ঢাকা ০৭:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পাইকগাছায় উপজেলা নির্বাচনে প্রচারনায় শীর্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ 

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৩:৩১:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৯৬৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
আসন্ন খুলনার পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের নির্বাচনকে সামনে রেখে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা ইতিমধ্যে নিজ নিজ এলাকায় ভোটাদের সমর্থন ও ভালবাসা পেতে সমাজের বিভিন্ন জনসাধারণের সাথে মতবিনিময় শুরু করেছেন। পাইকগাছা উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে রাস্তার মোড়ে, চায়ের দোকানে একটাই বিষয় কে হতে যাচ্ছে পরবর্তী উপজেলা চেয়ারম্যান। এছাড়াও নির্বাচন উপলক্ষে দোয়া প্রার্থী ব্যানার লাগিয়ে শুরু করেছেন নির্বাচনী প্রচারণা। এরই ধারাবাহিকতায় পাইকগাছা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসাবে প্রচার-প্রচারনায় শীর্ষে রয়েছেন খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি,পাইকগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের  সাবেক সভাপতি ও পাইকগাছা আইনজীবি সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ।
পাইকগাছা উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের দোয়া ও ভালবাসা নিয়ে তিনি প্রার্থী হয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালনকারী, সৎ, সাহসী, নীতি ও আদর্শবান বঙ্গবন্ধুর এক লড়াকু সৈনিক, সদা হাস্যউজ্জ্বল, বিশিষ্ট আইনজীবি এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ। উপজেলার প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রকৃত অর্থে উন্নত, আধুনিক, শান্তি – সমৃদ্ধির আবাসস্থল হিসাবে গড়ে তুলতে তার রয়েছে দৃঢ় অঙ্গীকার ।
বৃহস্পতিবার এ প্রতিনিধির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে  নতুন প্রজন্মের আইকন, তারুণ্যের অহংকার খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, পাইকগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ বলেন, মানুষের শাসক নয়, সেবক হতে চায়। জনগণের কল্যাণে কাজ করতে চাই । ভবিষ্যতেও সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে চাই এবং সকলের প্রতি যতটুকু সম্ভব সাহায্যে সহযোগিতা করার জন্য আমার প্রচেষ্টার কোন কমতি নেই। তিনি আরো বলেন, ব্যক্তি উদ্যেগে মানুষের কল্যাণে সবসময় কাজ করা সম্ভব। সর্বাত্মকভাবে সমাজের সেবা করতে হলে জনপ্রতিনিধি হওয়ার বিকল্প নাই । বিশেষ করে সরকারী অনুদান তৃণমূলের সর্বস্তরের মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে সমাজের সামগ্রিক কল্যাণ সাধন করা সম্ভব হয়।
তাই আসন্ন পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে জনপ্রতিনিধি হওয়ার প্রত্যাশা নিয়ে আমি এলাকায় কাজ করছি। আমার প্রতিটি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডকে , চাঁদাবাজ,মাদক, কিশোর গ্যাং, ভূমিদস্যু, সালিশ বানিজ্য, যৌতুক, বাল্য বিবাহ, নারী নির্যাতন, ইভটিজিং মুক্ত, সমাজ গঠনের লক্ষে,পাইকগাছা উপজেলা পরিষদকে একটি দৃষ্টিনন্দন আধুনিক উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলতে সকলের সহযোগিতা ও সর্বস্তরের জনগণের দোয়া, আর্শীবাদ ও সমর্থন চাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পাইকগাছায় উপজেলা নির্বাচনে প্রচারনায় শীর্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ 

আপডেট সময় : ০৩:৩১:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
আসন্ন খুলনার পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের নির্বাচনকে সামনে রেখে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা ইতিমধ্যে নিজ নিজ এলাকায় ভোটাদের সমর্থন ও ভালবাসা পেতে সমাজের বিভিন্ন জনসাধারণের সাথে মতবিনিময় শুরু করেছেন। পাইকগাছা উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে রাস্তার মোড়ে, চায়ের দোকানে একটাই বিষয় কে হতে যাচ্ছে পরবর্তী উপজেলা চেয়ারম্যান। এছাড়াও নির্বাচন উপলক্ষে দোয়া প্রার্থী ব্যানার লাগিয়ে শুরু করেছেন নির্বাচনী প্রচারণা। এরই ধারাবাহিকতায় পাইকগাছা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসাবে প্রচার-প্রচারনায় শীর্ষে রয়েছেন খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি,পাইকগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের  সাবেক সভাপতি ও পাইকগাছা আইনজীবি সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ।
পাইকগাছা উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের দোয়া ও ভালবাসা নিয়ে তিনি প্রার্থী হয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালনকারী, সৎ, সাহসী, নীতি ও আদর্শবান বঙ্গবন্ধুর এক লড়াকু সৈনিক, সদা হাস্যউজ্জ্বল, বিশিষ্ট আইনজীবি এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ। উপজেলার প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রকৃত অর্থে উন্নত, আধুনিক, শান্তি – সমৃদ্ধির আবাসস্থল হিসাবে গড়ে তুলতে তার রয়েছে দৃঢ় অঙ্গীকার ।
বৃহস্পতিবার এ প্রতিনিধির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে  নতুন প্রজন্মের আইকন, তারুণ্যের অহংকার খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, পাইকগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এ্যাড.শেখ আবুল কালাম আজাদ বলেন, মানুষের শাসক নয়, সেবক হতে চায়। জনগণের কল্যাণে কাজ করতে চাই । ভবিষ্যতেও সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে চাই এবং সকলের প্রতি যতটুকু সম্ভব সাহায্যে সহযোগিতা করার জন্য আমার প্রচেষ্টার কোন কমতি নেই। তিনি আরো বলেন, ব্যক্তি উদ্যেগে মানুষের কল্যাণে সবসময় কাজ করা সম্ভব। সর্বাত্মকভাবে সমাজের সেবা করতে হলে জনপ্রতিনিধি হওয়ার বিকল্প নাই । বিশেষ করে সরকারী অনুদান তৃণমূলের সর্বস্তরের মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে সমাজের সামগ্রিক কল্যাণ সাধন করা সম্ভব হয়।
তাই আসন্ন পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে জনপ্রতিনিধি হওয়ার প্রত্যাশা নিয়ে আমি এলাকায় কাজ করছি। আমার প্রতিটি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডকে , চাঁদাবাজ,মাদক, কিশোর গ্যাং, ভূমিদস্যু, সালিশ বানিজ্য, যৌতুক, বাল্য বিবাহ, নারী নির্যাতন, ইভটিজিং মুক্ত, সমাজ গঠনের লক্ষে,পাইকগাছা উপজেলা পরিষদকে একটি দৃষ্টিনন্দন আধুনিক উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলতে সকলের সহযোগিতা ও সর্বস্তরের জনগণের দোয়া, আর্শীবাদ ও সমর্থন চাই।