ঢাকা ১২:৫৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

নাম পাল্টিয়ে ফুলবাড়ীর কয়লা সম্পদ দেখিয়ে সারা বিশ্বে শেয়ার বিক্রি করছে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ

মোঃ আবু শহীদ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১১:৪৬:১৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪২৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেছেন, গণমানুষের অধিকার বাস্তবায়ন হলেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন হবে। ফুলবাড়ী রক্ষার আন্দোলন গণমানুষের মুক্তির আন্দোলন। এ আন্দোলনে যারা যুক্ত ছিল, তারা সকলে গণমানুষের মুক্তি সংগ্রামের সৈনিক।

লুটেরা এশিয়া এনার্জি ফুলবাড়ী থেকে বিতাড়িত হলেও খোলস পাল্টিয়ে ভিন্ন নামে ফুলবাড়ী কয়লা সম্পদ দেখিয়ে শেয়ার বিত্রি করছে।

শনিবার দুপুরে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে জেলা পরিষদ ডাক বাংলা চত্তরে, তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার আয়োজনে ফুলবাড়ী রক্ষা আন্দোলনের প্রায়াত সংগঠকদের স্মরণে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার নামে যে সমস্ত কর্মকান্ড হচ্ছে, তা মুক্তিযুদ্ধের চেনার পরিপন্থি, স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও দেশের অধিকাংশ নাগরিক বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু বরণ করছে। চিকিৎসার খরচ যোটাতে পারছেনা, চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে হচ্ছে, মানুষের অধিকারের জন্য কথা বলতে পারছেনা, এ জন্য লাখ লাখ মানুষ জিবন দিয়ে দেশ স্বাধীন করেনি।

তিনি বলেন, রাস্তা-ঘাট আর উড়াল রাস্তা নির্মাণ করলেই মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়না। স্বাধীনতার চেতনা ছিল, মানুষ তার অধিকার নিয়ে বাঁচতে পারবে, তার অধিকারের প্রশ্নে রাস্তায় প্রতিবাদ করবে, দেশের মানুষ শিক্ষা, চিকিৎসা ও নিরাপত্তা পাবে, আজ স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও মানুষের নিরাপত্তা নাই, চিকিৎসা নাই, শিক্ষা নাই, শিক্ষা ও চিকিৎসা নিতে যে পরিমান ব্যয় হয়, তা দেশের ৮০ ভাগ মানুষ বহন করতে পারেনা। তিনি আগামী দিনে ফুলবাড়ীসহ সারা দেশের জাতীয় সম্পদ ও খনিজ সম্পদ রক্ষার আন্দোলকে বেগবান করতে সকলকে প্রস্তুত থাকার আহবান জানান।

স্মরণ সভায় তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার আহবায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল এর সভাপতিত্বে বিশেষ অথিতি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তেল গ্যাস খানজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির কেন্দ্রিয় নেতা, ইউনাইটেট কমিনিউস্ট লীগের সম্বনয়ক মোশারফ হোসেন নান্নু, সিপিবি দিনাজপুর জেলা শাখার সম্পাদক এ্যাডঃ মেহেরুল ইসলাম, তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি দিনাজপুর জেলা শাখার সদস্য সচিব আলতাব হোসেন, ফুলবাড়ী শাখার সদস্য সচিব জয় প্রকাশ নারায়ন, অন্যতম সংগঠক এম এ কায়ুম, ইউনাইটেট কমিনিউস্ট লীগের সম্পাদক সঞ্জিব প্রসাদ জিতু, ওয়াকার্স পাটির সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিকদার, সিপিবি ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক এসএম নুরুজ্জামান, গণফ্রন্ডের ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক সামিউল ইসলাম চৌধুরী। এ সময় প্রায়াত নেতাদের সজনরা স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন। পরে সেখানে তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সকল সদস্যদের নিয়ে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য ২০০৬ সালে ২৬ আগষ্ট উম্মুক্ত পদ্ধতিতে ফুলবাড়ী কয়লা খনি বাস্তবায়নের বিরুদ্ধে যে গণ আন্দোলন সংগঠিত হয়েছিল সেই আন্দোলনের সম্মুখ থেকে নেতৃত্ব দেয়া নেতা-কর্মিরা যারা বিভিন্ন কারনে মৃত্যু বরণ করেছেন, তাদের স্মরণে এই স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

