ঢাকা ০২:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ফুলবাড়ীতে পতিতাবৃত্তির অভিযোগে দুই খদ্দেরসহ এক নারী আটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:১৯:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ মে ২০২৩
  • / ৪৬৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মোঃ আবু শহীদ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি :

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে পৌর শহরের এক বাসাবাড়ীতে পতিতাবৃত্তির অভিযোগে দুই খদ্দের, এক নারী এবং বাড়ীর মালিকসহ চারজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

গতকাল বুধবার (১০ মে) রাত ৮টায় পৌর এলাকার পূর্ব গৌরীপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম টিটু নামের এক ব্যক্তির বাড়ী থেকে তাদের আটক করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ততা (ওসি) আশ্রাফুল ইসলাম।
আটককৃতরা হলেন, বাড়ীর মালিক রেজাউল ইসলামের ছেলে রফিকুল ইসলাম টিটু (৪৫) এক নারী (২১), পার্বতীপুর উপজেলার পূর্ব সুকদেবপুর গ্রামের (চেয়ারম্যানপাড়া) ফয়জার মেম্বারের ছেলে রউফ বাবু (১৮) এবং একই গ্রামের জহুরুল ইসলামের ছেলে পিয়ার আলী (১৮)। আটক ব্যক্তিদের বৃহস্পতিবার দুপুরে দিনাজপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

থানার মামলা সূত্রে জানা যায়,পৌর এলাকার পূর্ব গৌরীপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম টিটুর বাড়ীর দোতলায় বুধবার (১০ মে) রাতে পতিতাবৃত্তির সময়, স্থানীয়রা ওই বাড়ী ঘেরাও করে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে এই মামলার বাদি উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাড়ীর মালিক রফিকুল ইসলাম টিটু এবং এক পতিতাসহ রউফ বাবু ও পিয়ার আলী নামের দুইজন খদ্দেরকে আটক করে। একই সময়ে পতিতাবৃত্তির কাজে ব্যবহারের জন্য সরকারি সরবরাহকৃত ১০টি সুগন্ধিযুক্ত নিরাপদ কনডম জব্দ করা হয়।

ধৃত বাড়ীর মালিক রফিকুল ইসলাম টিটু জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন থেকে তার পূর্ব গৌরীপাড়াস্থ বাড়ীর দোতলায় ধৃত ওই নারীসহ বেশ কয়েকজন নারীকে দিয়ে পতিতাবৃত্তির কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন।

একইভাবে রউফ বাবু ও পিয়ার আলীও পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন, তারা ওই নারীর সাথে রফিকুল ইসলাম টিটুর দোতলায় পতিতাবৃত্তিতে লিপ্ত হয়েছিলেন।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, দীর্ঘদিন থেকে রফিকুল ইসলাম টিটু অদৃশ্য ক্ষমতার বলে দিনে-রাতে তার বাড়ীতে পতিতাবৃত্তির কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন। তার সঙ্গে বিভিন্ন এলাকার প্রভাবশালী কিছু ব্যক্তি ও বখাটের সখ্যতা থাকায় প্রতিবেশীরা এ বিষয়ে প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছিলেন না।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ততা (ওসি) আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন থেকে ওই বাড়ীতে পুলিশের নজরদারী ছিল। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পতিতা ও খদ্দেরসহ বাড়ীর মালিককে আটক করা গেছে। এ ব্যাপারে আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে,পতিতাবৃত্তির জন্য আহবান জানিয়ে আশ্রয় প্রদান ও পতিতাবৃত্তি করার অপরাধে মামলা রুজু করা হয়েছে। আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

 

 

বা/খ: জই

নিউজটি শেয়ার করুন

ফুলবাড়ীতে পতিতাবৃত্তির অভিযোগে দুই খদ্দেরসহ এক নারী আটক

আপডেট সময় : ০৭:১৯:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ মে ২০২৩

মোঃ আবু শহীদ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি :

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে পৌর শহরের এক বাসাবাড়ীতে পতিতাবৃত্তির অভিযোগে দুই খদ্দের, এক নারী এবং বাড়ীর মালিকসহ চারজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

গতকাল বুধবার (১০ মে) রাত ৮টায় পৌর এলাকার পূর্ব গৌরীপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম টিটু নামের এক ব্যক্তির বাড়ী থেকে তাদের আটক করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ততা (ওসি) আশ্রাফুল ইসলাম।
আটককৃতরা হলেন, বাড়ীর মালিক রেজাউল ইসলামের ছেলে রফিকুল ইসলাম টিটু (৪৫) এক নারী (২১), পার্বতীপুর উপজেলার পূর্ব সুকদেবপুর গ্রামের (চেয়ারম্যানপাড়া) ফয়জার মেম্বারের ছেলে রউফ বাবু (১৮) এবং একই গ্রামের জহুরুল ইসলামের ছেলে পিয়ার আলী (১৮)। আটক ব্যক্তিদের বৃহস্পতিবার দুপুরে দিনাজপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

থানার মামলা সূত্রে জানা যায়,পৌর এলাকার পূর্ব গৌরীপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম টিটুর বাড়ীর দোতলায় বুধবার (১০ মে) রাতে পতিতাবৃত্তির সময়, স্থানীয়রা ওই বাড়ী ঘেরাও করে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে এই মামলার বাদি উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাড়ীর মালিক রফিকুল ইসলাম টিটু এবং এক পতিতাসহ রউফ বাবু ও পিয়ার আলী নামের দুইজন খদ্দেরকে আটক করে। একই সময়ে পতিতাবৃত্তির কাজে ব্যবহারের জন্য সরকারি সরবরাহকৃত ১০টি সুগন্ধিযুক্ত নিরাপদ কনডম জব্দ করা হয়।

ধৃত বাড়ীর মালিক রফিকুল ইসলাম টিটু জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন থেকে তার পূর্ব গৌরীপাড়াস্থ বাড়ীর দোতলায় ধৃত ওই নারীসহ বেশ কয়েকজন নারীকে দিয়ে পতিতাবৃত্তির কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন।

একইভাবে রউফ বাবু ও পিয়ার আলীও পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন, তারা ওই নারীর সাথে রফিকুল ইসলাম টিটুর দোতলায় পতিতাবৃত্তিতে লিপ্ত হয়েছিলেন।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, দীর্ঘদিন থেকে রফিকুল ইসলাম টিটু অদৃশ্য ক্ষমতার বলে দিনে-রাতে তার বাড়ীতে পতিতাবৃত্তির কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন। তার সঙ্গে বিভিন্ন এলাকার প্রভাবশালী কিছু ব্যক্তি ও বখাটের সখ্যতা থাকায় প্রতিবেশীরা এ বিষয়ে প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছিলেন না।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ততা (ওসি) আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন থেকে ওই বাড়ীতে পুলিশের নজরদারী ছিল। এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পতিতা ও খদ্দেরসহ বাড়ীর মালিককে আটক করা গেছে। এ ব্যাপারে আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে,পতিতাবৃত্তির জন্য আহবান জানিয়ে আশ্রয় প্রদান ও পতিতাবৃত্তি করার অপরাধে মামলা রুজু করা হয়েছে। আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

 

 

বা/খ: জই