ঢাকা ০৭:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

দিনাজপুরে বিভাগীয় লেখক পরিষদের বার্ষিক সাধারন সভা

খাদেমুল ইসলাম, দিনাজপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৩:৫৪:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৬০৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দিনাজপুরে আগামী ১ ডিসেম্বর রংপুর বিভাগীয় সাহিত্য সম্মেলনকে সামনে রেখে “বিশুদ্ধ আত্মা, সুন্দর সমাজ”-এই শ্লোগানকে সামনে রেখে দিনাজপুর বিভাগীয় লেখক পরিষদের আয়োজনে বার্ষিক সাধারন সভা ও কবি তৈমুর রহমানের প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ “আলো আঁধার” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন এবং তার বই থেকে কবিরা কবিতা পাঠ করেন।

২ অক্টোবর মুন্সিপাড়া হেমায়েত আলী হল ও লাইব্রেরী’র হলরুমে দিনাজপুর বিভাগীয় লেখক পরিষদের সাধারন সম্পাদক কবি ও নাট্যকর্মী ওয়াসিম আহমেদ শান্ত’র সঞ্চালনায় সভাপতির বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইব্রাহিম শাহ। সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক কবি মোস্তফা হিরা’র স্বাগত বক্তব্য শেষে সাংগঠনিক আলোচনা করা হয়।

এরপর শুরু হয় কবিতা পাঠের আসর। এতে অংশ নেন কবি মোহাম্মদ আলী, শাহ সিকান্দার, কবি আবুল হোসেন আকন্দ, কবি কাশী কুমার দাস ঝন্টু, হোসাইন মোঃ আনোয়ার, জান্নাতুন ফেরদৌস, ডিএম মুজিব, কবি মোহাম্মদ আলী, মোঃ নুর আলম, মমিনুল ইসলাম, কালিপদ রায়, সাইদুর আলম সাজু, তাইজুল মন্ডল, কবি বিলকিস জান্নাত ও প্রবীন লেখক এ্যাডঃ সৈয়দ কেরামত হোসেন।

কবিতা এবং কাব্যগ্রন্থের উপর আলোচনা করেন বিশিষ্ট কবি নিরঞ্জন রায়। “আলো আঁধার” কাব্যগ্রন্থের লেখক তৈমুর রহমান বলেন, আমি একজন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। কলেজ জীবন থেকেই কবিতা চর্চা শুরু করি। আমার প্রকাশিত লেখা “বিপন্ন মানবতা” “বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ” “জখমি হৃদয়” এবং “আলো আঁধার”। কবি নিরঞ্জন রায় বলেন, কবি তৈমুর রহমান তার কাব্যগ্রন্থের’ ইহজগত এবং পরজগতের এক অন্যরকম কবিতার পটভুমি তৈরি করেছেন। জীবন যে ক্ষনস্থায়ী তার কবিতায় স্মরণ করিয়ে দিয়েছে। কাব্যগ্রন্থে মোট ৭২টি কবিতা স্থান পেয়েছে।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

দিনাজপুরে বিভাগীয় লেখক পরিষদের বার্ষিক সাধারন সভা

আপডেট সময় : ০৩:৫৪:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩

দিনাজপুরে আগামী ১ ডিসেম্বর রংপুর বিভাগীয় সাহিত্য সম্মেলনকে সামনে রেখে “বিশুদ্ধ আত্মা, সুন্দর সমাজ”-এই শ্লোগানকে সামনে রেখে দিনাজপুর বিভাগীয় লেখক পরিষদের আয়োজনে বার্ষিক সাধারন সভা ও কবি তৈমুর রহমানের প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ “আলো আঁধার” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন এবং তার বই থেকে কবিরা কবিতা পাঠ করেন।

২ অক্টোবর মুন্সিপাড়া হেমায়েত আলী হল ও লাইব্রেরী’র হলরুমে দিনাজপুর বিভাগীয় লেখক পরিষদের সাধারন সম্পাদক কবি ও নাট্যকর্মী ওয়াসিম আহমেদ শান্ত’র সঞ্চালনায় সভাপতির বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইব্রাহিম শাহ। সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক কবি মোস্তফা হিরা’র স্বাগত বক্তব্য শেষে সাংগঠনিক আলোচনা করা হয়।

এরপর শুরু হয় কবিতা পাঠের আসর। এতে অংশ নেন কবি মোহাম্মদ আলী, শাহ সিকান্দার, কবি আবুল হোসেন আকন্দ, কবি কাশী কুমার দাস ঝন্টু, হোসাইন মোঃ আনোয়ার, জান্নাতুন ফেরদৌস, ডিএম মুজিব, কবি মোহাম্মদ আলী, মোঃ নুর আলম, মমিনুল ইসলাম, কালিপদ রায়, সাইদুর আলম সাজু, তাইজুল মন্ডল, কবি বিলকিস জান্নাত ও প্রবীন লেখক এ্যাডঃ সৈয়দ কেরামত হোসেন।

কবিতা এবং কাব্যগ্রন্থের উপর আলোচনা করেন বিশিষ্ট কবি নিরঞ্জন রায়। “আলো আঁধার” কাব্যগ্রন্থের লেখক তৈমুর রহমান বলেন, আমি একজন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। কলেজ জীবন থেকেই কবিতা চর্চা শুরু করি। আমার প্রকাশিত লেখা “বিপন্ন মানবতা” “বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ” “জখমি হৃদয়” এবং “আলো আঁধার”। কবি নিরঞ্জন রায় বলেন, কবি তৈমুর রহমান তার কাব্যগ্রন্থের’ ইহজগত এবং পরজগতের এক অন্যরকম কবিতার পটভুমি তৈরি করেছেন। জীবন যে ক্ষনস্থায়ী তার কবিতায় স্মরণ করিয়ে দিয়েছে। কাব্যগ্রন্থে মোট ৭২টি কবিতা স্থান পেয়েছে।

 

বাখ//আর