ঢাকা ১০:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পাইকগাছার চাঁদখালীতে ইজারা ছাড়াই অবৈধভাবে উঠানো হচ্ছে টোল : কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে বন্ধ

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:১০:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৫১২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
খুলনার পাইকগাছায় চাঁদখালি ইউনিয়নের চাঁদখালি বাজার সংলগ্ন কপোতাক্ষ নদের খেয়া ঘাট থেকে ইজারা ছাড়াই অবৈধভাবে টোল আদায়ের করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে যেয়ে টোল আদায়ের দৃশ্য দেখা যায়। এ বিষয়ে টোল আদায়কারি কোন কাগজ পত্র দেখাতে পরেনি।
স্হানীয় এলাকাবাসি টোল বন্ধের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরি হস্তক্ষেপ করেছেন। জানা গেছে, কপোতাক্ষ নদ খননের জন্য নদে আড়াআড়ি বাঁধ দেয়া হয়। ঐ বাঁধ দিয়ে আশাশুনি ও পাইকগাছা উপজেলার দুটি হাট-বাজার সহ পর্শ্ববর্তী এলাকার লোকজন চলাফেরা করে। বর্তমানে কপোতাক্ষ নদ খননের কারণে ওই নদের খেয়া ঘাটটি ইজারা বন্ধ করে দেয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তবুও ঐ ঘাটে চলছে টোল আদায়।
এ বিষয়ে টোল আদায়কারি চাঁদখালী ইউনিয়নের কালিদাশপুর গ্রামের মিরাজ সরদারের ছেলে মইনুর সরদার বলেন, আমরা আগে টোল আদায় করতাম সে আনুযায়ী আমরা টোল আদায় করছি। আর টোল আদায়ের বিষয়টি আমরা চাঁদখালী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা কামরুল হাসানকে জানিয়েছি। যদি প্রশাসন বন্ধ করে দেয় তাহলে আমরা আদায় করবো না।
এ বিষয় চাঁদখালী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা কামরুল হাসান জানান, ওই টোল আদায়ের বিষয় আমি কিছুই জানিনা। এ বিষয়ে চাঁদখালী ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ সরদার জানান,বিষয়টি আমরা জানার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে জানাই। বর্তমানে ওই ঘাটে টোল আদায় বন্ধ রয়েছে।
পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহেরা নাজনীন জানান, বিষয়টি আমি জানা মাত্রই টোল আদায় বন্ধ করে দিয়েছি। এর পর যদি কেউ টোল আদায় করে তাহলে তার বিরুদ্ধে  আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

পাইকগাছার চাঁদখালীতে ইজারা ছাড়াই অবৈধভাবে উঠানো হচ্ছে টোল : কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে বন্ধ

আপডেট সময় : ০৪:১০:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
খুলনার পাইকগাছায় চাঁদখালি ইউনিয়নের চাঁদখালি বাজার সংলগ্ন কপোতাক্ষ নদের খেয়া ঘাট থেকে ইজারা ছাড়াই অবৈধভাবে টোল আদায়ের করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে যেয়ে টোল আদায়ের দৃশ্য দেখা যায়। এ বিষয়ে টোল আদায়কারি কোন কাগজ পত্র দেখাতে পরেনি।
স্হানীয় এলাকাবাসি টোল বন্ধের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরি হস্তক্ষেপ করেছেন। জানা গেছে, কপোতাক্ষ নদ খননের জন্য নদে আড়াআড়ি বাঁধ দেয়া হয়। ঐ বাঁধ দিয়ে আশাশুনি ও পাইকগাছা উপজেলার দুটি হাট-বাজার সহ পর্শ্ববর্তী এলাকার লোকজন চলাফেরা করে। বর্তমানে কপোতাক্ষ নদ খননের কারণে ওই নদের খেয়া ঘাটটি ইজারা বন্ধ করে দেয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তবুও ঐ ঘাটে চলছে টোল আদায়।
এ বিষয়ে টোল আদায়কারি চাঁদখালী ইউনিয়নের কালিদাশপুর গ্রামের মিরাজ সরদারের ছেলে মইনুর সরদার বলেন, আমরা আগে টোল আদায় করতাম সে আনুযায়ী আমরা টোল আদায় করছি। আর টোল আদায়ের বিষয়টি আমরা চাঁদখালী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা কামরুল হাসানকে জানিয়েছি। যদি প্রশাসন বন্ধ করে দেয় তাহলে আমরা আদায় করবো না।
এ বিষয় চাঁদখালী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা কামরুল হাসান জানান, ওই টোল আদায়ের বিষয় আমি কিছুই জানিনা। এ বিষয়ে চাঁদখালী ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ সরদার জানান,বিষয়টি আমরা জানার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে জানাই। বর্তমানে ওই ঘাটে টোল আদায় বন্ধ রয়েছে।
পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহেরা নাজনীন জানান, বিষয়টি আমি জানা মাত্রই টোল আদায় বন্ধ করে দিয়েছি। এর পর যদি কেউ টোল আদায় করে তাহলে তার বিরুদ্ধে  আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বাখ//আর