ঢাকা ০৬:০৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ফ্যাসিবাদের প্রতি কোনো সহানুভূতি নেই : মেলোনি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:২৫:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৩৬ বার পড়া হয়েছে

ইতালির নতুন প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইতালির নতুন প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি জানান, তার ফ্যাসিবাদের প্রতি কোনো সহানুভূতি নেই। কোনো ধরনের অগণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার প্রতিও তার কোনো সহানুভূতি নেই।

মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) ইতালির পার্লামেন্টে দেওয়া এক ভাষণে মেলোনি এ কথা বলেন। ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
ইতালির পার্লামেন্টে দেওয়া এক ভাষণে জর্জিয়া মেলোনি জানান, তিনি কখনো ফ্যাসিবাদসহ কোনো ধরনের অগণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার প্রতি কোনো টান অনুভব করেননি। এমনকি সামান্যতম কোনো ঘনিষ্ঠতাও নেই।

তাদের সরকার গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ থেকে এক ইঞ্চিও সরবে না। তারা সব ধরনের বর্ণবাদ, সেমেটিক জাতিগোষ্ঠীর বিরোধিতা রাজনৈতিক সহিংসতা, বৈষম্যকে কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেবেন না।

জর্জিয়া মেলোনির দল ব্রাদার্স অব ইতালিয়া পার্টি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইতালির সবচেয়ে কট্টর ডানপন্থী দল হিসেবে পরিচিত। তিনি জোট বেঁধেছেন দুই কট্টর ডানপন্থী দল মাতেও সালভিনির নেতৃত্বাধীন লীগ পার্টি এবং ইতালির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও দেশটির মিডিয়া মোগল খ্যাত সিলভিও বের্লুসকোনির ফোরজা ইতালিয়া পার্টির সঙ্গে।

শনিবার (২২ অক্টোবর) ইতালির ইতিহাসে প্রথম নারী হিসেবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন জর্জিয়া মেলোনি। মেলোনিকে শপথবাক্য পাঠ করান ইতালির প্রেসিডেন্ট সার্জিও মাত্তারেলা।

শপথ অনুষ্ঠানে মেলোনি জাতীয় স্বার্থকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন। তার সঙ্গে মন্ত্রী সভার বাকি ২৪ সদস্যও একই প্রতিশ্রুতি পাঠ করেন। মেলোনির মন্ত্রীসভার ২৪ সদস্যের মধ্যে ৬ জন নারী।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ফ্যাসিবাদের প্রতি কোনো সহানুভূতি নেই : মেলোনি

আপডেট সময় : ০২:২৫:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইতালির নতুন প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি জানান, তার ফ্যাসিবাদের প্রতি কোনো সহানুভূতি নেই। কোনো ধরনের অগণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার প্রতিও তার কোনো সহানুভূতি নেই।

মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) ইতালির পার্লামেন্টে দেওয়া এক ভাষণে মেলোনি এ কথা বলেন। ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
ইতালির পার্লামেন্টে দেওয়া এক ভাষণে জর্জিয়া মেলোনি জানান, তিনি কখনো ফ্যাসিবাদসহ কোনো ধরনের অগণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার প্রতি কোনো টান অনুভব করেননি। এমনকি সামান্যতম কোনো ঘনিষ্ঠতাও নেই।

তাদের সরকার গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ থেকে এক ইঞ্চিও সরবে না। তারা সব ধরনের বর্ণবাদ, সেমেটিক জাতিগোষ্ঠীর বিরোধিতা রাজনৈতিক সহিংসতা, বৈষম্যকে কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেবেন না।

জর্জিয়া মেলোনির দল ব্রাদার্স অব ইতালিয়া পার্টি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইতালির সবচেয়ে কট্টর ডানপন্থী দল হিসেবে পরিচিত। তিনি জোট বেঁধেছেন দুই কট্টর ডানপন্থী দল মাতেও সালভিনির নেতৃত্বাধীন লীগ পার্টি এবং ইতালির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও দেশটির মিডিয়া মোগল খ্যাত সিলভিও বের্লুসকোনির ফোরজা ইতালিয়া পার্টির সঙ্গে।

শনিবার (২২ অক্টোবর) ইতালির ইতিহাসে প্রথম নারী হিসেবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন জর্জিয়া মেলোনি। মেলোনিকে শপথবাক্য পাঠ করান ইতালির প্রেসিডেন্ট সার্জিও মাত্তারেলা।

শপথ অনুষ্ঠানে মেলোনি জাতীয় স্বার্থকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন। তার সঙ্গে মন্ত্রী সভার বাকি ২৪ সদস্যও একই প্রতিশ্রুতি পাঠ করেন। মেলোনির মন্ত্রীসভার ২৪ সদস্যের মধ্যে ৬ জন নারী।