ঢাকা ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পাকিস্তানকে হেসেখেলে হারাল ভারত

ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১০:৪৫:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৬৪৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চলমান ওয়ানডে বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের লড়াইটা হলো একপেশে। ব্যাট হাতে বড় সংগ্রহ দাঁড় করাতে ব্যর্থ হওয়া পাকিস্তান এদিন পাত্তা পায়নি ভারতীয় ব্যাটারদের কাছে। আফ্রিদি-রউফদের তুলোধুনো করে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেন ভারতের রোহিত শর্মা। পাকিস্তানের দেয়া ১৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে রোহিত-আয়ারের অর্ধ-শতকে ১১৭ বল বাকি থাকতেই ৭ উইকেটের জয় তুলে নেয় ভারত। এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত মুখোমুখি সাত ম্যাচের সাতটিতেই শতভাগ জয় ভারতের।

আজ শনিবার (১৪ অক্টোবর) আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪২.৫ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান তোলে বাবর-রিজওয়ানরা। জবাবে ৩০.৩ ওভারে সাত উইকেটের জয় তুলে নেয় রোহিতের দল। যা চলতি বিশ্বকাপে ভারতের টানা তৃতীয় জয়।

১৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ভালো শুরু করেন দুই ভারতীয় ওপেনার শুভমান গিল ও রোহিত শর্মা। তবে, দলীয় ২৩ রানের মাথায় শাহিন আফ্রিদির বলে কাট করতে গিয়ে গালি পজিশনে শাদাবের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন গিল। আউটের আগে তার ব্যাট থেকে আসে ১১ বলে ১৬ রান।

এরপর কোহলিকে নিয়ে দারুণ এক জুটি গড়েন অধিনায়ক রোহিত। এই দুজনের ৫৬ রানের জুটিতে পাকিস্তানকে চাপে ফেলে ভারত। এরপর দলীয় ৭৯ রানে হাসান আলির বলে মিড অনে নেওয়াজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন কোহলি। আউটের আগে তার ব্যাট থেকে আসে ১৮ বলে ১৬ রান।

কোহলির বিদায়ের পর শ্রেয়াস আইয়ারকে নিয়ে ফের বড় জুটি গড়েন ভারতের দল নেতা। এই দুজনের ৭৭ রানের জুটিতে জয়ের ভিত গড়ে ফেলে ভারত। দলীয় ১৫৬ রানে শাহিন আফ্রিদির স্লেয়ার ডেলিভারিতে আউট হন রোহিত। এর আগে খেলেন ৬৩ বলে ৮৬ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। রোহিতের বিদায়ের পর কেএল রাহুলকে নিয়ে বাকি কাজ সারেন আইয়ার।

এর আগে, ইনিংসের শেষটা ভালো না হলেও, শুরুটা ভাল করেছিল পাকিস্তান। দুই ওপেনার আবদুল্লাহ শফিক ও ইমাম-উল-হক মিলে গড়ে তোলেন ৪১ রানের উদ্বোধনী জুটি। মোহাম্মদ সিরাজের কিছুটা নিচু হয়ে যাওয়া বলে এলবিডব্লিউ এর ফাঁদে পড়েন শফিক। আউটের আগে তার ব্যাট থেকে আসে ২৪ বলে ২০ রান।

প্রথম উইকেটের পর দ্বিতীয় উইকেট হারাতে খুব বেশি সময় লাগেনি পাকিস্তানের। দলীয় ৭৩ রানে হার্দিক পান্ডিয়ার লাফিয়ে ওঠা বলে উইকেটের পেছনে কেএল রাহুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ইমাম-উল-হক। ৩৮ বলে ৩৬ রান করেন বাঁহাতি এই ব্যাটার।

