ঢাকা ০৯:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

নয়াপল্টনেই সমাবেশ, সরকারকে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে : আমান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:২৫:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ৪৪৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
বিএনপি আগামী ১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনেই সমাবেশ করবে জানিয়ে সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দলটির ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে ঢাকা মহানগর বিএনপি কার্যালয়ের ভাসানী মিলনায়তনে মহানগর উত্তর মহিলা দলের অধীন পল্লবী, রূপনগর, বাড্ডা, ভাটারা, মোহাম্মদপুর ও আদাবর থানার কর্মিসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

আমান বলেন, অতীতে নয়াপল্টনে শান্তিপূর্ণভাবে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ হয়েছে, বিভিন্ন প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে, অন্য কর্মসূচিও হয়েছে। সুতরাং আগামী ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশও নয়াপল্টনেই হবে, সমাবেশের জন‍্য নয়াপল্টন চেয়ে আমরা চিঠিও দিয়েছে। এখন নয়াপল্টনে আমরা যাতে নির্বিঘ্নে সমাবেশ করতে পারি, তার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতিনিয়ত কর্মসূচি পালন করছে, রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ করছে; অথচ আমরা আমাদের দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করতে পারব না—এ রকম দুই নিয়ম চলতে পারে না।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সরকারের অনুমতি প্রসঙ্গে বিএনপির এই নেতা বলেন, সরকার মূলত অসৎ উদ্দেশ্যে বিএনপির নেতাকর্মীকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নিয়ে যেতে চায়। কিন্তু আমরা সরকারের সেই ফাঁদে পা দেব না। ১০ ডিসেম্বর ঢাকা হবে মিছিলের নগরী, জনতার শহর। শেখ হাসিনার পক্ষে সমাবেশ ঠেকানো সম্ভব হবে না।

আমান বলেন, ঢাকার সমাবেশ বাধাগ্রস্ত করতে পুলিশি অভিযান শুরু হয়েছে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে নেতাকর্মীকে হয়রানি করা হচ্ছে, গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, আদালত প্রাঙ্গণ থেকেও গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। কিন্তু কতজনকে গ্রেপ্তার করবেন? হাজার-লক্ষ নয়, কোটি কোটি মানুষ রাস্তায় বেরিয়ে আসবে। সুতরাং গ্রেপ্তার-হয়রানি করে সমাবেশকে ঠেকানো যাবে না।

সর্বশেষ আমান মহিলা দলের নেতাকর্মীদের সরকারের পতন ছাড়া ঘরে না ফেরার শপথ করান।

ঢাকা মহানগর উত্তর মহিলা দলের আহ্বায়ক নায়াব ইউসুফের সভাপতিত্বে কর্মিসভায় আরও বক্তব্য দেন মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, মহিলা দলের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব রুনা লায়লা রুনা প্রমুখ নেতা।

নিউজটি শেয়ার করুন

নয়াপল্টনেই সমাবেশ, সরকারকে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে : আমান

আপডেট সময় : ০৪:২৫:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
বিএনপি আগামী ১০ ডিসেম্বর নয়াপল্টনেই সমাবেশ করবে জানিয়ে সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দলটির ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে ঢাকা মহানগর বিএনপি কার্যালয়ের ভাসানী মিলনায়তনে মহানগর উত্তর মহিলা দলের অধীন পল্লবী, রূপনগর, বাড্ডা, ভাটারা, মোহাম্মদপুর ও আদাবর থানার কর্মিসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

আমান বলেন, অতীতে নয়াপল্টনে শান্তিপূর্ণভাবে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ হয়েছে, বিভিন্ন প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে, অন্য কর্মসূচিও হয়েছে। সুতরাং আগামী ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশও নয়াপল্টনেই হবে, সমাবেশের জন‍্য নয়াপল্টন চেয়ে আমরা চিঠিও দিয়েছে। এখন নয়াপল্টনে আমরা যাতে নির্বিঘ্নে সমাবেশ করতে পারি, তার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতিনিয়ত কর্মসূচি পালন করছে, রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ করছে; অথচ আমরা আমাদের দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করতে পারব না—এ রকম দুই নিয়ম চলতে পারে না।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সরকারের অনুমতি প্রসঙ্গে বিএনপির এই নেতা বলেন, সরকার মূলত অসৎ উদ্দেশ্যে বিএনপির নেতাকর্মীকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নিয়ে যেতে চায়। কিন্তু আমরা সরকারের সেই ফাঁদে পা দেব না। ১০ ডিসেম্বর ঢাকা হবে মিছিলের নগরী, জনতার শহর। শেখ হাসিনার পক্ষে সমাবেশ ঠেকানো সম্ভব হবে না।

আমান বলেন, ঢাকার সমাবেশ বাধাগ্রস্ত করতে পুলিশি অভিযান শুরু হয়েছে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে নেতাকর্মীকে হয়রানি করা হচ্ছে, গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, আদালত প্রাঙ্গণ থেকেও গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। কিন্তু কতজনকে গ্রেপ্তার করবেন? হাজার-লক্ষ নয়, কোটি কোটি মানুষ রাস্তায় বেরিয়ে আসবে। সুতরাং গ্রেপ্তার-হয়রানি করে সমাবেশকে ঠেকানো যাবে না।

সর্বশেষ আমান মহিলা দলের নেতাকর্মীদের সরকারের পতন ছাড়া ঘরে না ফেরার শপথ করান।

ঢাকা মহানগর উত্তর মহিলা দলের আহ্বায়ক নায়াব ইউসুফের সভাপতিত্বে কর্মিসভায় আরও বক্তব্য দেন মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, মহিলা দলের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব রুনা লায়লা রুনা প্রমুখ নেতা।