ঢাকা ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

দিনাজপুরে ভাতাভোগীদের লাইভ ভেরিফিকেশনের শুভ উদ্বোধন

মোঃ খাদেমুল ইসলাম, দিনাজপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১১:৩৬:৫৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪
  • / ৪৪১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দিনাজপুরে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় শহরের ১২ ওয়ার্ডের ভাতাভোগীদের লাইভ ভেরিফিকেশনের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা সদর সমাজসেবা কার্যালয় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে।

আজ ১ জুলাই সোমবার বেলা ১১টার দিকে দিনাজপুর জেলা সমাজসেবা কমপ্লেক্স ভবন শহর সমাজসেবা কার্যালয় আয়োজিত সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির উপকারভোগীর লাইভ ভেরিফিকেশনে ভাতাভোগীদের স্বাক্ষরতাদান, প্রাথমিক স্বাস্থ্য (ডায়বেটিস, রক্ত, প্রেসার) ও চক্ষু পরীক্ষার শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ নূর-এ-আলম।

জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক ও সহকারি পরিচালক মো. ময়নুল হক এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শহর সমাজসেবা অফিসার মো. মাইনুল ইসলাম। এছাড়াও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মো. মুনির হোসেনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র আবু তৈয়ব আলী দুলাল, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, শহর সমাজসেবা কার্যালয় সমন্বয় পরিষদের সভাপতি বজলুল হক।

এরপর প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ ভাতাভোগীদের স্বাক্ষরতাদান, প্রাথমিক স্বাস্থ্য ও চক্ষু পরীক্ষা কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

শহর সমাজসেবা অফিসার মো. মাইনুল ইসলাম সময়ের আলোকে বলেন, হ্যাকারের কবল থেকে ভাতাভোগীদের পরিত্রাণ দিতেই এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। হ্যাকাররা যেন ভাতাভোগীর ওটিপি নম্বর অথবা পিন নম্বর হাতিয়ে নিয়ে সরকারি ভাতার টাকা উত্তোলন করতে না পারে তাই ভাতাভোগীদের স্বাক্ষরতাদান কর্মসূচী নেয়া হয়েছে। এতে কমে যাবে হ্যাকারদের দৌরাত্ম।

আর সমাজসেবা অফিস থেকে ভাতাভোগীদের মোবাইল ওটিটি বা পিন নম্বর কখনও চাওয়া হয় না। এই কর্মসূচীর আওতায় হ্যাকারদের সম্পর্কে ব্যাপক সচেতনতামুলক দিক-নির্দেশনা দেওয়া হয় বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, এই কর্মসূচির আওতায় দিনাজপুর শহরের ৪ হাজার ৮২৪ জন বয়স্ক ভাতাভোগী, ৩ হাজার ৯১ জন বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ভাতাভোগী, ২ হাজার ৮৫২ জন প্রতিবন্ধী ভাতাভোগী, ১৪২ জন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি, ২০ জন অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর শিক্ষা উপবৃত্তি, ১৭ জন হিজরা জনগোষ্ঠীর শিক্ষা উপবৃত্তি, ৯ জন হিজরা জনগোষ্ঠীর বিশেষ ভাতা এবং ১৮ জন অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর বিশেষ ভাতা পাচ্ছেন।

মোবাইল আর্থিক প্রতিষ্ঠান নগদ, বিকাশ এবং এজেন্ট ব্যাংকিং এর মাধ্যমে পরিশোধযোগ্য এসব ভাতার গ্রহিতাদের মধ্যে অনেকে মারা যাচ্ছেন, কোন কোন বিধবা মহিলা নতুন করে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন। কিন্তু সে বিষয়গুলো ভাতা প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ যথাযথভাবে অবহিত না হওয়ার কারনে তাদের অনুকুলে সরকারি ভাতার অর্থ ছাড় করা হচ্ছে।

কাজেই এসব বিষয় সম্পর্কে কর্তৃপক্ষ ভাতা প্রদানের বৈধতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে লাইভ ভেরিফিকেশন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার। বস্তুতঃ এই কার্যক্রমের আওতায় দিনাজপুর শহরের ১২টি ওয়ার্ডে সামাজিক নিরাপত্তার আওতায় সকল ভাতাভোগীদের ওয়ার্ড ভিত্তিক লাইভ ভেরিফিকেশন করা হবে।

