ঢাকা ১২:১৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে পদ্মা সেতুর উদ্দেশ্যে স্বপ্নের ট্রেন নিয়ে যাত্রা শুরু 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৩৭:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৭৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
বিশেষ প্রতিনিধি, ফরিদপুর :
দক্ষিণ বাংলার ২১ জেলার বাসিন্দাদের কাছে স্বপ্ন ছিল সেতু দিয়ে নদী পার হওয়ার।  গত বছর ২৫ জুন শত বছরের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আজ মঙ্গলবার তার সাথে যোগাযোগের নতুন অধ্যায় রচিত হতে যাচ্ছে ট্রেন চালুর মাধ্যমে।
১টা ২১ মিনিটে ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে পদ্মা সেতুর উদ্দেশ্যে স্বপ্নের ট্রেন নিয়ে যাত্রা শুরু করলেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।
যাত্রা শুরু আগের রেলমন্ত্রী সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার স্বপ্ন একটা একটা করে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। তারই অংশ হিসেবে আজ ট্রাইল ট্রেন চলছে।
এর আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন,  প্রকল্পের ব্যবস্থাপক ব্রিগেডিআর সাইড আহমেদ জানান, প্রকল্পের কাজ শুরু করতে আমাদের তিন মাস সময় দেড়ি হয়েছিল । তার পরেও সময় মতো কাজ শেষ করতে পারায় আমরা আনন্দিত। ইতিমধ্যে আমাদের এই অংশের কাজের ৯২ ভাগ শেষ হয়েছে।  বাকি কাজ প্রকল্প মেয়াদ এর মধ্যে শেষ হয়ে যাবে।
এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, চিফ হুইপ নূর ই  আলম চৌধুরী, ফরিদপুর-৪ সাংসদ মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু , নাহিম রাজ্জাক, সাগুপতা ইয়াসমিন এমিলি, আবদুস সোবহান গোলাপ।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার ও পুলিশ সুপার মোঃ শাহজাহান।
সামনে ট্র্যাক কার তার পিছনে ৭ বগির বিশেষ ট্রেন ফরিদপুরের ভাঙ্গা স্টেশন থেকে পদ্মা সেতুর দিকে  যাত্রা করে মন্ত্রী, উপমন্ত্রীর, সংসদ সদস্যদের নিয়ে । গন্তব্য  পদ্মা সেতু পার হয়ে মাওয়া রেল স্টেশনে যাওয়া। ভাঙ্গা স্টেশন হতে মাওয়া স্টেশন পর্যন্ত ৪২ কিলোমিটার ।
পদ্মা সেতুর রেললিংক প্রকল্প সূত্র জানায়, যাত্রীদের ট্রেনে চলাচলের জন্য ভাঙ্গা হতে পদ্মা সেতু হয়ে মাওয়া পর্যন্ত ৪টি স্টেশন ও ১টি জংশন স্টেশন নির্মাণ করা হচ্ছে।
ট্রেনের চালক রবিউল আলম বলেন,  গতকাল সোমবার রাত ৯ টা ৩৫ মিনিটে এই বিশেষ ট্রেনটি সৈয়দপুর থেকে ঈশ্বরদী পোড়াদাহ রাজবাড়ী ফরিদপুর হয়ে ভাঙা স্টেশনে আসে। পদ্মা নদীর উপর দিয়ে প্রথম ট্রেন চালাচ্ছেন ভাবতেই খুব আনন্দ লাগছে বলেও জানান তিনি ।
বা/খ: জই

নিউজটি শেয়ার করুন

ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে পদ্মা সেতুর উদ্দেশ্যে স্বপ্নের ট্রেন নিয়ে যাত্রা শুরু 

আপডেট সময় : ০৮:৩৭:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল ২০২৩
বিশেষ প্রতিনিধি, ফরিদপুর :
দক্ষিণ বাংলার ২১ জেলার বাসিন্দাদের কাছে স্বপ্ন ছিল সেতু দিয়ে নদী পার হওয়ার।  গত বছর ২৫ জুন শত বছরের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আজ মঙ্গলবার তার সাথে যোগাযোগের নতুন অধ্যায় রচিত হতে যাচ্ছে ট্রেন চালুর মাধ্যমে।
১টা ২১ মিনিটে ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে পদ্মা সেতুর উদ্দেশ্যে স্বপ্নের ট্রেন নিয়ে যাত্রা শুরু করলেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।
যাত্রা শুরু আগের রেলমন্ত্রী সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার স্বপ্ন একটা একটা করে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। তারই অংশ হিসেবে আজ ট্রাইল ট্রেন চলছে।
এর আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন,  প্রকল্পের ব্যবস্থাপক ব্রিগেডিআর সাইড আহমেদ জানান, প্রকল্পের কাজ শুরু করতে আমাদের তিন মাস সময় দেড়ি হয়েছিল । তার পরেও সময় মতো কাজ শেষ করতে পারায় আমরা আনন্দিত। ইতিমধ্যে আমাদের এই অংশের কাজের ৯২ ভাগ শেষ হয়েছে।  বাকি কাজ প্রকল্প মেয়াদ এর মধ্যে শেষ হয়ে যাবে।
এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, চিফ হুইপ নূর ই  আলম চৌধুরী, ফরিদপুর-৪ সাংসদ মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু , নাহিম রাজ্জাক, সাগুপতা ইয়াসমিন এমিলি, আবদুস সোবহান গোলাপ।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার ও পুলিশ সুপার মোঃ শাহজাহান।
সামনে ট্র্যাক কার তার পিছনে ৭ বগির বিশেষ ট্রেন ফরিদপুরের ভাঙ্গা স্টেশন থেকে পদ্মা সেতুর দিকে  যাত্রা করে মন্ত্রী, উপমন্ত্রীর, সংসদ সদস্যদের নিয়ে । গন্তব্য  পদ্মা সেতু পার হয়ে মাওয়া রেল স্টেশনে যাওয়া। ভাঙ্গা স্টেশন হতে মাওয়া স্টেশন পর্যন্ত ৪২ কিলোমিটার ।
পদ্মা সেতুর রেললিংক প্রকল্প সূত্র জানায়, যাত্রীদের ট্রেনে চলাচলের জন্য ভাঙ্গা হতে পদ্মা সেতু হয়ে মাওয়া পর্যন্ত ৪টি স্টেশন ও ১টি জংশন স্টেশন নির্মাণ করা হচ্ছে।
ট্রেনের চালক রবিউল আলম বলেন,  গতকাল সোমবার রাত ৯ টা ৩৫ মিনিটে এই বিশেষ ট্রেনটি সৈয়দপুর থেকে ঈশ্বরদী পোড়াদাহ রাজবাড়ী ফরিদপুর হয়ে ভাঙা স্টেশনে আসে। পদ্মা নদীর উপর দিয়ে প্রথম ট্রেন চালাচ্ছেন ভাবতেই খুব আনন্দ লাগছে বলেও জানান তিনি ।
বা/খ: জই