। বদলি খেলোয়াড় হিসেবে তাকে দলে নিয়েছে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স। ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে আছেন জনি বেয়ারস্টো এবং লিয়াম লিভিংস্টোন। শ্রীলঙ্কা সফরে থাকা ইংল্যান্ড লায়ন্স থেকে সম্ভবত কয়েকজনকে মূল দলে নেয়া হতে পারে। বাংলাদেশ সফরে ফিরতে পারেন পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সফরের পর বর্তমানে বিশ্রাম থাকা পেসার মার্ক উড।