অবশ্য, তার বিদায়ের পরই দারুণ এক জুটি গড়ে ভারতকে চাপে ফেলে দুই অভিজ্ঞ ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও বাবর আজম। এই দুজনের ৮৩ রানের জুটিতে বড় সংগ্রহের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে পাকিস্তান। তবে, দলীয় ১৫৫ রানের মাথায় ফের ছন্দপতন। এবার সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক বাবর। সিরাজের নিচু হয়ে যাওয়া বলে বোল্ড হন বাবর। তার ব্যাট থেকে আসে ৫৮ বলে ৫০ রান।

বাবরের বিদায়ের পরই যেন খেই হারায় পাকিস্তান। দ্রুত সময়ের মধ্যেই ফিরে যান রিজওয়ান, শাকিল ও ইফতিখার আহমেদ। এই তিন ব্যাটারকে হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে পাকিস্তান। শেষদিকে লেজের সারির ব্যাটাররাও তেমন কিছু করতে পারেনি। ১৯১ রানে থামে পাকিস্তান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
পাকিস্তান : ৪২.৫ ওভারে ১৯১/১০ (শফিক ২০, ইমাম ৩৬, বাবর ৫০, রিজওয়ান ৪৯, শাকিল ৬, ইফতিখার ৪, শাদাব ২, নেওয়াজ ৪, হাসান ১২, শাহিন ২, হারিস ২; বুমরাহ ৭-১-১৮-২, সিরাজ ৮-০-৫০-২, হার্দিক ৬-০-৩৪-২, কুলদীপ ১০-০-৩৫-২, জাদেজা ৯.৫-০-৩৮-২, শারদুল ২-০-১২-০)

ভারত : ৩০.৩ ওভারে ১৯২/৩ (রোহিত ৮৬, গিল ১৬, কোহলি ১৬, আইয়ার ৫৩*, রাহুল ১৯*; আফ্রিদি ৬-০-৩৬-২, হাসান ৬-০-৩৪-১, নেওয়াজ ৮.৩-০-৪৭-০, হারিস ৬-০-৪৩-০, শাদাব ৪-০-৩১-০)
ফলাফল : ভারত সাত উইকেটে জয়ী

নিউজটি শেয়ার করুন

পাকিস্তানকে হেসেখেলে হারাল ভারত

আপডেট সময় : ১০:৪৫:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩

চলমান ওয়ানডে বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের লড়াইটা হলো একপেশে। ব্যাট হাতে বড় সংগ্রহ দাঁড় করাতে ব্যর্থ হওয়া পাকিস্তান এদিন পাত্তা পায়নি ভারতীয় ব্যাটারদের কাছে। আফ্রিদি-রউফদের তুলোধুনো করে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেন ভারতের রোহিত শর্মা। পাকিস্তানের দেয়া ১৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে রোহিত-আয়ারের অর্ধ-শতকে ১১৭ বল বাকি থাকতেই ৭ উইকেটের জয় তুলে নেয় ভারত। এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত মুখোমুখি সাত ম্যাচের সাতটিতেই শতভাগ জয় ভারতের।

আজ শনিবার (১৪ অক্টোবর) আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪২.৫ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে ১৯১ রান তোলে বাবর-রিজওয়ানরা। জবাবে ৩০.৩ ওভারে সাত উইকেটের জয় তুলে নেয় রোহিতের দল। যা চলতি বিশ্বকাপে ভারতের টানা তৃতীয় জয়।

১৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ভালো শুরু করেন দুই ভারতীয় ওপেনার শুভমান গিল ও রোহিত শর্মা। তবে, দলীয় ২৩ রানের মাথায় শাহিন আফ্রিদির বলে কাট করতে গিয়ে গালি পজিশনে শাদাবের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন গিল। আউটের আগে তার ব্যাট থেকে আসে ১১ বলে ১৬ রান।

এরপর কোহলিকে নিয়ে দারুণ এক জুটি গড়েন অধিনায়ক রোহিত। এই দুজনের ৫৬ রানের জুটিতে পাকিস্তানকে চাপে ফেলে ভারত। এরপর দলীয় ৭৯ রানে হাসান আলির বলে মিড অনে নেওয়াজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন কোহলি। আউটের আগে তার ব্যাট থেকে আসে ১৮ বলে ১৬ রান।

