সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
আমি বৈবাহিক ধর্ষণের শিকার : বাঁধন বিদেশি লবিস্টদের পরামর্শে ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ভারতের বিপক্ষে জয়ে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন এই পারফরম্যান্স আমার জন্য সত্যিই স্মরণীয়: মিরাজ নাইজেরিয়ায় মসজিদে বন্দুক হামলা, ইমামসহ নিহত ১২ এম্বাপ্পের জাদুতে কোয়ার্টার ফাইনালে ফ্রান্স মশক নিধন কার্যক্রমে কর্মীদের অবহেলা পেলে কঠোর ব্যবস্থা : মেয়র আতিক নেছারাবাদ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ভারতের বিপক্ষে জয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে রাসিক মেয়রের অভিনন্দন ১০ তারিখে বিএনপি পাকিস্তানিদের মতোই আত্মসমর্পণ করবে: তথ্যমন্ত্রী রাজশাহীতে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ মনি’র জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত আজ অব্দি শাকিব খানের কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা নিইনি: বুবলী রাজশাহীতে লোকাল গর্ভনমেন্ট কোভিড-১৯ রিসপন্স এন্ড রিকভারি প্রজেক্ট বাস্তবায়ন ভিত্তিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত রাসিক মেয়রের সাথে লোকাল গভর্নমেন্ট কোভিড-১৯ রিসপন্স এন্ড রিকভারি প্রজেক্টের প্রতিনিধিদের সৌজন্য সাক্ষাৎ মিরাজের বীরত্বে রুদ্ধশ্বাস জয় বাংলাদেশের

নেভাদায় জিতে ডেমোক্র্যাটদের হাতেই সিনেটের নিয়ন্ত্রণ

নেভাদায় জিতে ডেমোক্র্যাটদের হাতেই সিনেটের নিয়ন্ত্রণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
মধ্যবর্তী নির্বাচনে যুক্তরাষ্ট্রের নেভাদা অঙ্গরাজ্যে জয়ী হয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী ক্যাথরিন কর্টেজ মাস্তো। এর মধ্য দিয়ে গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হওয়া মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচনে কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখল ডেমোক্রেটরা।

অবশ্য মধ্যবর্তী নির্বাচনের আগাম ফলাফলে মার্কিন কংগ্রেসের উভয় কক্ষে রিপাবলিকানদের জয়ের ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন অনেকে। তবে সেসব ভবিষ্যদ্বাণীকে ভুল প্রমাণ করল বাইডেনের দল। রোববার (১৩ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি এবং সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনগুলোতে ঐতিহ্যগতভাবে ক্ষমতায় থাকা দলের বিরুদ্ধে ভোট দিয়ে থাকেন মার্কিন নাগরিকরা। মূলত মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধি এবং বাইডেনের জনপ্রিয়তা কমে যাওয়াকে কেন্দ্র করে সর্বশেষ মধ্যবর্তী নির্বাচনে সিনেট ও প্রতিনিধি পরিষদ দখল করার প্রত্যাশা করেছিল রিপাবলিকানরা।

বিবিসি বলছে, ডেমোক্র্যাটিক পার্টি নেভাদায় একটি গুরুত্বপূর্ণ লড়াইয়ে জেতার পর মার্কিন সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ নিয়ন্ত্রণ এখন এই দলটির হাতেই বজায় থাকবে। মূলত নেভাদায় ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী ক্যাথরিন কর্টেজ মাস্টো জয় পেয়েছেন। তিনি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থিত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অ্যাডাম ল্যাক্সাল্টকে পরাজিত করেন।

এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটের নিয়ন্ত্রণ ডেমোক্র্যাটদের হাতেই থাকলো। তবে এটি এখনও স্পষ্ট নয় যে, হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভ কাদের দখলে।

যদিও শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জানা যায় রিপাবলিকানরা এগিয়ে রয়েছে। শেষ কয়েক শতাংশ ভোট গণনার আগ পর্যন্ত রিপাবলিকান অ্যাডাম পল ল্যাকসল্টই এগিয়ে ছিলেন, কিন্তু নেভাডার সবচেয়ে বড় এলাকা ক্লার্ক কাউন্টির সর্বশেষ ব্যাচের ব্যালট মাস্তোকে এগিয়ে দেয়।

সর্বশেষ ব্যাচে যে ২৩ হাজার ২০০ ব্যালট গণনা হয়, তাতে ডেমোক্র্যাট মাস্তো পান ১৪ হাজার ১০০টি ভোট, ল্যাকসল্ট ব্যাগে ভরতে পারেন কেবল ৮ হাজার ২০০ জনের সমর্থন।

এই ব্যালটের আগে ল্যাকসল্ট ৮০০-র কাছাকাছি ভোটে মাস্তোর চেয়ে এগিয়ে ছিলেন। অ্যারিজোনায় আগের দিন সেনেটর মার্ক কেলির জয়ের পর থেকে সবারই চোখ ছিল নেভাডার দিকে।

এখানে জেতায় মার্কিন কংগ্রেসের উচ্চকক্ষের ১০০ আসনের ৫০টিই এখন ডেমোক্র্যাটদের হাতে থাকল, রিপাবলিকানদের হল ৪৯টি।

৬ ডিসেম্বর জর্জিয়ার ‘রান অফ’ ভোটে রিপাবলিকানরা জিতলেও সেনেট ডেমোক্র্যাটদের হাতছাড়া হবে না। সেক্ষেত্রে উচ্চকক্ষ ৫০-৫০ এ ভাগ হয়ে গেলেও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের ‘টাই-ব্রেকিং ভোটের’ সুবিধা নিয়ে ডেমোক্র্যাটরাই সেনেটে কর্তৃত্ব করতে পারবে।

এই ফল প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনকে বেশ স্বস্তি দেবে বলেই মনে করা হচ্ছে। মধ্যবর্তী নির্বাচনের আগে টানা কয়েক মাসের জনমত জরিপ তার জনপ্রিয়তা কমার ইঙ্গিত দিচ্ছিল।

এদিকে ভোটের পর চারদিন পেরিয়ে গেলেও কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ কার দখলে যাবে তা নির্ধারিত হয়নি। রিপাবলিকানরা এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আসন পেলেও ‘ম্যাজিক নাম্বার’ ২১৮ নিশ্চিত করতে পারেনি।

এখন যেসব প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ আসনে গণনা চলছে, সেগুলোর বেশিরভাগই ক্যালিফোর্নিয়ায় হওয়ায় নিম্নকক্ষের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখার ব্যাপারেও আশা ছাড়ছে না ডেমোক্র্যাটরা।

সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, ৪৩৫ আসনের প্রতিনিধি পরিষদের ২১১টি রিপাবলিকানদের বাক্সে আর ২০৪টি ডেমোক্র্যাটদের দখলে গেছে বলে জানায় সিএনএন। এখনও আরও ২০টি আসনের ফল ঘোষণা বাকি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ক্ষমতার ভারসাম্য বজায় রাখতে লাখ লাখ আমেরিকান ভোট দেন তাদের পছন্দের প্রার্থীদের। শেষ মুহূর্তে ভোটারদের চাঙা করতে চূড়ান্ত প্রচারাভিযানেও অংশ নেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *