ঢাকা ১২:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পরকীয়ার জেরে মসজিদের ইমাম ছাত্রীসহ আপত্তিকর অবস্থায় আটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১৭:০৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • / ৫০৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পরকীয়ার জেরে এবার মসজিদের ইমাম তার ছাত্রী এক গৃহবধুর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়েছে। এ সময় বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী তাদের গাছের সাথে বেঁধে মাথার চুল কেটে দেয় ও গলায় কাঁচের বোতল ঝুলিয়ে গ্রামের ভেতর ঘুরায়। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ তাদেরসহ অপর আরও ২ জনকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। চাঞ্চল্যকর ও ন্যাক্কারজনক এ ঘটনাটি শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে ঘটেছে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের টেটিয়ারকান্দা গ্রামে।

এলাকাবাসী জানায়, কোরআন শেখানোর সুবাদে যুগনীদহ গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে হাফেজ আব্দুল হান্নান আনছার আলীর বাড়িতে ওঠাবসা করতো। সেই সুবাদে আনছার আলীর মেয়ে আনিজা খাতুনের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে ইমাম হাফেজ আব্দুল হান্নান। আনিজার স্বামী জামাল হোসেন ঢাকায় কাজ করায় হাফেজ আব্দুল হান্নান মাঝে মধ্যেই গভীর রাতে অনিজাদের বাড়িতে লুকিয়ে গিয়ে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হতো। এক পর্যায়ে, শনিবার গভীর রাতে আনছার আলীর বাড়িতে আনিজা ও নারায়নদহ মসজিদের ইমাম হাফেজ আব্দুল হান্নানকে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে নরিনা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার হেলাল জানান, এলাকাবাসী মসজিদের ইমাম হাফেজ আব্দুল হান্নান ও আনিজা খাতুনকে আপত্তিকর অবস্থায় ধরে গাছের সাথে বেঁধে রেখে মাথার চুল কেটে দিয়ে গলায় বোতল ঝুলিয়ে এলাকার রাস্তা দিয়ে ঘুরায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মসজিদের ইমাম, আনিজা খাতুনসহ মোট চারজনকে থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন এন্ড কমিউনিটি পুলিশিং) আব্দুল মজিদ জানান, মসজিদের ইমাম ও গৃহবধুকে চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পরকীয়ার জেরে মসজিদের ইমাম ছাত্রীসহ আপত্তিকর অবস্থায় আটক

আপডেট সময় : ০৬:১৭:০৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

পরকীয়ার জেরে এবার মসজিদের ইমাম তার ছাত্রী এক গৃহবধুর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়েছে। এ সময় বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী তাদের গাছের সাথে বেঁধে মাথার চুল কেটে দেয় ও গলায় কাঁচের বোতল ঝুলিয়ে গ্রামের ভেতর ঘুরায়। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ তাদেরসহ অপর আরও ২ জনকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। চাঞ্চল্যকর ও ন্যাক্কারজনক এ ঘটনাটি শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে ঘটেছে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার নরিনা ইউনিয়নের টেটিয়ারকান্দা গ্রামে।

এলাকাবাসী জানায়, কোরআন শেখানোর সুবাদে যুগনীদহ গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে হাফেজ আব্দুল হান্নান আনছার আলীর বাড়িতে ওঠাবসা করতো। সেই সুবাদে আনছার আলীর মেয়ে আনিজা খাতুনের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে ইমাম হাফেজ আব্দুল হান্নান। আনিজার স্বামী জামাল হোসেন ঢাকায় কাজ করায় হাফেজ আব্দুল হান্নান মাঝে মধ্যেই গভীর রাতে অনিজাদের বাড়িতে লুকিয়ে গিয়ে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হতো। এক পর্যায়ে, শনিবার গভীর রাতে আনছার আলীর বাড়িতে আনিজা ও নারায়নদহ মসজিদের ইমাম হাফেজ আব্দুল হান্নানকে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে নরিনা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার হেলাল জানান, এলাকাবাসী মসজিদের ইমাম হাফেজ আব্দুল হান্নান ও আনিজা খাতুনকে আপত্তিকর অবস্থায় ধরে গাছের সাথে বেঁধে রেখে মাথার চুল কেটে দিয়ে গলায় বোতল ঝুলিয়ে এলাকার রাস্তা দিয়ে ঘুরায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মসজিদের ইমাম, আনিজা খাতুনসহ মোট চারজনকে থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন এন্ড কমিউনিটি পুলিশিং) আব্দুল মজিদ জানান, মসজিদের ইমাম ও গৃহবধুকে চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।