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

দিনাজপুরে ভাতাভোগীদের লাইভ ভেরিফিকেশনের শুভ উদ্বোধন

আপডেট সময় : ১১:৩৬:৫৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪

দিনাজপুরে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় শহরের ১২ ওয়ার্ডের ভাতাভোগীদের লাইভ ভেরিফিকেশনের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা সদর সমাজসেবা কার্যালয় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে।

আজ ১ জুলাই সোমবার বেলা ১১টার দিকে দিনাজপুর জেলা সমাজসেবা কমপ্লেক্স ভবন শহর সমাজসেবা কার্যালয় আয়োজিত সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির উপকারভোগীর লাইভ ভেরিফিকেশনে ভাতাভোগীদের স্বাক্ষরতাদান, প্রাথমিক স্বাস্থ্য (ডায়বেটিস, রক্ত, প্রেসার) ও চক্ষু পরীক্ষার শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ নূর-এ-আলম।

জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক ও সহকারি পরিচালক মো. ময়নুল হক এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শহর সমাজসেবা অফিসার মো. মাইনুল ইসলাম। এছাড়াও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মো. মুনির হোসেনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র আবু তৈয়ব আলী দুলাল, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, শহর সমাজসেবা কার্যালয় সমন্বয় পরিষদের সভাপতি বজলুল হক।

এরপর প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ ভাতাভোগীদের স্বাক্ষরতাদান, প্রাথমিক স্বাস্থ্য ও চক্ষু পরীক্ষা কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

শহর সমাজসেবা অফিসার মো. মাইনুল ইসলাম সময়ের আলোকে বলেন, হ্যাকারের কবল থেকে ভাতাভোগীদের পরিত্রাণ দিতেই এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। হ্যাকাররা যেন ভাতাভোগীর ওটিপি নম্বর অথবা পিন নম্বর হাতিয়ে নিয়ে সরকারি ভাতার টাকা উত্তোলন করতে না পারে তাই ভাতাভোগীদের স্বাক্ষরতাদান কর্মসূচী নেয়া হয়েছে। এতে কমে যাবে হ্যাকারদের দৌরাত্ম।

আর সমাজসেবা অফিস থেকে ভাতাভোগীদের মোবাইল ওটিটি বা পিন নম্বর কখনও চাওয়া হয় না। এই কর্মসূচীর আওতায় হ্যাকারদের সম্পর্কে ব্যাপক সচেতনতামুলক দিক-নির্দেশনা দেওয়া হয় বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, এই কর্মসূচির আওতায় দিনাজপুর শহরের ৪ হাজার ৮২৪ জন বয়স্ক ভাতাভোগী, ৩ হাজার ৯১ জন বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ভাতাভোগী, ২ হাজার ৮৫২ জন প্রতিবন্ধী ভাতাভোগী, ১৪২ জন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি, ২০ জন অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর শিক্ষা উপবৃত্তি, ১৭ জন হিজরা জনগোষ্ঠীর শিক্ষা উপবৃত্তি, ৯ জন হিজরা জনগোষ্ঠীর বিশেষ ভাতা এবং ১৮ জন অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর বিশেষ ভাতা পাচ্ছেন।

মোবাইল আর্থিক প্রতিষ্ঠান নগদ, বিকাশ এবং এজেন্ট ব্যাংকিং এর মাধ্যমে পরিশোধযোগ্য এসব ভাতার গ্রহিতাদের মধ্যে অনেকে মারা যাচ্ছেন, কোন কোন বিধবা মহিলা নতুন করে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন। কিন্তু সে বিষয়গুলো ভাতা প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ যথাযথভাবে অবহিত না হওয়ার কারনে তাদের অনুকুলে সরকারি ভাতার অর্থ ছাড় করা হচ্ছে।

কাজেই এসব বিষয় সম্পর্কে কর্তৃপক্ষ ভাতা প্রদানের বৈধতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে লাইভ ভেরিফিকেশন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার। বস্তুতঃ এই কার্যক্রমের আওতায় দিনাজপুর শহরের ১২টি ওয়ার্ডে সামাজিক নিরাপত্তার আওতায় সকল ভাতাভোগীদের ওয়ার্ড ভিত্তিক লাইভ ভেরিফিকেশন করা হবে।

বাখ//আর