ঢাকা ০২:২৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বাংলাদেশে রোজা শুরু ২৪ মার্চ, ঈদ ২২ এপ্রিল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৭:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৬৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আগামী ২২ মার্চ মধ্যপ্রাচ্যের আকাশে রমজান মাসের নতুন চাঁদ দেখা যাবে। ফলে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে রোজা শুরু হবে ২৩ মার্চ থেকে। তার এক দিন পর, ২৪ মার্চ থেকে উপমহাদেশের তিন দেশ বাংলাদেশ,ভারত ও পাকিস্তানে শুরু হবে রোজা। সেই হিসাবে আগামী মাসের ২২ তারিখ পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে। যদিও বাংলাদেশে চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে রোজা রাখা শুরু ও শেষ হয়। তবে দেশের বেশ কিছু এলাকায় সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে রোজা ও ঈদ উদযাপন করা হয়ে থাকে।

বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিদ্যা সংস্থার (ইন্টারন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সেন্টার-আইএসি) বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক সংবাদমাধ্যম অ্যারাবিয়ান বিজনেস। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন।

রোজা শুরুর সম্ভাব্য দিনের পাশাপাশি ঈদুল ফিতরের দিনও ঘোষণা করেছে আইএসি। সেই ঘোষণা অনুযায়ী, চলতি বছর যদি ২৯টি রোজা হয়- সেক্ষেত্রে আগামী ২১ এপ্রিল ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে; আর উপমহাদেশে ঈদ হবে ২২ এপ্রিল।

২৪ মার্চ প্রথম রোজা ধরে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রকাশ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফা)। ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে রোজার প্রথম দিন নির্ধারণ হবে।

শুক্রবার (২৪ মার্চ) ১৪৪৪ হিজরির প্রথম রমজান হলে ঢাকায় সেহরির শেষ সময় হবে ৪টা ৩৯ মিনিটে। ওই দিন ফজরের ওয়াক্ত শুরু হবে ৪টা ৪৫ মিনিটে। ইফতারের সময় শুরু হবে ৬টা ১৪ মিনিটে।

বিজ্ঞপ্তিতে অনুযায়ী, ২৪ মার্চ প্রথম রোজা হলে ২২ এপ্রিল হবে ৩০ রমজান। ওই দিন সেহরির শেষ সময় ৪টা ৭ মিনিট। ফজরের ওয়াক্ত শুরু হবে ৪টা ১৩ মিনিটে। আর ইফতার শুরু হবে ৬টা ২৭ মিনিটে।

এতে বলা হয়, সেহরির শেষ সময় সতর্কতামূলকভাবে সুবহে সাদিকের ৩ মিনিট আগে ধরা হয়েছে। ফজরের ওয়াক্ত শুরু সুবহে সাদিকের তিন মিনিট পর ধরা হয়েছে। এ কারণে সেহরির সতর্কতামূলক শেষ সময়ের ৬ মিনিট পর ফজরের আজান দিতে হবে।

এতে আরও বলা হয়, সূর্যাস্তের পর সতর্কতামূলকভাবে ৩ মিনিট বাড়িয়ে ইফতারের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

ইফা জানায়, ঢাকার সঙ্গে একই সময়ে সেহরি করবেন নারায়ণগঞ্জ, জামালপুর, ভোলা, শেরপুর ও কুড়িগ্রামের মুসলিমরা। অন্যদিকে ঢাকার সঙ্গে একই সময়ে ইফতার করবেন গাজীপুর, মাদারীপুর, ময়মনসিংহ, পিরোজপুর, বরগুনা ও ঝালকাঠির লোকজন।

বাকি জেলাগুলোর ক্ষেত্রে ঢাকার সঙ্গে সেহরি ও ইফতারের সময়ে ১ থেকে ৯ মিনিট পর্যন্ত পার্থক্য থাকবে।

ইসলাম ধর্মের প্রধান ৫ স্তম্ভের তৃতীয়টির নাম রোজা। আরবি রমজান মাসের ৩০ দিন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানহার, সহিংসতা ও শারীরিক চাহিদা মেটানো থেকে বিরত থাকেন। এই ব্যাপারটিকেই রোজা বা সিয়াম সাধনা বলা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশে রোজা শুরু ২৪ মার্চ, ঈদ ২২ এপ্রিল