নাম পাল্টিয়ে ফুলবাড়ীর কয়লা সম্পদ দেখিয়ে সারা বিশ্বে শেয়ার বিক্রি করছে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ

আপডেট সময় : ১১:৪৬:১৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেছেন, গণমানুষের অধিকার বাস্তবায়ন হলেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন হবে। ফুলবাড়ী রক্ষার আন্দোলন গণমানুষের মুক্তির আন্দোলন। এ আন্দোলনে যারা যুক্ত ছিল, তারা সকলে গণমানুষের মুক্তি সংগ্রামের সৈনিক।

লুটেরা এশিয়া এনার্জি ফুলবাড়ী থেকে বিতাড়িত হলেও খোলস পাল্টিয়ে ভিন্ন নামে ফুলবাড়ী কয়লা সম্পদ দেখিয়ে শেয়ার বিত্রি করছে।

শনিবার দুপুরে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে জেলা পরিষদ ডাক বাংলা চত্তরে, তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার আয়োজনে ফুলবাড়ী রক্ষা আন্দোলনের প্রায়াত সংগঠকদের স্মরণে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার নামে যে সমস্ত কর্মকান্ড হচ্ছে, তা মুক্তিযুদ্ধের চেনার পরিপন্থি, স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও দেশের অধিকাংশ নাগরিক বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু বরণ করছে। চিকিৎসার খরচ যোটাতে পারছেনা, চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে হচ্ছে, মানুষের অধিকারের জন্য কথা বলতে পারছেনা, এ জন্য লাখ লাখ মানুষ জিবন দিয়ে দেশ স্বাধীন করেনি।

তিনি বলেন, রাস্তা-ঘাট আর উড়াল রাস্তা নির্মাণ করলেই মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়না। স্বাধীনতার চেতনা ছিল, মানুষ তার অধিকার নিয়ে বাঁচতে পারবে, তার অধিকারের প্রশ্নে রাস্তায় প্রতিবাদ করবে, দেশের মানুষ শিক্ষা, চিকিৎসা ও নিরাপত্তা পাবে, আজ স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও মানুষের নিরাপত্তা নাই, চিকিৎসা নাই, শিক্ষা নাই, শিক্ষা ও চিকিৎসা নিতে যে পরিমান ব্যয় হয়, তা দেশের ৮০ ভাগ মানুষ বহন করতে পারেনা। তিনি আগামী দিনে ফুলবাড়ীসহ সারা দেশের জাতীয় সম্পদ ও খনিজ সম্পদ রক্ষার আন্দোলকে বেগবান করতে সকলকে প্রস্তুত থাকার আহবান জানান।

স্মরণ সভায় তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার আহবায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল এর সভাপতিত্বে বিশেষ অথিতি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তেল গ্যাস খানজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির কেন্দ্রিয় নেতা, ইউনাইটেট কমিনিউস্ট লীগের সম্বনয়ক মোশারফ হোসেন নান্নু, সিপিবি দিনাজপুর জেলা শাখার সম্পাদক এ্যাডঃ মেহেরুল ইসলাম, তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি দিনাজপুর জেলা শাখার সদস্য সচিব আলতাব হোসেন, ফুলবাড়ী শাখার সদস্য সচিব জয় প্রকাশ নারায়ন, অন্যতম সংগঠক এম এ কায়ুম, ইউনাইটেট কমিনিউস্ট লীগের সম্পাদক সঞ্জিব প্রসাদ জিতু, ওয়াকার্স পাটির সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিকদার, সিপিবি ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক এসএম নুরুজ্জামান, গণফ্রন্ডের ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক সামিউল ইসলাম চৌধুরী। এ সময় প্রায়াত নেতাদের সজনরা স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন। পরে সেখানে তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সকল সদস্যদের নিয়ে বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য ২০০৬ সালে ২৬ আগষ্ট উম্মুক্ত পদ্ধতিতে ফুলবাড়ী কয়লা খনি বাস্তবায়নের বিরুদ্ধে যে গণ আন্দোলন সংগঠিত হয়েছিল সেই আন্দোলনের সম্মুখ থেকে নেতৃত্ব দেয়া নেতা-কর্মিরা যারা বিভিন্ন কারনে মৃত্যু বরণ করেছেন, তাদের স্মরণে এই স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

বাখ//আর