ঢাকা ০৫:১১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পাবনা সদর, আটঘরিয়া ও সাঁথিয়া উপজেলাকে ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩৮:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৫০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

এ. এইচ. মাসুক, পাবনা প্রতিনিধি :

চতুর্থ পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে আরো ৩২৫টি জমিসহ গৃহ হস্তান্তররের পর পাবনা সদর আটঘরিয়া ও সাঁথিয়া উপজেলাকে ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া এ জেলার ৯টি উপজেলায় গতকাল ঘর হস্তান্তর করা হয় ৮৭২ টি। সব মিলিয়ে এ জেলায় জমিসহ ঘর দেয়া হলো প্রায় ৩ হাজার ভুমিহীনকে। গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে সারা দেশের মত পাবনাতেও এসব ঘর হস্তান্ত করেন।
এ সময় পাবনা থেকে যুক্ত হন জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেন, পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব আবদুল্লাহ আল মামুন, আটঘড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাকসুদা আক্তার মাসু , পাবনা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকার্তা তাহমিদা আকতার, সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ হোসেন, আটঘরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র শহীদুল ইসলাম রতনসহ সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা।

জমি সহ ঘরে পেয়ে আটঘরিার সালেহা খাতুন বলেন মৃত্যুর আগে শেষ বয়সে পায়ের নীচে মাটি আর মাথার উপর ছাদ পেয়ে খুশী আর আনন্দিত। তিনি বলেন আমার সাধ্য ছিল না নিজের একখন্ড জমিতে বসবাসের আধা পাঁকা ঘর নির্মানের, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে জমি ও ঘর দিয়ে বাকী জীবন চলার নিশ্চয়তা দিয়েছেন, আল্লাহ তাকে দীর্ঘজীবী করুক।

শুধু সালেহা খাতুন নয় এমন স্বস্থির নিশ্বাষ ও খুশীর কথা শুধু নয়, শান্তিতে বসবাসসহ আয় রোজগারের সুযোগ পেয়ে উন্নতির সুযোগ পেয়েছে আঃ খালেক, ইব্রাহিম হোসেন, ময়না খাতুন, জবেদা খাতুনসহ অসংখ্য ভূমিহীন ও গৃহহীন যারা বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের বসবাসের জন্য বিনামূল্য জমি ও ঘর পেয়েছেন।

গতকাল পাবনা সদর, আটঘরিয়া ও সাঁথিয়া উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরবর্তীতে যাদেও ২-৫ শতাংশ জমি আছে তাদেরকে বিনামূল্য ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার কার্যক্রম (খ শ্রেণি) শুরু হবে। শতভাগ ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণার পর এই উপজেলাগুলোতে প্রকৃত ভূমিহীন ও গৃহহীন আর কেউ থাকলো না ।

বা/খ : এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

পাবনা সদর, আটঘরিয়া ও সাঁথিয়া উপজেলাকে ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা

আপডেট সময় : ০১:৩৮:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩

এ. এইচ. মাসুক, পাবনা প্রতিনিধি :

চতুর্থ পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে আরো ৩২৫টি জমিসহ গৃহ হস্তান্তররের পর পাবনা সদর আটঘরিয়া ও সাঁথিয়া উপজেলাকে ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া এ জেলার ৯টি উপজেলায় গতকাল ঘর হস্তান্তর করা হয় ৮৭২ টি। সব মিলিয়ে এ জেলায় জমিসহ ঘর দেয়া হলো প্রায় ৩ হাজার ভুমিহীনকে। গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে সারা দেশের মত পাবনাতেও এসব ঘর হস্তান্ত করেন।
এ সময় পাবনা থেকে যুক্ত হন জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেন, পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব আবদুল্লাহ আল মামুন, আটঘড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাকসুদা আক্তার মাসু , পাবনা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকার্তা তাহমিদা আকতার, সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ হোসেন, আটঘরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র শহীদুল ইসলাম রতনসহ সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা।

জমি সহ ঘরে পেয়ে আটঘরিার সালেহা খাতুন বলেন মৃত্যুর আগে শেষ বয়সে পায়ের নীচে মাটি আর মাথার উপর ছাদ পেয়ে খুশী আর আনন্দিত। তিনি বলেন আমার সাধ্য ছিল না নিজের একখন্ড জমিতে বসবাসের আধা পাঁকা ঘর নির্মানের, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে জমি ও ঘর দিয়ে বাকী জীবন চলার নিশ্চয়তা দিয়েছেন, আল্লাহ তাকে দীর্ঘজীবী করুক।

শুধু সালেহা খাতুন নয় এমন স্বস্থির নিশ্বাষ ও খুশীর কথা শুধু নয়, শান্তিতে বসবাসসহ আয় রোজগারের সুযোগ পেয়ে উন্নতির সুযোগ পেয়েছে আঃ খালেক, ইব্রাহিম হোসেন, ময়না খাতুন, জবেদা খাতুনসহ অসংখ্য ভূমিহীন ও গৃহহীন যারা বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের বসবাসের জন্য বিনামূল্য জমি ও ঘর পেয়েছেন।

গতকাল পাবনা সদর, আটঘরিয়া ও সাঁথিয়া উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরবর্তীতে যাদেও ২-৫ শতাংশ জমি আছে তাদেরকে বিনামূল্য ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার কার্যক্রম (খ শ্রেণি) শুরু হবে। শতভাগ ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণার পর এই উপজেলাগুলোতে প্রকৃত ভূমিহীন ও গৃহহীন আর কেউ থাকলো না ।

বা/খ : এসআর।