ঢাকা ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:১৯:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৪৪ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

বঙ্গোপসাগরের আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ সংলগ্ন সমুদ্র এলাকায় একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। এটি আরো ঘণীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ে রূপ নিতে পারে। বিষয়টি আজ শুক্রবারের (২১ অক্টোবর) মধ্যেই নিশ্চিত হওয়া যাবে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী পরিচালতি জয়েন টাইফুন ওয়ার্নিং সেন্টারের তথ্যমতে, আন্দামান ও নিকোবর সমুদ্র এলাকায় সৃষ্ট নিম্নচাপটির ‘ইনভেস্ট ৯২বি’ নামকরণ করা হয়েছে যেটি এক দিনের ব্যবধানে আরও শক্তিশালী হয়েছে। নিম্নচাপটির কেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২২ থেকে ২৮ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠছে। এটি ঘণ্টায় ৬৩ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠলে নিন্মচাপটি ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ে রূপ নেবে। এছাড়া ঘূর্ণিঝড়টি ঘণ্টায় ১৫ কিলোমিটার বেগে উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হচ্ছে।

গত বুধবার (১৯ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেল গ্লোবাল ফোরকাস্ট সিস্টেম (জিএফএস) এক পূর্বাভাসে জানায়, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি আগামী ২১ অক্টোবরের মধ্যে নিম্নচাপে রূপ নিতে পারে; যেটি ২২ থেকে ২৩ অক্টোবরের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের শক্তি অর্জনের প্রবল আশঙ্কা রয়েছে এবং ২৫ অক্টোবরের মধ্যে উপকূলে আঘাত হানতে পারে।

পূর্বাভাসে বলা হয়, খুলনা বিভাগে আঘাত হানার সময় ঘূর্ণিঝড়টির গতিবেগ ঘণ্টায় ১০০ থেকে ১৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠতে পারে। তবে ঘূর্ণিঝড়টি যদি কিছুটা পূর্বদিকে সরে গিয়ে পুরোপুরি খুলনা ও বরিশাল অঞ্চলে আছড়ে পড়ে, সেক্ষেত্রে ঝড়টির গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে।

এদিকে কানাডার সাসকাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ু বিষয়ক গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতীয় উপমহাদেশের ঊর্ধ্ব আকাশে প্রবাহিত জেট স্টিমের গতিপথের সর্বশেষ অবস্থান ও জেট স্ট্রিমে অবস্থিত বায়ুপ্রবাহের গতিবেগের চিত্র বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’ খুলনা ও বরিশালের উপকূলীয় এলাকার উপর দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। ঝড়টি ২৪ অক্টোবর সন্ধ্যার পর থেকে ২৫ অক্টোবর দুপরের মধ্যে আঘাত করার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। তবে কাল শনিবার (২২ অক্টোবর) দুপুরের মধ্যে ঝড়টির আঘাতের স্থান ও সময় সম্পর্কে ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

তিনি বলেন, ঝড়টি উপকূলে আঘাত করার সম্ভাব্য সময়টাতে অমাবশ্যা থাকবে। তাই ঝড়টি যদি খুলনা ও বরিশাল বিভাগের উপর দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করে তবে খুলনা ও বরিশাল বিভাগের উপকূলীয় জেলাগুলো ৫ থেকে ৮ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া ঝড়ের প্রভাবে ২৪ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত বরিশাল, খুলনা, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের জেলাগুলোতে ভারি বৃষ্টিপাতের প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’

আপডেট সময় : ০৩:১৯:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

বঙ্গোপসাগরের আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ সংলগ্ন সমুদ্র এলাকায় একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। এটি আরো ঘণীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ে রূপ নিতে পারে। বিষয়টি আজ শুক্রবারের (২১ অক্টোবর) মধ্যেই নিশ্চিত হওয়া যাবে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী পরিচালতি জয়েন টাইফুন ওয়ার্নিং সেন্টারের তথ্যমতে, আন্দামান ও নিকোবর সমুদ্র এলাকায় সৃষ্ট নিম্নচাপটির ‘ইনভেস্ট ৯২বি’ নামকরণ করা হয়েছে যেটি এক দিনের ব্যবধানে আরও শক্তিশালী হয়েছে। নিম্নচাপটির কেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২২ থেকে ২৮ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠছে। এটি ঘণ্টায় ৬৩ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠলে নিন্মচাপটি ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ে রূপ নেবে। এছাড়া ঘূর্ণিঝড়টি ঘণ্টায় ১৫ কিলোমিটার বেগে উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হচ্ছে।

গত বুধবার (১৯ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেল গ্লোবাল ফোরকাস্ট সিস্টেম (জিএফএস) এক পূর্বাভাসে জানায়, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি আগামী ২১ অক্টোবরের মধ্যে নিম্নচাপে রূপ নিতে পারে; যেটি ২২ থেকে ২৩ অক্টোবরের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের শক্তি অর্জনের প্রবল আশঙ্কা রয়েছে এবং ২৫ অক্টোবরের মধ্যে উপকূলে আঘাত হানতে পারে।

পূর্বাভাসে বলা হয়, খুলনা বিভাগে আঘাত হানার সময় ঘূর্ণিঝড়টির গতিবেগ ঘণ্টায় ১০০ থেকে ১৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠতে পারে। তবে ঘূর্ণিঝড়টি যদি কিছুটা পূর্বদিকে সরে গিয়ে পুরোপুরি খুলনা ও বরিশাল অঞ্চলে আছড়ে পড়ে, সেক্ষেত্রে ঝড়টির গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে।

এদিকে কানাডার সাসকাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ু বিষয়ক গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতীয় উপমহাদেশের ঊর্ধ্ব আকাশে প্রবাহিত জেট স্টিমের গতিপথের সর্বশেষ অবস্থান ও জেট স্ট্রিমে অবস্থিত বায়ুপ্রবাহের গতিবেগের চিত্র বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড় ‘সিত্রাং’ খুলনা ও বরিশালের উপকূলীয় এলাকার উপর দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। ঝড়টি ২৪ অক্টোবর সন্ধ্যার পর থেকে ২৫ অক্টোবর দুপরের মধ্যে আঘাত করার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। তবে কাল শনিবার (২২ অক্টোবর) দুপুরের মধ্যে ঝড়টির আঘাতের স্থান ও সময় সম্পর্কে ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

তিনি বলেন, ঝড়টি উপকূলে আঘাত করার সম্ভাব্য সময়টাতে অমাবশ্যা থাকবে। তাই ঝড়টি যদি খুলনা ও বরিশাল বিভাগের উপর দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করে তবে খুলনা ও বরিশাল বিভাগের উপকূলীয় জেলাগুলো ৫ থেকে ৮ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া ঝড়ের প্রভাবে ২৪ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত বরিশাল, খুলনা, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের জেলাগুলোতে ভারি বৃষ্টিপাতের প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।