ঢাকা ০৪:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

দেশের আর্থিক খাত এখন শূন্যের মধ্যে ঝুলছে : রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১১:১৪:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪
  • / ৪৪১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, শীর্ষ ব্যবসায়ী কোনও অনুমতি না নিয়ে বিদেশে অর্থ সরিয়ে বিনিয়োগ করতে পারে। নিয়মনীতি না মেনে ক্ষমতার ঘনিষ্ঠদের হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে। ফলে ব্যাংকিং খাতে চরম অব্যবস্থাপনা। ঋণ খেলাপির পরিমাণ এতটাই বেড়েছে যে, দেশের আর্থিক খাত এখন শূন্যের মধ্যে ঝুলছে। যেকোনও সময় এর ভয়ংকর ক্র্যাশ ল্যান্ডিং হতে পারে। আর তাই মিথ্যা আর বিভ্রান্তি আওয়ামী নেতাদের সারাক্ষণের নিত্যসঙ্গী।

সোমবার (২০ মে) নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

মানুষের মনযোগকে ধূসর ও বিভ্রান্ত করার জন্য মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে আওয়ামী লীগ অবিরাম বক্তব্য বিবৃতি দিচ্ছে বলে উল্লেখ করেন রিজভী। তিনি বলেন, বিরোধী নেতাদের প্রতি রীতি ও শালীনতা উপেক্ষা করে ক্রমাগত বিষোদগার করা হয়। বিরোধী দলের কথা বলা, স্বাধীন মত প্রকাশ করা আওয়ামী নীতিবিরুদ্ধ।

তিনি বলেন, সারা দেশকে অনতিক্রম্য কাঁটাতারের বেড়ায় ঘিরে রাখার পরও জুলুমের পরিধি বিস্তৃত করা হচ্ছে প্রতিদিন। ইশরাক হোসেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী ছিলেন। অপেক্ষাকৃত এই তরুণ নেতার জনপ্রিয়তায় ডামি সরকার মনে করছে ক্ষমতাসীনদের ক্ষমতায় থাকার নিদারুণ ব্যাঘাত ঘটাবে।

তিনি আরও বলেন, আদালতের স্বাধীনতা থাকলে দুর্বল গৎবাঁধা সাজানো মামলায় ইশরাকসহ বিপুল সংখ্যক বিএনপি নেতাকর্মীকে অকারণে মিথ্যা মামলায় ফরমায়েশি সাজা প্রদান করে আটক রাখতে পারতো না।

নিউজটি শেয়ার করুন

দেশের আর্থিক খাত এখন শূন্যের মধ্যে ঝুলছে : রিজভী

আপডেট সময় : ১১:১৪:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, শীর্ষ ব্যবসায়ী কোনও অনুমতি না নিয়ে বিদেশে অর্থ সরিয়ে বিনিয়োগ করতে পারে। নিয়মনীতি না মেনে ক্ষমতার ঘনিষ্ঠদের হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে। ফলে ব্যাংকিং খাতে চরম অব্যবস্থাপনা। ঋণ খেলাপির পরিমাণ এতটাই বেড়েছে যে, দেশের আর্থিক খাত এখন শূন্যের মধ্যে ঝুলছে। যেকোনও সময় এর ভয়ংকর ক্র্যাশ ল্যান্ডিং হতে পারে। আর তাই মিথ্যা আর বিভ্রান্তি আওয়ামী নেতাদের সারাক্ষণের নিত্যসঙ্গী।

সোমবার (২০ মে) নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

মানুষের মনযোগকে ধূসর ও বিভ্রান্ত করার জন্য মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে আওয়ামী লীগ অবিরাম বক্তব্য বিবৃতি দিচ্ছে বলে উল্লেখ করেন রিজভী। তিনি বলেন, বিরোধী নেতাদের প্রতি রীতি ও শালীনতা উপেক্ষা করে ক্রমাগত বিষোদগার করা হয়। বিরোধী দলের কথা বলা, স্বাধীন মত প্রকাশ করা আওয়ামী নীতিবিরুদ্ধ।

তিনি বলেন, সারা দেশকে অনতিক্রম্য কাঁটাতারের বেড়ায় ঘিরে রাখার পরও জুলুমের পরিধি বিস্তৃত করা হচ্ছে প্রতিদিন। ইশরাক হোসেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী ছিলেন। অপেক্ষাকৃত এই তরুণ নেতার জনপ্রিয়তায় ডামি সরকার মনে করছে ক্ষমতাসীনদের ক্ষমতায় থাকার নিদারুণ ব্যাঘাত ঘটাবে।

তিনি আরও বলেন, আদালতের স্বাধীনতা থাকলে দুর্বল গৎবাঁধা সাজানো মামলায় ইশরাকসহ বিপুল সংখ্যক বিএনপি নেতাকর্মীকে অকারণে মিথ্যা মামলায় ফরমায়েশি সাজা প্রদান করে আটক রাখতে পারতো না।