ঢাকা ০৩:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পাকুন্দিয়ায় মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১১:৫১:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪১৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় দুই মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় আহতদের মধ্যে আরও এক যুবক মারা গেছেন। শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল সাড়ে আটটার দিকে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফাহিম (২০) নামের ওই যুবক মারা যান। তিনি উপজেলার পোড়াবাড়িয়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে। এ নিয়ে এই দুর্ঘটনায় মোট তিনজনের মৃত্যু হলো। ফাহিমের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফাহিমের চাচা আসাদ মিয়া।

এর আগে শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে এ সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান শরীফ (২২) ও নাঈম (২৮) নামের দুই যুবক। শরীফ উপজেলার পাইক লক্ষীয়া গ্রামের আবুল কালামের ছেলে। নাঈম একই উপজেলার পোড়াবাড়িয়া গ্রামের শহীদুল্লাহর ছেলে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত শরীফের ছোট বোন লিজা আক্তার (১৮) বর্তমানে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে শরীফ তার ছোট বোন লিজাকে মোটর সাইকেলে করে বাড়ি থেকে তার নানার বাড়ি মির্জাপুর গ্রামে যাচ্ছিলেন। এ সময় বিপরীত দিক থেকে নাঈম তার বন্ধু ফাহিমকে মোটর সাইকেলে নিয়ে উপজেলার পোড়াবাড়িয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। বরাটিয়া ঈদগাহ গেইটের সামনে পৌঁছলে মোটর সাইকেল দু’টির মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দু’টি মোটর সাইকেলে থাকা চারজন আরোহী সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে। এসময় ঘটনাস্থলেই নাঈম নিহত হন। পথচারীরা আহতদের উদ্ধার করে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। তাদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। সেখানে নেওয়ার পথে শরীফ মারা যান। গুরুতর আহত লিজাকে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপরদিকে ফাহিমকে ঢাকার একটি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে মারা যান।

পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান টিটু বলেন, এ ঘটনায় আজ শনিবার নাঈমের বন্ধু মোটর সাইকেল আরোহী ফাহিম ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। কোন পক্ষই এ বিষয়ে থানায় কোন অভিযোগ দেয়নি।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

পাকুন্দিয়ায় মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

আপডেট সময় : ১১:৫১:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় দুই মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় আহতদের মধ্যে আরও এক যুবক মারা গেছেন। শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল সাড়ে আটটার দিকে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফাহিম (২০) নামের ওই যুবক মারা যান। তিনি উপজেলার পোড়াবাড়িয়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে। এ নিয়ে এই দুর্ঘটনায় মোট তিনজনের মৃত্যু হলো। ফাহিমের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফাহিমের চাচা আসাদ মিয়া।

এর আগে শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে এ সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান শরীফ (২২) ও নাঈম (২৮) নামের দুই যুবক। শরীফ উপজেলার পাইক লক্ষীয়া গ্রামের আবুল কালামের ছেলে। নাঈম একই উপজেলার পোড়াবাড়িয়া গ্রামের শহীদুল্লাহর ছেলে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত শরীফের ছোট বোন লিজা আক্তার (১৮) বর্তমানে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে শরীফ তার ছোট বোন লিজাকে মোটর সাইকেলে করে বাড়ি থেকে তার নানার বাড়ি মির্জাপুর গ্রামে যাচ্ছিলেন। এ সময় বিপরীত দিক থেকে নাঈম তার বন্ধু ফাহিমকে মোটর সাইকেলে নিয়ে উপজেলার পোড়াবাড়িয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। বরাটিয়া ঈদগাহ গেইটের সামনে পৌঁছলে মোটর সাইকেল দু’টির মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দু’টি মোটর সাইকেলে থাকা চারজন আরোহী সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে। এসময় ঘটনাস্থলেই নাঈম নিহত হন। পথচারীরা আহতদের উদ্ধার করে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। তাদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। সেখানে নেওয়ার পথে শরীফ মারা যান। গুরুতর আহত লিজাকে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপরদিকে ফাহিমকে ঢাকার একটি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে মারা যান।

পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান টিটু বলেন, এ ঘটনায় আজ শনিবার নাঈমের বন্ধু মোটর সাইকেল আরোহী ফাহিম ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। কোন পক্ষই এ বিষয়ে থানায় কোন অভিযোগ দেয়নি।

 

বাখ//আর