আপডেট সময় : ১১:৩৭:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মার্চ ২০২৩

আগামী ২২ মার্চ মধ্যপ্রাচ্যের আকাশে রমজান মাসের নতুন চাঁদ দেখা যাবে। ফলে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে রোজা শুরু হবে ২৩ মার্চ থেকে। তার এক দিন পর, ২৪ মার্চ থেকে উপমহাদেশের তিন দেশ বাংলাদেশ,ভারত ও পাকিস্তানে শুরু হবে রোজা। সেই হিসাবে আগামী মাসের ২২ তারিখ পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে। যদিও বাংলাদেশে চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে রোজা রাখা শুরু ও শেষ হয়। তবে দেশের বেশ কিছু এলাকায় সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে রোজা ও ঈদ উদযাপন করা হয়ে থাকে।

বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিদ্যা সংস্থার (ইন্টারন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সেন্টার-আইএসি) বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক সংবাদমাধ্যম অ্যারাবিয়ান বিজনেস। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন।

রোজা শুরুর সম্ভাব্য দিনের পাশাপাশি ঈদুল ফিতরের দিনও ঘোষণা করেছে আইএসি। সেই ঘোষণা অনুযায়ী, চলতি বছর যদি ২৯টি রোজা হয়- সেক্ষেত্রে আগামী ২১ এপ্রিল ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে; আর উপমহাদেশে ঈদ হবে ২২ এপ্রিল।

২৪ মার্চ প্রথম রোজা ধরে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রকাশ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফা)। ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে রোজার প্রথম দিন নির্ধারণ হবে।

শুক্রবার (২৪ মার্চ) ১৪৪৪ হিজরির প্রথম রমজান হলে ঢাকায় সেহরির শেষ সময় হবে ৪টা ৩৯ মিনিটে। ওই দিন ফজরের ওয়াক্ত শুরু হবে ৪টা ৪৫ মিনিটে। ইফতারের সময় শুরু হবে ৬টা ১৪ মিনিটে।

বিজ্ঞপ্তিতে অনুযায়ী, ২৪ মার্চ প্রথম রোজা হলে ২২ এপ্রিল হবে ৩০ রমজান। ওই দিন সেহরির শেষ সময় ৪টা ৭ মিনিট। ফজরের ওয়াক্ত শুরু হবে ৪টা ১৩ মিনিটে। আর ইফতার শুরু হবে ৬টা ২৭ মিনিটে।

এতে বলা হয়, সেহরির শেষ সময় সতর্কতামূলকভাবে সুবহে সাদিকের ৩ মিনিট আগে ধরা হয়েছে। ফজরের ওয়াক্ত শুরু সুবহে সাদিকের তিন মিনিট পর ধরা হয়েছে। এ কারণে সেহরির সতর্কতামূলক শেষ সময়ের ৬ মিনিট পর ফজরের আজান দিতে হবে।

এতে আরও বলা হয়, সূর্যাস্তের পর সতর্কতামূলকভাবে ৩ মিনিট বাড়িয়ে ইফতারের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

ইফা জানায়, ঢাকার সঙ্গে একই সময়ে সেহরি করবেন নারায়ণগঞ্জ, জামালপুর, ভোলা, শেরপুর ও কুড়িগ্রামের মুসলিমরা। অন্যদিকে ঢাকার সঙ্গে একই সময়ে ইফতার করবেন গাজীপুর, মাদারীপুর, ময়মনসিংহ, পিরোজপুর, বরগুনা ও ঝালকাঠির লোকজন।

বাকি জেলাগুলোর ক্ষেত্রে ঢাকার সঙ্গে সেহরি ও ইফতারের সময়ে ১ থেকে ৯ মিনিট পর্যন্ত পার্থক্য থাকবে।

ইসলাম ধর্মের প্রধান ৫ স্তম্ভের তৃতীয়টির নাম রোজা। আরবি রমজান মাসের ৩০ দিন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানহার, সহিংসতা ও শারীরিক চাহিদা মেটানো থেকে বিরত থাকেন। এই ব্যাপারটিকেই রোজা বা সিয়াম সাধনা বলা হয়।