ঢাকা ১২:৩০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মামলা হবে: বিলাওয়াল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১১:০৩:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৩৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

অনাস্থার সময় সংসদ ভেঙে দেওয়ার ও সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় পরিষদের অধিবেশন না ডাকার জন্য পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির বিরুদ্ধে দুটি মামলা হবে বলে জানিয়েছেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের বাইরে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় বিলাওয়াল এ কথা জানান।

তিনি বলেন, আরিফ আলভির বিরুদ্ধে দুটি মামলা হবে, একটি মামলা অনাস্থার সময় সংসদ ভেঙে দেওয়ার জন্য এবং দ্বিতীয়টি সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় পরিষদের অধিবেশন না ডাকার জন্য। প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব আরিফ আলভির একার বিষয় নয়। অভিশংসনের পরিবর্তে নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আরেকজন প্রেসিডেন্টকে এনে আরিফ আলভিকে সরিয়ে দেওয়া হবে।

বিলাওয়াল ভুট্টো বলেন, আলভি সাহেব সংবিধান ভঙ্গ করেছেন সেখান থেকেই তো সমস্যা শুরু। আরিফ আলভি সংবিধান ভঙ্গ করে তার দায়িত্ব পালন করছেন না। রাষ্ট্রপতি যদি সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন না করেন তবে স্পিকার তা পূরণ করবেন। কারণ সংবিধানে লেখা আছে যে কোনো মূল্যে ২৯ ফেব্রুয়ারি অধিবেশন ডাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, পিপলস পার্টির (পিপিপি) অবস্থান হলো প্রতিষ্ঠানগুলো সাংবিধানিক কাঠামোর মধ্যে কাজ করা উচিত। রাজনীতিবিদদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে আমাদের সুযোগের মধ্যে রাজনীতি করা উচিত। আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে একে অপরকে সম্মান করব কিনা, রাজনীতিবিদরা একে অপরকে সম্মান করবে না, তাহলে কোনো প্রতিষ্ঠান করবে এমন আশা করবেন না। এভাবে চলতে থাকলে আগামী তিন প্রজন্ম ধরে একই দৃশ্য অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত ৮ ফ্রেব্রুয়ারি। দেশটিতে নির্বাচনের ২১ দিনের মধ্যে জাতীয় পরিষদের প্রথম অধিবেশন ডাকার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এমন সময়সীমা সামনে রেখেই উদ্বোধনী অধিবেশন আয়োজনের তোড়জোড় শুরু করেছিলো বর্তমান তত্ত্বাববধায়ক সরকার।

জাতীয় পরিষদের অধিবেশন শুরুর আহ্বান জানিয়ে সোমবার সংসদবিষয়ক তত্ত্বাবধায়ক মন্ত্রণালয় প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির কাছে একটি সারসংক্ষেপও পাঠিয়েছিলো। তবে এই সারসংক্ষেপে স্বাক্ষর করেননি তিনি। বরং নিজের ক্ষমতাবলে ১৫ দিনের জন্য অধিবেশন স্থগিত করে দেন প্রেসিডেন্ট আলভি।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের পার্লামেন্ট জাতীয় পরিষদের সচিবালয় আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় নতুন মেয়াদের উদ্বোধনী অধিবেশন আহ্বান করেছে। সূত্র: জিও নিউজ উর্দূ

নিউজটি শেয়ার করুন

পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মামলা হবে: বিলাওয়াল

আপডেট সময় : ১১:০৩:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

অনাস্থার সময় সংসদ ভেঙে দেওয়ার ও সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় পরিষদের অধিবেশন না ডাকার জন্য পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির বিরুদ্ধে দুটি মামলা হবে বলে জানিয়েছেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের বাইরে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় বিলাওয়াল এ কথা জানান।

তিনি বলেন, আরিফ আলভির বিরুদ্ধে দুটি মামলা হবে, একটি মামলা অনাস্থার সময় সংসদ ভেঙে দেওয়ার জন্য এবং দ্বিতীয়টি সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় পরিষদের অধিবেশন না ডাকার জন্য। প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব আরিফ আলভির একার বিষয় নয়। অভিশংসনের পরিবর্তে নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আরেকজন প্রেসিডেন্টকে এনে আরিফ আলভিকে সরিয়ে দেওয়া হবে।

বিলাওয়াল ভুট্টো বলেন, আলভি সাহেব সংবিধান ভঙ্গ করেছেন সেখান থেকেই তো সমস্যা শুরু। আরিফ আলভি সংবিধান ভঙ্গ করে তার দায়িত্ব পালন করছেন না। রাষ্ট্রপতি যদি সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন না করেন তবে স্পিকার তা পূরণ করবেন। কারণ সংবিধানে লেখা আছে যে কোনো মূল্যে ২৯ ফেব্রুয়ারি অধিবেশন ডাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, পিপলস পার্টির (পিপিপি) অবস্থান হলো প্রতিষ্ঠানগুলো সাংবিধানিক কাঠামোর মধ্যে কাজ করা উচিত। রাজনীতিবিদদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে আমাদের সুযোগের মধ্যে রাজনীতি করা উচিত। আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে একে অপরকে সম্মান করব কিনা, রাজনীতিবিদরা একে অপরকে সম্মান করবে না, তাহলে কোনো প্রতিষ্ঠান করবে এমন আশা করবেন না। এভাবে চলতে থাকলে আগামী তিন প্রজন্ম ধরে একই দৃশ্য অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত ৮ ফ্রেব্রুয়ারি। দেশটিতে নির্বাচনের ২১ দিনের মধ্যে জাতীয় পরিষদের প্রথম অধিবেশন ডাকার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এমন সময়সীমা সামনে রেখেই উদ্বোধনী অধিবেশন আয়োজনের তোড়জোড় শুরু করেছিলো বর্তমান তত্ত্বাববধায়ক সরকার।

জাতীয় পরিষদের অধিবেশন শুরুর আহ্বান জানিয়ে সোমবার সংসদবিষয়ক তত্ত্বাবধায়ক মন্ত্রণালয় প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির কাছে একটি সারসংক্ষেপও পাঠিয়েছিলো। তবে এই সারসংক্ষেপে স্বাক্ষর করেননি তিনি। বরং নিজের ক্ষমতাবলে ১৫ দিনের জন্য অধিবেশন স্থগিত করে দেন প্রেসিডেন্ট আলভি।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের পার্লামেন্ট জাতীয় পরিষদের সচিবালয় আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় নতুন মেয়াদের উদ্বোধনী অধিবেশন আহ্বান করেছে। সূত্র: জিও নিউজ উর্দূ