ঢাকা ০১:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পাইকগাছায় তীব্র গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন, বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ

আশরাফুল ইসলাম সবুজ, পাইকগাছা প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:২৯:৪৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪২৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
খুলনার পাইকগাছা উপজেলা জুড়ে তীব্র গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন, বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ। বসন্তের দিন ফুরিয়ে রুক্ষ প্রকৃতিতে এখন কেবলই সূর্যের সীমাহীন উত্তাপ। বৈশাখের পূর্ব থেকেই খরতাপে পুড়ছে সারাদেশ। তীব্র গরমে বিপর্যস্ত জনজীবন। তীব্র অসহনীয় গরমে সবচেয়ে কষ্টে আছেন দিনমজুর খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ। রৌদ্র ও গরমের তীব্রতা এতটাই বেশি যে, বাইরে কাজে বের হয়ে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন।
জীবিকার তাগিদে উপায়ান্ত না পেয়ে তীব্র রোদেই কাজে বের হতে হয় খেটে খাওয়া মানুষদের। দিনমজুর থেকে শুরু করে নিম্ন আয়ের মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে অন্য সবার চেয়ে বেশি।বুধবার উপজেলার শিববাটি ব্রীজ রোড় এলাকার সবুর, মজিদ, কামাল, রবিউলসহ একাধিক ভ্যানচালকরা বলেন, আমাদের মতো গরিবদের আর গরম, মরলে কি? বাঁচলেইবা কি? জীবিকার তাগিদে রাস্তায় বের হতেই হয়।এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ভ্যানচালক ও দিনমজুর সহ নিম্ন আয়ের মানুষদের মন্তব্য প্রায় একই। এদিকে বৈশাখের ২য়, ৩য় ও ৪র্থ দিনে সোমবার-মঙ্গলবার-বুধবার তীব্র গরমে নাজেহাল পাইকগাছা উপজেলাবাসি।
গত কয়েক দিন ধরেই পুড়ছে জনজীবন। গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা মানুষের। দিনে তীব্র গরমের পর রাতেও নেই স্বস্তি। এদিকে খুলনা আবহাওয়া অফিস সূত্র জানিয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে তাপমাত্রার পরিবর্তন ঘটে। আগের মতো বড় বড় গাছ নেই, পুকুর নেই, খাল নেই।
এসব কারণে বাতাসের সঙ্গে ময়েশ্চার বহন করে না, সবকিছু শুষ্ক হয়ে যাওয়ায় গরমের তীব্রতা বাড়ছে। অপরদিকে গরমে পানিশূন্যতাসহ নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। হঠাৎ গরম বেড়ে যাওয়ায় পেশাজীবী, শ্রমজীবী মানুষ, বিশেষ করে ভ্যানচালকদের অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তীব্র গরমে পানিশূন্যতা কিংবা হিটস্ট্রোক এড়াতে একটানা কাজ না করে বিশ্রাম নিয়ে কাজ করতে হবে বলে জানিয়েছেন পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নীতিশ চন্দ্র গোলদারসহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অন্যান্য চিকিৎসকরা।
বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

পাইকগাছায় তীব্র গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন, বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ

আপডেট সময় : ০৪:২৯:৪৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
খুলনার পাইকগাছা উপজেলা জুড়ে তীব্র গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন, বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ। বসন্তের দিন ফুরিয়ে রুক্ষ প্রকৃতিতে এখন কেবলই সূর্যের সীমাহীন উত্তাপ। বৈশাখের পূর্ব থেকেই খরতাপে পুড়ছে সারাদেশ। তীব্র গরমে বিপর্যস্ত জনজীবন। তীব্র অসহনীয় গরমে সবচেয়ে কষ্টে আছেন দিনমজুর খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ। রৌদ্র ও গরমের তীব্রতা এতটাই বেশি যে, বাইরে কাজে বের হয়ে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন।
জীবিকার তাগিদে উপায়ান্ত না পেয়ে তীব্র রোদেই কাজে বের হতে হয় খেটে খাওয়া মানুষদের। দিনমজুর থেকে শুরু করে নিম্ন আয়ের মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে অন্য সবার চেয়ে বেশি।বুধবার উপজেলার শিববাটি ব্রীজ রোড় এলাকার সবুর, মজিদ, কামাল, রবিউলসহ একাধিক ভ্যানচালকরা বলেন, আমাদের মতো গরিবদের আর গরম, মরলে কি? বাঁচলেইবা কি? জীবিকার তাগিদে রাস্তায় বের হতেই হয়।এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ভ্যানচালক ও দিনমজুর সহ নিম্ন আয়ের মানুষদের মন্তব্য প্রায় একই। এদিকে বৈশাখের ২য়, ৩য় ও ৪র্থ দিনে সোমবার-মঙ্গলবার-বুধবার তীব্র গরমে নাজেহাল পাইকগাছা উপজেলাবাসি।
গত কয়েক দিন ধরেই পুড়ছে জনজীবন। গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা মানুষের। দিনে তীব্র গরমের পর রাতেও নেই স্বস্তি। এদিকে খুলনা আবহাওয়া অফিস সূত্র জানিয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে তাপমাত্রার পরিবর্তন ঘটে। আগের মতো বড় বড় গাছ নেই, পুকুর নেই, খাল নেই।
এসব কারণে বাতাসের সঙ্গে ময়েশ্চার বহন করে না, সবকিছু শুষ্ক হয়ে যাওয়ায় গরমের তীব্রতা বাড়ছে। অপরদিকে গরমে পানিশূন্যতাসহ নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। হঠাৎ গরম বেড়ে যাওয়ায় পেশাজীবী, শ্রমজীবী মানুষ, বিশেষ করে ভ্যানচালকদের অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তীব্র গরমে পানিশূন্যতা কিংবা হিটস্ট্রোক এড়াতে একটানা কাজ না করে বিশ্রাম নিয়ে কাজ করতে হবে বলে জানিয়েছেন পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নীতিশ চন্দ্র গোলদারসহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অন্যান্য চিকিৎসকরা।
বাখ//আর