ঢাকা ০৬:০৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ফরিদপুরে ঈদ উপলক্ষে কাঁচা বাজার নিয়ন্ত্রণহীন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৩৬:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৭৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
// নাজিম বকাউল //
কাল শনিবার পবিত্র ঈদ উপলক্ষে আজ শুক্রবার কাঁচা বাজার নিয়ন্ত্রণহীন। সকালে বাজারে
গিয়ে দেখায় প্রতিটি কাঁচা তরিতরকারীর দাম দ্বিগুণ। যে সকল তরকারীগুলো ঈদের দিন প্রয়োজন সেগুলোর দামের এ অবস্থা।
পঞ্চাশ টাকা শশা বিক্রি হচ্ছে একশ’ টাকা  কেজিতে। মরিচ বিক্রি হচ্ছে একশ’ বিশ টাকা কেজি। এ রকম প্রতিটি খাদ্য কাঁচা মালের এ বেগতিক অবস্থা।
এ বিষয়ে বাজারে গিয়ে নেই কারো মাথা ব‍্যাথা। যার যার মতো তরিতরকারি কিনে বাড়ি ফিরছে।
দ্বিগুণ দামের বিষয়ে জামাল, ইলিয়াসসহ কয়েক জন ক্রেতাদের সাথে হলে তারা বললেন, প্রতিবাদ করে কি হবে। প্রতিবাদ করে আমি কিনলাম না; কিন্তু আমার মতো অনেকেই কিনে নিয়ে যায়। ওই দুঃখে আর প্রতিবাদ করি না। আমাদের সংসার চালাতে হিম শিম খাচ্ছি আর কিছু ব‍্যাক্তিদের দেখছি দাম কত তাও জিজ্ঞেস করছেনা।
তরকারী বিক্রেতা  মাসুদ, গরজন, সাঈদ জানান,  আমরা কি করবো? আড়ৎদার মালিকরা দাম দ্বিগুণ করেছে। আমাদের কিছু করার নেই । আমরা তাদের নিকট থেকে মাল এলে বিক্রি করে। এরা যেভাবে দাম নির্ধারণ করে দেবে, সেভাবেই আমাদের বিক্রি করতে হবে।
বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

ফরিদপুরে ঈদ উপলক্ষে কাঁচা বাজার নিয়ন্ত্রণহীন

আপডেট সময় : ০৩:৩৬:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ এপ্রিল ২০২৩
// নাজিম বকাউল //
কাল শনিবার পবিত্র ঈদ উপলক্ষে আজ শুক্রবার কাঁচা বাজার নিয়ন্ত্রণহীন। সকালে বাজারে
গিয়ে দেখায় প্রতিটি কাঁচা তরিতরকারীর দাম দ্বিগুণ। যে সকল তরকারীগুলো ঈদের দিন প্রয়োজন সেগুলোর দামের এ অবস্থা।
পঞ্চাশ টাকা শশা বিক্রি হচ্ছে একশ’ টাকা  কেজিতে। মরিচ বিক্রি হচ্ছে একশ’ বিশ টাকা কেজি। এ রকম প্রতিটি খাদ্য কাঁচা মালের এ বেগতিক অবস্থা।
এ বিষয়ে বাজারে গিয়ে নেই কারো মাথা ব‍্যাথা। যার যার মতো তরিতরকারি কিনে বাড়ি ফিরছে।
দ্বিগুণ দামের বিষয়ে জামাল, ইলিয়াসসহ কয়েক জন ক্রেতাদের সাথে হলে তারা বললেন, প্রতিবাদ করে কি হবে। প্রতিবাদ করে আমি কিনলাম না; কিন্তু আমার মতো অনেকেই কিনে নিয়ে যায়। ওই দুঃখে আর প্রতিবাদ করি না। আমাদের সংসার চালাতে হিম শিম খাচ্ছি আর কিছু ব‍্যাক্তিদের দেখছি দাম কত তাও জিজ্ঞেস করছেনা।
তরকারী বিক্রেতা  মাসুদ, গরজন, সাঈদ জানান,  আমরা কি করবো? আড়ৎদার মালিকরা দাম দ্বিগুণ করেছে। আমাদের কিছু করার নেই । আমরা তাদের নিকট থেকে মাল এলে বিক্রি করে। এরা যেভাবে দাম নির্ধারণ করে দেবে, সেভাবেই আমাদের বিক্রি করতে হবে।
বা/খ: এসআর।