কোহলির বিদায়ের পর শ্রেয়াস আইয়ারকে নিয়ে ফের বড় জুটি গড়েন ভারতের দল নেতা। এই দুজনের ৭৭ রানের জুটিতে জয়ের ভিত গড়ে ফেলে ভারত। দলীয় ১৫৬ রানে শাহিন আফ্রিদির স্লেয়ার ডেলিভারিতে আউট হন রোহিত। এর আগে খেলেন ৬৩ বলে ৮৬ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। রোহিতের বিদায়ের পর কেএল রাহুলকে নিয়ে বাকি কাজ সারেন আইয়ার।

এর আগে, ইনিংসের শেষটা ভালো না হলেও, শুরুটা ভাল করেছিল পাকিস্তান। দুই ওপেনার আবদুল্লাহ শফিক ও ইমাম-উল-হক মিলে গড়ে তোলেন ৪১ রানের উদ্বোধনী জুটি। মোহাম্মদ সিরাজের কিছুটা নিচু হয়ে যাওয়া বলে এলবিডব্লিউ এর ফাঁদে পড়েন শফিক। আউটের আগে তার ব্যাট থেকে আসে ২৪ বলে ২০ রান।

প্রথম উইকেটের পর দ্বিতীয় উইকেট হারাতে খুব বেশি সময় লাগেনি পাকিস্তানের। দলীয় ৭৩ রানে হার্দিক পান্ডিয়ার লাফিয়ে ওঠা বলে উইকেটের পেছনে কেএল রাহুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ইমাম-উল-হক। ৩৮ বলে ৩৬ রান করেন বাঁহাতি এই ব্যাটার।

অবশ্য, তার বিদায়ের পরই দারুণ এক জুটি গড়ে ভারতকে চাপে ফেলে দুই অভিজ্ঞ ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও বাবর আজম। এই দুজনের ৮৩ রানের জুটিতে বড় সংগ্রহের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে পাকিস্তান। তবে, দলীয় ১৫৫ রানের মাথায় ফের ছন্দপতন। এবার সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক বাবর। সিরাজের নিচু হয়ে যাওয়া বলে বোল্ড হন বাবর। তার ব্যাট থেকে আসে ৫৮ বলে ৫০ রান।

বাবরের বিদায়ের পরই যেন খেই হারায় পাকিস্তান। দ্রুত সময়ের মধ্যেই ফিরে যান রিজওয়ান, শাকিল ও ইফতিখার আহমেদ। এই তিন ব্যাটারকে হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে পাকিস্তান। শেষদিকে লেজের সারির ব্যাটাররাও তেমন কিছু করতে পারেনি। ১৯১ রানে থামে পাকিস্তান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
পাকিস্তান : ৪২.৫ ওভারে ১৯১/১০ (শফিক ২০, ইমাম ৩৬, বাবর ৫০, রিজওয়ান ৪৯, শাকিল ৬, ইফতিখার ৪, শাদাব ২, নেওয়াজ ৪, হাসান ১২, শাহিন ২, হারিস ২; বুমরাহ ৭-১-১৮-২, সিরাজ ৮-০-৫০-২, হার্দিক ৬-০-৩৪-২, কুলদীপ ১০-০-৩৫-২, জাদেজা ৯.৫-০-৩৮-২, শারদুল ২-০-১২-০)

ভারত : ৩০.৩ ওভারে ১৯২/৩ (রোহিত ৮৬, গিল ১৬, কোহলি ১৬, আইয়ার ৫৩*, রাহুল ১৯*; আফ্রিদি ৬-০-৩৬-২, হাসান ৬-০-৩৪-১, নেওয়াজ ৮.৩-০-৪৭-০, হারিস ৬-০-৪৩-০, শাদাব ৪-০-৩১-০)
ফলাফল : ভারত সাত উইকেটে জয়ী