শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৩৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ও তাদের আশ্রয়দাতাদের চাহিদা পূরণে পাশে আছে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির ভেন্যু নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্ব শুক্রবার কেটে যাবে: হারুন ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার ম্যাচের দিন ঝড়বৃষ্টির শঙ্কা চিকিৎসকরা উপজেলায় যেতে চান না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সচিবরা নিজেদের রাজা মনে করেন: হাইকোর্ট বিএনপি চায় কমলাপুর স্টেডিয়াম, ডিএমপি বলছে বাঙলা কলেজ নারী শিক্ষার প্রসারে বেগম রোকেয়ার অবদান অন্তহীন প্রেরণার উৎস: প্রধানমন্ত্রী ‘বিয়ে’ করছেন শুভ-অন্তরা! দুজনেরই সিদ্ধান্ত বিয়ে করব না: নুসরাত ফারিয়া স্পিকারের সঙ্গে চীন রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ হাসপাতালে রোগীদের বারবার একই টেস্ট বন্ধ কর‍তে হবে : মেয়র আতিক নয়াপল্টনে ‘সহিংসতা’র সুষ্ঠু তদন্ত চায় যুক্তরাষ্ট্র ফখরুল সাহেব, হুঁশ হারাবেন না, অবস্থা শিশুবক্তার মতো হবে: হানিফ রাঙ্গাবালীতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ  সাঁথিয়ায় অটোবাইক চাপায় প্রাণ গেল শিশুর

পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার

ডেস্ক নিউজ :

আবাসিক হোটেলে নিয়ে এক গৃহবধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বরিশালের কোতোয়ালি মডেল থানার স্টীমারঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ আবুল বাশারকে (৪৭) গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিন শনিবার শেষকার্য দিবসে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। সন্ধ্যায় এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আজিমুল করিম বলেন, গ্রেফতারকৃত এসআই আবুল বাশার বাকেরগঞ্জ উপজেলার বিহারীপুর গ্রামের আব্দুল জলিল খানের ছেলে। আর মামলার বাদি নির্যাতিতা নারী (৩৭) মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানার কাশিপুরের ইছাকাঠী এলাকার বাসিন্দা।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ অক্টোবর স্টীমারঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবুল বাশারের সাথে ওই নারীর পরিচয় হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে মোবাইল নম্বর আদান প্রদান হয়। এর কয়েকদিন পর ১৩ অক্টোবর বিকেলে এসআই আবুল বাশারকে একটি মামলার জন্য ফোন দেয় ভিকটিম ওই গৃহিনী।

এ সময় এসআই আবুল বাশার ভিকটিমের অবস্থান জেনে সেখানে যান এবং তার অফিসিয়াল রুমে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে। পরবর্তীতে বিকেল চারটার দিকে নগরীর প্যারারা রোডস্থ আবাসিক হোটেল আলভির ২০৪ নম্বর কক্ষে নিয়ে এসআই আবুল বাশার ভিকটিমকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

সূত্রমতে, কোতোয়ালি মডেল থানাধীন স্টীমার ঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল বাশারের বিরুদ্ধে ওই এলাকায় চাঁদাবাজির বিস্তার অভিযোগ রয়েছে। বিশেষ করে কীর্তনখোলা নদী তীরবর্তী দ্বীপ জনপদ রসুলপুরের কতিপয় মাদক ব্যবসায়ীর সাথে সখ্যতা গড়ে তাদের কাছ থেকে মাসিক মোটা অংকের টাকা মাসোহারা আদায় করতো।

এ মনকি তাদের পক্ষালম্বন করে কখনও স্থানীয় বাসিন্দাদের হয়রানি করে আসছিলেন। বাকেরগঞ্জের নিজ এলাকায় এসআই দাপট দেখিয়ে নানা রকম কুকর্মে জড়িত রয়েছেন। একইসাথে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশে কর্মরত থাকা অবস্থায় সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় তিনি সাময়িক বরখাস্তও হয়েছিলেন।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ সাইফুল ইসলাম বিপিএম বার বলেন, মামলা দায়েরের পর এসআই মোঃ আবুল বাশারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হবে।

এ ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *