ঢাকা ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী যুক্তরাষ্ট্র : শোলেট

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৩৬:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৪৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের কাউন্সেলর ডেরেক এইচ শোলেট বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে অনেক চ্যালেঞ্জের পাশাপাশি একসঙ্গে কাজ করার সমান সুযোগ রয়েছে।

বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন শোলেট। বৈঠক শেষে যৌথ ব্রিফিং এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিনকেনের বিশেষ উপদেষ্টা।

শোলেট বলেন, আমরা ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী। আমাদের ৫১ বছরে শক্তিশালী অংশীদারিত্ব। আমরা পরবর্তী ৫১ বছর একসঙ্গে কাজ করতে চাই। সামনে আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ এবং একসঙ্গে কাজ করার সমান সুযোগও রয়েছে। দু’দেশের অর্থনীতি ও নিরাপত্তা বাড়ানোর ক্ষেত্রে ওয়াশিংটন আগ্রহী বলে জানান শোলেট।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিশেষ উপদেষ্টা বলেন, আমরা এখানে এসেছি, কারণ যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে গুরুত্ব দেয়। আজকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও আমাদের খুব ভালো বৈঠক হয়েছে। আতিথেয়তার জন্য বাংলাদেশ সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ।

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে শোলেট বলেন, বাংলাদেশ এ অঞ্চলে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কী করছে এটি গুরুত্বপূর্ণ। আমরা জানি, বাংলাদেশ মিয়ানমার থেকে এক মিলিয়নেরও বেশি শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমরা প্রতিদিন কাজ করছি, বাংলাদেশকে সাহায্য করার চেষ্টা করছি। কিন্তু এ সংকট মোকাবিলার মূল কারণ মিয়ানমারে অভ্যন্তরে।

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে যুক্তরাষ্ট্র গুরুত্ব দেয় দাবি করে সফররত দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উপদেষ্টা ডেরেক শোলে বলেন, মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা সমস্যার টেকসই সমাধানের চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ডেরেক শোলে। বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে গণভবনে বাংলাদেশের সরকারপ্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। সাক্ষাতে দ্বি-পাক্ষিক নানা ইস্যু নিয়ে কথা হয় বলে জানা গেছে।

দুই দিনের সফরে মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ঢাকায় আসেন শোলেট। পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান। সফরের শুরুতে আজ বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। সন্ধ্যায় শোলেটের ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার কথা রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী যুক্তরাষ্ট্র : শোলেট

আপডেট সময় : ০২:৩৬:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের কাউন্সেলর ডেরেক এইচ শোলেট বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে অনেক চ্যালেঞ্জের পাশাপাশি একসঙ্গে কাজ করার সমান সুযোগ রয়েছে।

বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন শোলেট। বৈঠক শেষে যৌথ ব্রিফিং এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিনকেনের বিশেষ উপদেষ্টা।

শোলেট বলেন, আমরা ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী। আমাদের ৫১ বছরে শক্তিশালী অংশীদারিত্ব। আমরা পরবর্তী ৫১ বছর একসঙ্গে কাজ করতে চাই। সামনে আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ এবং একসঙ্গে কাজ করার সমান সুযোগও রয়েছে। দু’দেশের অর্থনীতি ও নিরাপত্তা বাড়ানোর ক্ষেত্রে ওয়াশিংটন আগ্রহী বলে জানান শোলেট।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিশেষ উপদেষ্টা বলেন, আমরা এখানে এসেছি, কারণ যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে গুরুত্ব দেয়। আজকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও আমাদের খুব ভালো বৈঠক হয়েছে। আতিথেয়তার জন্য বাংলাদেশ সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ।

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে শোলেট বলেন, বাংলাদেশ এ অঞ্চলে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কী করছে এটি গুরুত্বপূর্ণ। আমরা জানি, বাংলাদেশ মিয়ানমার থেকে এক মিলিয়নেরও বেশি শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমরা প্রতিদিন কাজ করছি, বাংলাদেশকে সাহায্য করার চেষ্টা করছি। কিন্তু এ সংকট মোকাবিলার মূল কারণ মিয়ানমারে অভ্যন্তরে।

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে যুক্তরাষ্ট্র গুরুত্ব দেয় দাবি করে সফররত দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উপদেষ্টা ডেরেক শোলে বলেন, মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা সমস্যার টেকসই সমাধানের চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ডেরেক শোলে। বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে গণভবনে বাংলাদেশের সরকারপ্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। সাক্ষাতে দ্বি-পাক্ষিক নানা ইস্যু নিয়ে কথা হয় বলে জানা গেছে।

দুই দিনের সফরে মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ঢাকায় আসেন শোলেট। পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান। সফরের শুরুতে আজ বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। সন্ধ্যায় শোলেটের ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার কথা রয়েছে।